ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

এক রাশ থু থু তোর মুখে!

সুপ্রিয় পাঠক, পাঠিকা, ব্লগার, ভাল আছেন তো সবাই? আমি খুব একটা ভাল নেই। তারপর ও লিখছি। একটা পুরাতন বদ অভ্যাস রয়েছে আমার। আমি বরাবর একটু পুরাতন কিছু খোঁজার চেষ্টা করি। ধরুন বহু পুরাতন গান, মুভি, পত্রিকার নিউজ ইত্যাদি। ভাল লাগে পেছনে ফিরে যেতে। মনে মনে নস্টালজিক হয়ে যাই। তাই মনের অজান্তে মাঝে মাঝে নিজেই বলে উঠি “পুরানো সেই দিনের কথা বলবি কিরে আয়”
যাই হোক আজ আমি বলছি বাংলাদেশের একটি রাজনৈতিক দল “জামাত” এর শিক্ষা ব্যাবস্থা নিয়ে তাদের ভাষ্য কী, আর তারা করে কী?

জুতা পেটা কর ওকে!

ব্লগার ভাই বোনেরা,এবং অতিথি বৃন্দ।এই মুহূর্তে পৃথিবী ব্যাপী টিভি মিডিয়াতে যত গুলী “ রিয়েলিটি শো” প্রচারিত হচ্ছে, বা হয়ে গেসে, তার মধ্যে সব চাইতে জন প্রিয় অনুষ্ঠান “ WHO WANTS TO BE A MILLIONAIRE” এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এর একটি টিভি শো। এর জনপ্রিয়তা দেখে ভারত কপি রাইট নিয়ে তারা ও একসময় বানিয়েছিল “Kaun Banega Crorepati –আর সম্প্রতি আমাদের দেশের টি ভি চ্যানেল “দেশ”টি ভি কপি রাইট নিয়ে শুরু করে দিয়েসেন “ কে হতে চায় কোটি পতি” যাই হোক আপনারা ভাবসেন লিখবো জামাতের শিক্ষা ব্যাবস্থা সম্পর্কে। তার সাথে কে হতে চায় কোটিপতির সম্পর্কটা আবার কি? লেখককে বোধ হয় ভাইরাসে ধরেছে, এনটি ভাইরাস মারতে হবে, নইলে সরাসরি পাবনায়। যাই হোক জনাব, আমাকে যেই ভাইরাসে ধরুক না কেন আমার লেখটি পড়তে হলে আমার একটি প্রশ্নের জবাব দিতে হবে।তবে ই না জানতে পারবেন। কে হতে চায় কোটি পতি অনুষ্ঠানে যেমন “হট সিটে” বসতে হয়, তেমনি আপনাকেও বসতে হবে হট সিটে। সঞ্চালক হিসাবে আনিছুল হক এর পরিবর্তে আমি অর্বাচীন মোসাদ্দিক উজ্জ্বল!

আপনারা আমার একটি প্রশ্নের জবাব দিন।আমি প্রশ্ন করছি, চার টি উত্তর দিচ্ছি। আপনারা তার মধ্যে থেকে একটি উত্তর এর জবাব দিয়ে পেয়ে যান, “ জামাতের শিক্ষা” ব্যবস্থা নিয়ে ভণ্ডামির চাল চিত্র”
তো রেডি?

শকুনের মত লোলুপ দৃষ্টি!

প্রশ্নঃ বলতে পারেন নিচের এই কথাটি বলেছে কোন মহাপুরুষ? –

“আমি আমার ছেলেদের মাদ্রাসায় দেইনি এজন্য যে আমি তাদের যোগ্য বানাতে চাই”

উত্তর (বেছে নিন একজন মহাপুরুষকে):

ক) রাজাকার সাকাচৌ
খ) লুটেরা নিজামি
গ) নরঘাতক গোলাম আযম
ঘ) ধর্ম ব্যবসায়ী সাঈদী

আগের থেকে যদি না জানা থাকে কার সাহসী বানী এটি তবে জানার পর আপনার জন্য হয়তো বিস্ময় অপেক্ষা করছে।

জ্বি, পাঠক এই চমক লাগানো কথাটি বলেছিল গোলাম আযম, জামাতের কুখ্যাত প্রাক্তন প্রধান, সাপ্তাহিক ২০০০ এর সাথে এক সাক্ষাৎকারে।

সাপ্তাহিক ২০০০ এ হাসান নিটোলের একটা প্রচ্ছদ প্রতিবেদন বের হয়েছিল ২০০৮ সালে। আজকের পোস্টের উৎস সেই প্রতিবেদন।
নিটোল তার রিপোর্টে (জামায়াত নেতাদের ছেলেমেয়েরা পড়ে স্কুল কলেজ বিদেশে ) অত্যন্ত চমৎকার ভাবে তুলে ধরেছেন শিক্ষাব্যবস্থার ক্ষেত্রে জামাত নেতাদের ভন্ডামি।

জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ সব সময়ই দাবী করে তাদের মূল লক্ষ্য হলো ইসলামী শাসন ব্যবস্থা কায়েম করা। ইসলামী শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা কিরূপ হওয়া উচিত সেই বিষয়ে তাদের অবস্থান সুস্পষ্ট। এ দেশে প্রচলিত শিক্ষা পদ্ধতি যেটি তাদের ভাষায় আধুনিক শিক্ষা, এই আধুনিক শিক্ষা পদ্ধতির বিরুদ্ধে তাদের অবস্থান।…

গোলাম আযম ‘শিক্ষাব্যবস্থায় ইসলামী রূপরেখা’ পুস্তিকার ৭ নম্বর পৃষ্ঠায় উল্লেখ করেছেন, ‘ইংরেজ প্রবর্তিত আধুনিক শিক্ষাই যদি আদর্শ শিক্ষা বলে প্রচারিত হয় তাহলে এ শিক্ষার ফল দেখে কোনো ইসলামপন্থী লোকই সন্তুষ্টচিত্তে এ ধরনের শিক্ষাকে সমর্থন করতে পারে না।’ ১২ নম্বর পৃষ্ঠায় তিনি উল্লেখ করেছেন, ‘পাশ্চাত্য মতাদর্শে বিশ্বাসীরা মানুষকে অন্যান্য পশুর ন্যায় গড়ে তুলবার উপযোগী শিক্ষাপদ্ধতির প্রচলন করেছেন। এ শিক্ষা দ্বারা মনুষ্যত্বের বিকাশ অসম্ভব।’ এই বইয়ের ২১ নম্বর পৃষ্ঠায় উল্লেখ রয়েছে, ‘আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহের গোটা পরিবেশ একেবারেই ইসলামবিরোধী।’

ভালো কথা, কিন্তু জামাতের মূল নেতাদের সন্তানরা কোথায় পড়াশোনা করছে/ করেছে? নিশ্চয়ই মাদ্রাসা-মক্তবে? অনুসন্ধান করে পাওয়া গেল এর উল্টো চিত্র। কিন্তু কেন ইসলামী শিক্ষা ব্যবস্থার কথা বলে নিজেদের ছেলেমেয়েদের আধুনিক শিক্ষা ব্যবস্থায় পড়াচ্ছেন – এই ব্যাখ্যা গোলাম আযমের কাছে চাইতে গেলে সেই ভণ্ড নির্লজ্জ ভাবে যা বলে তা পোস্টের শুরুতেই দেয়া হয়েছে।

নিটোল গোলাম আযম সহ জামাতের প্রায় সব প্রধান নেতার ছেলেমেয়ের পড়াশোনার তথ্য জানিয়েছেন আমাদের। শুধু নিজামী কাট মারতে পেরেছে, মানে ধরা খাবার ভয়ে কোন তথ্যই দেয় নাই। যাই হোক, পাঠক চলুন দেখি আমাদের তথাকথিত সৎ লোকেরা মাদ্রাসা শিক্ষার পক্ষে সওয়াল জবাব করলেও নিজেদের বেলায় কি ব্যবস্থা করেছেন। (একটি ক্ষেত্র ছাড়া সব তথ্য ২০০৮ এর।)

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
গোলাম আযম (৬ ছেলে)
সাবেক আমীর, জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ

১. আব্দুল্লাহহিল মামুন আল আযমী : খিলগাঁও গভর্নমেন্ট স্কুল থেকে
এসএসসি, ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি। ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টার
থেকে অর্থনীতিতে এমএ।

২. আব্দুল্লাহ হিল আমিন আল আযমী : খিলগাঁও গর্ভমেন্ট স্কুল
থেকে এসএসসি, ঢাকা কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় বাংলাদেশ
স্বাধীন হলে দেশত্যাগ এবং লন্ডনে নিটিং ফ্যাক্টরিতে কাজ শুরু করেন।

৩. আব্দুল্লাহ হিল মোমেন আল আযমী : সিদ্ধেশ্বরী স্কুল থেকে এসএসসি, হাবিবুল্লাহ বাহার কলেজ থেকে এইচএসসি। একই কলেজ থেকে বিকম পাস করেছেন।

