ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

 

একটা পুরোনো কৌতুক বলি-
এক লোক ধান ক্ষেতের ওপর দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিল। হঠাৎ পেছন থেকে বাঁজখাই গলায় ধমক- এই! খবর্দার!! আর এক পা-ও সামনে যাবি না, সামনের জমিটা আমার!!!
লোকটি বললঃ তাহলে ডানে যাই?
না! ডানেও আমার জমি!!!
তাহলে বাঁয়ে যাই?
না! বাঁয়েও আমার জমি!!!
ঠিক আছে, তাহলে পিছনে ফিরে আসি…
না! পিছনের জমিটাও আমার!!!
তাহলে আমি কী করব???
না! আমার জমিতে দাঁড়িয়ে তুই “কী”-ও করতে পারবি না!!!

গত আট/নয় মাস ধরে যাদের বিভিন্ন সংবাদপত্র ও মিডিয়ার সাথে যোগাযোগ আছে তারা সবাই জানেন সাম্প্রতি “ডেসটিনি” নিয়েও এরকমই একটা প্রহসন শুরু হয়েছে! এই আট/নয় মাসে কতিপয় মিডিয়া ও সংবাদ মাধ্যম এ ব্যাপারে এহেন কোন বক্তব্য নাই যা তারা দেয় নাই। প্রথম দিকে বিদেশে টাকা পাচার, পরিচালকদের নিজের নামে সম্পত্তি ক্রয়, নিন্মমানের পন্য আমদানি, এক জিনিস (গাছ) বহুজনের কাছে বিক্রি ইত্যাদি অভিযোগ থাকলেও পরবর্তিতে মানি লন্ডারিং, টাকা আত্মসাৎ, এমন কি অতিরিক্ত(!) কমিশন দেয়ার অভিযোগ পর্যন্ত এসেছে! নিজেদের দেয়া আগের বক্তব্যের সাথেই পরের বক্তব্যের মিল নেই! অভিযোগ প্রমান তো দূরে থাক উপযুক্ত স্বাক্ষি-প্রমানই পাওয়া যায় নি আজও। আবার কোম্পানির ভবিষ্যৎ কি হতে পারে এমন তথ্যও দিয়েছে অনেক “জ্যোতিষি” রিপোর্টার। আবার অনেকে কোম্পানির “কি করা উচিৎ ছিল” তাও পরামর্শ দিয়েছেন! (বুঝলাম না- এতো প্রতিভা নিয়ে এরা সামান্য রিপোর্টারের চাকরি করছে কেন? বড় বড় কোম্পানির কন্সাল্টেন্সি দিলে বা নিজেই একটা কোম্পানি খুললেই তো পারে!!!) আর সরকারেরও কিছু অতি বোদ্ধা কর্মকর্তা সেই সুযোগে অনেক ফায়দা লুটলেন…!

১২ বছর আগে একটা কোম্পানি তার “ধান ক্ষেতে” ঢুকে পড়লো, তখন কেউ চোখে দেখলো না। আজ ৪৫ লাখ লোকের হাজার হাজার কোটি টাকার একটা কোম্পানিকে বলা হচ্ছে- “তুই ‘কী’-ও করতে পারবি না”!!!

সবার জন্য এক আইন আর ডেসটিনির জন্য আলাদা। ডেসটিনি টাকা ব্যাংক-এ রাখলে ‘একাউন্ট জব্দ’, সম্পত্তি কিনলে- ‘অবৈধ’, কমিশন দিলে- ‘উধাও হয়ে যেতে পারে’, লেনদেন করলে- ‘মানি লন্ডারিং’, পণ্য আমদানি করলে- ‘বিদেশে টাকা পাচার’, গাছ লাগালে- ‘ভন্ডামি’, গাছ কাটলে- ‘পরিবেশের ক্ষতি’, ট্যাক্স দিলে- ‘এতো টাকা পাইলো কই…???’

কেউ কি দয়া করে বলবেন- এখন আমরা কী করব???
জানি কোন উত্তর নাই। অন্ধকারে কার অট্টহাসি শুনতে পাই- “তুই ‘কি’-ও করতে পারবি না…”
হে অন্ধকারের গডফাদার! হুসিয়ার!! সাবধান!!! …আমরা মায়ানমার থেকে আগত রোহিঙ্গা না। আমারা এই দেশেরই সন্তান… বীরের রক্ত আমাদেরই গায়ে বহমান…
অনেক সহ্য করেছি… আমাদের বিনয়কে দুর্বলতা ভেবো না। কুকুর কামড়ালে আমরাও কুকুরকে কামড় দেই না বটে- কিন্তু এক বাড়িতে কুকুরের কোমড় ভেঙ্গে দেবার মত মুগর কিন্তু আমাদের ঠিকই আছে…

– সফিক এহসান