ক্যাটেগরিঃ ব্লগ

 

পদ্মা সেতুর অর্থায়ন চুক্তি বাতিল করে দিয়েছে বিশ্বব্যাংক।
পদ্মা সেতু নির্মাণ প্রকল্পে পরামর্শক নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তে বাংলাদেশ সরকার সহযোগিতা না করায় বিশ্বব্যাংক এই ঋণচুক্তি বাতিল করে দিয়েছে বলে গত শুক্রবার রাতে সংস্থাটির ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

২৯০ কোটি ৯০ লাখ মার্কিন ডলার ব্যয়ে পদ্মা সেতু নির্মাণ প্রকল্পে বিশ্বব্যাংকেরই দেয়ার কথা ছিল ১২০ কোটি ডলার। দুর্নীতির অভিযোগে অর্থায়ন স্থগিত করার ১০ মাসের মাথায় আন্তর্জাতিক অর্থলগ্নিকারী এই সংস্থা ঋণচুক্তি বাতিলের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিলো। পদ্মা সেতু নির্মাণ প্রকল্পে বিশ্বব্যাংকের মতো সংস্থা সরে দাঁড়ানোর ফলে বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই সেতুটি নির্মাণ পুরোপুরি অনিশ্চিত হয়ে পড়ল। শুধু তা-ই নয়, ভবিষ্যতে বিশ্বব্যাংকসহ অন্যান্য উন্নয়ন সহযোগীর কাছ থেকে আর্থিক সহায়তা পাওয়াও সরকারের জন্য বেশ কষ্টকর হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

দেশের বিশিষ্টজনরা বলতেছে দেশের ভাবমূর্তি আজ বিশ্বের দরবারে দুর্নীতির অভয় আরণ্য দেশ হিসাবে পরিণত হচ্ছে আমাদের প্রিয় জন্মভূমি এই বাংলাদে।
আর আমাদের প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আবুল মাল বলছে এখানে কোন দুর্নীতি হয় নাই!!!!!!!

বাংলাদেশের একজন সচেতন নাগরিক হিসাবে আমার খুবই লজ্জা হচ্ছে, তাদের এইসব মিথ্যাচার ও জনগণকে ধোকা দেয়ার মানসিকতাকে,

প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা দূর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত মন্ত্রীদেরকে পুরস্কার দিচ্ছে, দফতর বিহীন মন্ত্রী করে।

আর দুদুক আছে তো দূর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত লোকদেরকে দূর্নীতি না করার সার্টিফিকেট দিতে।

বাংলাদেশের ইতিহাসে এত অপদার্থ মন্ত্রী পরিষদ মনে হয় আর হয় নাই,

যারা দৌড় প্রতিযোগতিায় ফাষ্ট হয় তাদেরকে বানানো হয় যোগাযোগমন্ত্রী!!!

আর যারা যখন তখন মিডিয়ার সামনে আবোল তাবল বকেন তাদেকে বানানো হয় রেল মন্ত্রী, আইন প্রতিমন্ত্রী, সরাষ্ট মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী,

এ্টাই তাদের আসল যোগ্যতা?????????

হায়রে দেশ !!!! এই লজ্জা রাখি কোথায়??????