৪. আব্দুল্লাহ হিল আমান আল আযমী : আমান আযমী ১৯৭৫ সালে সিলেট সরকারি অগ্রগামী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে দ্বিতীয় বিভাগে এসএসসি, ঢাকা সেন্ট্রাল কলেজ থেকে তৃতীয় বিভাগে এইচএসসি পাস। এরপর ১৯৮০ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগ দেন (সবার জন্য নির্ধারিত তারিখের একমাস পর তিনি মিলিটারি একাডেমীতে যোগদান করেন)। দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণী পাওয়া একজন অতি সাধারণ ছাত্র জিয়ার সময় সেনাবাহিনীতে কিভাবে কমিশন পেলেন সে প্রশ্ন অনেকেরই। ২০০৯ সালে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল পদে কর্মরত অবস্থায় বরখাস্ত।

৫. আব্দুল্লাহ হিল নোমান আল আযমী : ঢাকা গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি স্কুল থেকে এসএসসি, ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি। এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ব্যবস্থাপনায় অনার্স ও মাস্টার্স করেছেন।

৬. আব্দুল্লাহ হিল সালমান আল আযমী : মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল থেকে এসএসসি, এইচএসসি ঢাকা কলেজ থেকে, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজিতে অর্নাসে ভর্তি হয়েছিলেন কিন্তু শেষ করতে পারেননি। এরপর আলীগড় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স এবং মার্স্টাস করেন।

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~

আলী আহসান মুজাহিদ (৩ ছেলে ১ মেয়ে)
সেক্রেটারি জেনারেল, জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ

১. আলী আহমেদ : আদমজী ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও
কলেজ থেকে এসএসসি এবং এইচএসসি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
থেকে কম্পিউটার সায়েন্সে অর্নাস। এরপর অস্ট্রেলিয়ার সিডনি
ইউনিভার্সিটিতে উচ্চতর ডিগ্রি নিয়েছেন।

২. আহমেদ আহকিক : মগবাজার আইএস স্কুল কলেজ
থেকে এসএসসি, এইচএসসি করেছেন ঢাকা কলেজ থেকে, ঢাকা
বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্ন্তজাতিক সম্পর্ক বিভাগ থেকে অর্নাস করেছেন।

৩. আহমেদ মাবরুর : আইএস স্কুল থেকে এসএসসি, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজিতে অর্নাস, আল মানারাত ইউনিভার্সিটি থেকে ইংরেজিতে মাস্টার্স।

৪.তামরিনা : ভিকারুননিসা স্কুল ও কলেজ থেকে এসএসসি এবং এইচএসসি, আল মানারাত ইউনিভার্সিটিতে ইংলিশে অনার্স।

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~

আব্দুল কাদের মোল্লা (৪ মেয়ে, ২ ছেলে)
সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল, জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ

১. আমাতুল্লাহ পারভীন : ইস্পাহানী গার্লস স্কুল ও কলেজ থেকে এসএসসি ও এইসএসসি, ইডেন কলেজ থেকে অর্নাস ও মাস্টার্স করেছেন।

২. হাসান জামিল : বাদশাহ ফয়সাল স্কুল থেকে এসএসসি, তেজগাঁও
কলেজ থেকে এইচএসসি, ইসলামিক ইউনিভার্সিটি থেকে এমবিএ।

৩. আমাতুল্লাহ সায়মিন : এসএসসি ও এইচএসসি ইস্পাহানী স্কুল ও কলেজ থেকে, অনার্স করেছেন হোম ইকোনমিক্স কলেজ থেকে, বর্তমানে একই কলেজে ফুড অ্যান্ড নিউট্রেশন বিষয়ে মাস্টার্সে অধ্যয়নরত।

৪. হাসান মওদুদ: রাইফেলস পাবলিক স্কুল ও কলেজ থেকে এসএসসি এবং এইচএসসি, ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটি, মালয়েশিয়াতে অধ্যয়নরত।

৫. আফতুল্লাহ লারদীন : ইস্পাহানী গার্লস স্কুল ও কলেজ থেকে এসএসসি ও এইচএসসি। এখনো বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হননি।

৬. আমাতুল্লাহ নাজনীন : ইস্পাহানী গার্লস স্কুল ও কলেজে অধ্যয়নরত।

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~

মুহাম্মদ কামারুজ্জামান
(৫ ছেলে, ১ মেয়ে)
সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল, জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ

১. হাসান ইকবাল ওয়ামী : এসএসসি ও এইচএসসি ন্যাশনাল ব্যাংক স্কুল ও কলেজ থেকে। ইসলামি ইউনিভার্সিটি থেকে মিডিয়া এন্ড ম্যাস কমিনিকেশনে অনার্স করেছেন, এখন মাস্টার্স এ অধ্যয়নরত। সামহোয়ারইনের ব্লগার।

