ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

 

আজকে প্রথম আলোর প্রথম পৃষ্ঠায় ছাপা হয়েছে হুমায়ুন আহমেদের ছোট একটি প্রতিবাদলিপি। বাংলার কিংবদন্তী এই লেখককে নতুন করে কারো কাছে পরিচয় করিয়ে দিতে হয়না। আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা সবার কাছে সমান জনপ্রিয় এই লেখক, সম্প্রতি রাষ্ট্রপতি কর্তৃক ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত আসামীকে মওকুফের প্রতিবাদ স্বরূপ, তার জনপ্রিয় একটি বই নন্দিত নরকের মন্টুর চরিত্র তুলে ধরে বইটি আবার নতুন করে লিখতে চেয়েছেন। এটি জাতির পক্ষ থেকে সরকারী কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে চরম প্রতিবাদ। জনাব হুমায়ুন আহমেদ, সাধারণ জনগণের পক্ষে লড়াইয়ে সামিল হওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ দিতে গেলেও খাটো করা হবে। আপনাকে উষ্ণ অভিনন্দন।

আজ মনে হচ্ছে হুমায়ুন আহমেদের মতো সকল ইতিহাসবিদগণকেও সকল ইতিহাস আবার নতুন করে লিখতে হবে। মহামান্য রাষ্ট্রপতি আপনি এ লজ্জা লুকাবেন কোথায়। যদিও সুরঞ্জিত বাবু আপনাকে মেরুদণ্ডহীন পদে আসীন করে বাঁচিয়ে দিয়েছেন। তথাপি জানতে ইচ্ছা হয়- আপনার বিবেক লজ্জা পেয়েছে কিনা? আপনি একজন বর্ষিয়ান, প্রগতিশীল রাজনীতিবিদ। লীগের বিপর্যয়ের সময় আপনার সাহসী ভুমিকা আপনাকে জাতীয় নেতার আসনে বসিয়েছিল। সেই আপনার হাতে এমন কলঙ্কিত একটি দলিল লেখা হল, এটা জাতি মেনে নেবে কিভাবে?

এভাবে সকল লেখক, গণমাধ্যম যদি আপনার বিরুদ্ধে ধিক্কার জানাতে থাকে তাহলে কি আপনার ঐ পদে থাকা মানায়? নাকি সরকার সত্যি সত্যি আপনার মেরুদণ্ডকে ভেঙ্গে দিয়েই এই পদে বসিয়েছেন?