ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

১৫ আগস্ট নাকি ‘মহারানী’ খালেদা জিয়ার জন্ম দিন !! তিনি ১৯৪৪ সাল থেকে ১৯৪৭ সাল পর্যন্ত ৫ ( পাঁচ বার ) জন্ম গ্রহন করে এই মহা-বিশ্বে বাংলাদেশকে গৌরবান্নিত ও ধন্য (!) করেছেন .. কারন এই মহা-বিশ্বে তিনিই একমাত্র মহীয়সী নারী (!) যিনি পাঁচ – পাঁচ বার জন্ম গ্রহন করেছেন … তার আরেকটি অদ্বিতীয় , ইর্ষনীয় বিশ্ব – রেকর্ড হলো যে , তিনিই বাংলাদেশের প্রথম এবং শেষ সরকার প্রধান (!) , যার নেত্রীত্বে বাংলাদেশ রাষ্ট্রীয় দুর্নীতিতে পর পর ৫ বার ‘বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন’ হয়েছিলো !! এই মহীয়সী নারীর জন্ম দিন সম্পর্কে যতদুর জানা গেছে , সেই ইতিহাস নিয়ে এখানে একটু আলোকপাত করা হলো :

— ৫ আগষ্ট ১৯৪৪ সালে উনি সর্ব প্রথম এই পৃথিবীতে আগমন করেন .. যেটা তিনি তার ‘ম্যারেজ সার্টিফিকেটে’ উল্লেখ করেছেন … যাক , অন্তত: একটা ‘ম্যারেজ’ সম্পর্কে তো জাতি জানতে পারলো … আমরা ধন্য !!

— ৫ সেপ্টেম্বর ১৯৪৬ সালে দ্বিতীয়বার তিনি এই পৃথিবীতে আগমন করেন ( কবে , কিভাবে তিনি পৃথিবী ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন তা এখনো জানা যায়নি ) যেটা তিনি তার ‘স্কুলের রেজিষ্টারে’ উল্লেখ করেছেন .. যদিও উনি ইদানিং বলছেন যে , তিনি ‘স্বশিক্ষিত’ – তবে দুর্মুখেরা বলে – তার আসল শিক্ষাগত যোগ্যতা নাকি ‘ফেল করতে করতে দুই ক্লাস কম মেট্রিক পাশ’ , অর্থাত ক্লাস এইট –এ গিয়ে ঠেকেছিলো .. আর , তাইতো তার দুই গুনধর যুবরাজ পুত্ররা তাদের আম্মাজানের অসন্মান হবে মনে করে তারাও স্কুল থেকে কয়েকবার বহিস্কৃত ও ফেল করে তাদের শিক্ষা জীবন ‘মেট্রিক’ এর ঘরেই সীমাবদ্ধ রেখেছে .. গর্বিত মায়ের উপযুক্ত সন্তান বটে !!

— ১৯ আগস্ট ১৯৪৭ সালে তৃতীয়বার তিনি আবারও এই পৃথিবীকে ধন্য করতে মর্ত্যে আগমন করেন .. এই তারিখটি তিনি ১৯৯১ সালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহনের দিন ‘সরকারী রেজিস্টারে’ নথীভুক্ত করান !!

— ১৫ আগস্ট ১৯৪৭ সালটি উনি কি মনে করে তার কিছু ‘নাদান উপদেষ্টাদের’ পরামর্শে তার ‘প্রেস সেক্রেটারির’ মাধ্যমে দেশবাসীকে জানিয়ে ধন্য করলেন যে – এখন থেকে তার নতুন জন্ম তারিখ হলো ১৫ আগস্ট ১৯৪৭ !!

— ১৫ আগস্ট ১৯৪৬ – হটাত আবার এই তারিখটি তিনি ‘জাতীয় নির্বাচনের’ সময় নির্বাচন কমিশনের ফর্মে নথীভুক্ত করিয়ে তারিখটি পোক্ত করিয়ে নেন … কোন ‘নাদান’ বলে যে , ওনার কোনো কু-বুদ্ধি নাই ?!!

এছাড়াও , তার ‘পাসপোর্ট’ যে কয়টি ছিলো বা আছে এবং তিনি তার ‘জন্মদিন’ কোন পাসপোর্টে কোনটা দিয়েছিলেন সেগুলি নাকি এখন আর মনে রাখতে পারেন না !! এবার নাকি তার আবার খায়েশ হয়েছে যে , তিনি এখন থেকে ‘বছরে দুইবার’ জন্মদিন পালন করে দেশবাসীকে আরো ধন্য করবেন ( এটা মনে হয় – লেজকাটা বান্দরের বুদ্ধি ) .. তার সেই জন্মদিন গুলি হলো – ‘১৫ আগস্ট’ এবং ‘২১ আগস্ট’ … মহিয়সী মহারানীদের ব্যাপার – স্যাপারই আলাদা !!

আমরা ছোটবেলায় শুনেছিলাম যে , সরকারী চাকুরী পাবার জন্য পিতা – মাতারা সন্তানদের বয়স তাদের স্কুল সার্টিফিকেটে প্রকৃত জন্ম তারিখ থেকে ১ বছর কমিয়ে দেখাতেন এবং এই ব্যাপারটি ছিলো একেবারেই ‘ওপেন সিক্রেট‘ এবং সেখানে আর অন্য কোনো অসত উদ্দেশ্য বা কোনো ‘ভন্ডামীর’ ব্যাপার ছিলো না … একজন ব্যক্তির ‘জন্ম তারিখ’ একটিই হয় – সেটা ভুলে হোক বা জেনেশুনে হোক !!

… কিন্তু ‘মহারানী’ খালেদা জিয়ার যে এতোগুলি জন্ম তারিখ এবং এই ব্যাপারে যে তিনি কখনই কোনরূপ আপোষ করেন নাই .. তার জন্য তাঁকে আন্তর্জাতিক ‘ক্ষণ-জন্মা নারী‘ হিসেবে ‘নোবেল পুরস্কার‘ দেয়া উচিত !!! … আল্লাহ ওনাকে হেদায়েত করুন |