২. হাসান ইকরাম : এসএসসি ও এইচএসসি ন্যাশনাল ব্যাংক স্কুল ও কলেজ থেকে, অনার্সে ভর্তির অপেক্ষায়।

৩. হাসান জামান : এসএসসি ও এইসএসসি ন্যাশনাল ব্যাংক স্কুল থেকে, অনার্স ফাইনাল ইয়ারে পড়ছেন মাল্টিমিডিয়া ইউনিভার্সিটিতে।

৪. হাসান ইমাম : এসএসসি ও এইচএসসি ন্যাশনাল ব্যাংক স্কুল থেকে,
ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটিতে বিবিএ অধ্যয়নরত।

৫. আহম্মদ হাসান জামান : ও লেভেল পরীক্ষা দেবেন একাডেমিয়া ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল থেকে।

৬. আতিয়া : মিরপুর লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলে কেজি ক্লাসে পড়ছে।
~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~

শাহজাহান চৌধুরী (২ মেয়ে)
সাবেক সংসদ সদস্য, জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ

১. তানজিলা আক্তার চৌধুরী : চট্টগ্রাম পাথরঘাটা গার্লস হাইস্কুল থেকে এসএসসি, চট্টগ্রাম কলেজ থেকে এইচএসসি এবং একই কলেজে অনার্স ফাইনাল ইয়ারে পড়ছেন।

২. শেরিফা আক্তার চৌধুরী : চট্টগ্রাম পাথরঘাটা গার্লস হাইস্কুল থেকে এসএসসি, চট্টগ্রাম কলেজ থেকে এইচএসসি এবং একই কলেজে অনার্স ফার্স্ট ইয়ারে পড়ছেন।
~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~

মীর কাসেম আলী (২ ছেলে, ৩ মেয়ে)
সদস্য, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটি, জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ

স্ত্রী খন্দকার আয়েশা খাতুন

১. মোহাম্মদ বিন কাসেম (সালমান) : আল মানারাত ইংরেজি মিডিয়াম থেকে এ লেভেল এবং ও লেভেল করেছেন। এরপর পাকিস্তান ডেন্টাল কলেজে পড়েছেন।

২. মীর আহমেদ বিন কাসেম (আরমান) : আল মানারাত থেকে এ লেভেল এবং ও লেভেল। এরপর লন্ডনে বার এট ল সম্পন্ন করেছেন।

৩. হাসিনা তাইয়্যেবা : অনার্স এবং মাস্টার্স করেছেন হোম ইকোনোমিক্স কলেজ থেকে।

৪. সুমাইয়া রাবেয়া: আল মানারাতে স্কুল ও কলেজ থেকে এ লেভেল এবং ও লেভেল সম্পন্ন করার পর আল মানারাত ইউনিভার্সিটিতে বিবিএ পড়ছেন ।

৫. তাহেরা হাসনিন : আল মানারাতে এ লেভেলে পড়ছেন।

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~

কওমী মাদ্রাসার ডিগ্রীধারীদের স্বীকৃতি এনে দিয়েছে ইসলামী
ঐক্যজোট। কিন্তু ঐক্যজোট নেতাদের সন্তানরা কী পড়ছে কওমী
মাদ্রাসায়? এ রকম একজন… মাওলানা মুহিউদ্দিন খান
(৩ ছেলে, ২ মেয়ে)

সহসভাপতি, ইসলামী ঐক্যজোট এবং সম্পাদক, মাসিক মদীনা

১. রাবেয়া পারভিন : গেন্ডারিয়া মনিজা রহমান গার্লস হাইস্কুল থেকে
এসএসসি, নারায়ণগঞ্জ সরকারি মহিলা ডিগ্রি কলেজ থেকে
এইচএসসি।

২. মোস্তফা মঈন উদ্দিন খান : গেন্ডারিয়া হাইস্কুল থেকে
এসএসসি পরীক্ষা দিলেও পাস করেন নাই।

৩. মোর্তোজা বশিরউদ্দিন খান : কোরআনে হাফেজ হয়েছেন
চাঁদপুর শাহতলী মাদ্রাসা থেকে। এরপর করাচি নিউটাউন মাদ্রাসায়
ভর্তি হয়েছিলেন।

৪. আহমদ বদরউদ্দিন খান : আলিয়া মাদ্রাসা থেকে দাখিল
পাশ করেছেন, মক্কা ইউনিভার্সিটিতে ইসলামী ইকোনমিতে অনার্স
করেছেন।

৫. ইয়াসমিন : গেন্ডারিয়া মনিজা রহমান হাইস্কুল থেকে
এসএসসি পাস করেছেন
~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~

এবার আপনারা কিছু বলবেন?