ক্যাটেগরিঃ ব্লগালোচনা

দিয়েছো আমায় তুমি অসীম সাহস
মন্দের সাথে তাই করিনি আপোষ।

না, আপোষ করিনি, করবো না কোন দিন। আপোষ আমি করতে জানিনা। আপোসহীন আমি। আমি বীর নই তবে এও ঠিক খরগোশও নই। তবে আমাদের এই বিডি ব্লগে অনেকেই আছেন খরগোশ প্রান! কেঁপে যায়। অসুরকে বধ করবার জন্য মা দুর্গার যেই আবির্ভাব সেই সময় অনেক হনুমান অসুরকে বধ করতে এসেও ফিরে যায় প্রান ভয়ে। এই বিডি ব্লগের অনেক ব্লগার যারা স্বাধীনতার চেতনায় বিশ্বাসী। যারা নিজেদের মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তান মনে করে, (সন্তান না হয়েও সন্তান হওয়া যায়) যারা মুখে স্বাধীনতা শক্তি, স্বাধীনতা শক্তি, স্বাধীনতা শক্তি, আর স্বাধীনতা শক্তি, বলতে বলতে মুখে ফেনা তুলে দেয় সেই সব ব্লগারদের আমার মতন ছোট্ট এক নেকড়ের লাল ছালাম!

কোন কমার্শিয়াল উদ্দেশ্য নিয়ে, কোন দলের নগ্ন এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য, আমি এই ব্লগে আসিনি। শেখ হাসিনা- খালেদা জিয়া- এরশাদ আমাকে কোন মাসোয়ারা দেয় না যে আমি তাদের চামচামি করবো। নিজের ঢোল নিজের পেটানোর ও দরকার নেই। আমি কে আমি জানি। ব্লগে লিখে নিজের নামের সু-বিচার ও করার দরকার নেই। যারা ব্লগে লিখে নিজের একটি লেখক আইডি আর সেই সাথে সমাজের এলিট শ্রেণী সাজতে চায়, কিংবা কোন অন লাইন মিডিয়াতে লিখে মুই কি হনু এই বেশ ধরতে চায় আমার তেমন হনু সাজবারও দরকার নেই। এই দেশের অনেক প্রাইভেট টিভি চ্যানেল গুলিতে মোসাদ্দিক উজ্জ্বল এর নাম বললে অনেকেই চেনে। প্রথম আলোর মিডিয়া ব্যবস্থাপক কবির বকুল চিনে। চ্যানেল আই এর সাগর স্যার চেনে। বাংলাভিশনের প্রোগ্রাম ম্যানেজার শামিম শাহেদ চিনে, এ টি এন বাংলার নওয়াজিশ আলী স্যার চেনে। মাছরাঙ্গা প্রডাকশনের ( এম টিভি) যেটি অন এয়ারে আসবে অল্পদিনে সেই চেয়ারম্যান অঞ্জন চৌধুরী পিন্টু স্যার চেনে। যমুনা টি ভির প্রোগ্রাম ডিরেক্টর সুপন রায় চেনে। কাজেই এই অন লাইন মিডিয়াতে লিখবার জন্য আমার মনের খায়েশ অনেক আগেই পুরন করে ফেলেছি।

এই ব্লগে নিউজ পড়তে পড়তে এক সময় নিবন্ধিত হয়ে যাই। তারপর নিজের পূর্বের অভ্যাস কিছু ছিল ( লেখা লেখি করা) সেই অভ্যাসটা আবারো মাথা চড়া দিয়ে ওঠে। তাই লিখতে থাকি। একজন মুক্তি যোদ্ধার সন্তান হিসাবে নিজেকে গর্ববোধ করি/ রাষ্ট্র সুবিধা দেওয়া সত্ত্বেও সেই সুবিধা আমার বাবা কোন দিন ভোগ করেনি। সন্তান হিসাবে কোঠায় চাকরীর সুযোগ থাকলেও আমি সেই সুযোগ নেইনি। আমার ভাই আর বোন ও সেই সুযোগ নেয়নি। মুক্তি যুদ্ধ করেছে আমার বাবা। আমরা না। গর্ব এত টুকুন আমি আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। রাষ্ট্র আমাদের সুবিধা দিতে কে? আমাদের যোগ্যতা কি নেই? সামান্য আছে বলেই তো ৩০ বছর বয়সে একটি বহুজাতিক কোম্পানির হিসাব ব্যবস্থাপক হয়ে কাজ করছি।

ফিরে আসি আলোচনায়। এই ব্লগ শুরু থেকে স্বাধীনতা স্বপক্ষ শক্তির দখলে। ঐ সব একাত্তরের ঘাতক দালাল আর তাদের সন্তানরা এই ব্লগে শুরু থেকে ছিল। আছে আগামীতে থাকবে। আমার দুই চোখের বিশ ঐ সব দালালরা যারা কেবল নির্দিষ্ট কোন দলকে নিয়ে লিখতে এসেছে। যারা ঐ গোষ্ঠীর পারপাস সার্ভ করে। আর ঐ সব তথাকথিত দালালদের ঘৃণা করেই কিছু ব্লগার নিরবতা প্রকাশ করে। অর্থাৎ তারা মহাত্মা গান্ধী নীতি অবলম্বন করে। ভাব দেখায় তারা রাজাকার দের যম! এই ব্লগে রাজাকার এর ঠাই দিতে নারাজ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তারা পিছু হটে। কারন যদি বাপ আর মা তুলে গাল খাওয়া লাগে! এই গুলা রাজাকারের চাইতে ও ভয়ংকর!

সম্প্রতি এই বিডি ব্লগ ছেড়ে চলে গেছেন অনেক ব্লগার। কেউ নন্দিত আবার কেউ নিন্দিত! নাহুয়াল মিথ ( বাঘের বাচ্চা) যেই কথা সেই কাজ। লিখবেন না তো লিখবেন না। কথা এক, কাজ অভিন্ন। আবারো ফিরে আসি। কতিপয় মউদুদির প্রেতাত্মা এই ব্লগে ঢুকে গেছে। জীবনের যত গালি সবই এই ব্লগে এসে দিয়েছি। আজ ও এমন টি হয়েছে। আমি যে হারতে জানিনা। তাই লড়েছি একাই। কিন্তু ঐ সব মুক্তি যুদ্ধ চেতনা বাহিনী আজ মুখে কুলুপ এঁটেছে! আমি একটি লেখায় ও বলেছি বিড়ালের গলায় ঘণ্টা আমি বাধবো। আপনারা পাশে থাকেন।

আজ এক মউদুদির জারজ সন্তান এই ব্লগে ঢুকেছে। অনেক ব্লগার বুঝে উঠতে পারেনি। কারন অনেকে এই বেওয়ারিশটাকে চেনে না। ঐ বেওয়ারিশের লেখা নিয়ে আমি কোন কমেন্ট করিনি। শুধু যেটি করেছি সেটি হোল ঐ জারজটাকে অঙ্কুরে বিনষ্ট করা। আমি কিছুদিন আগে প্রথম আলো ব্লগে নিবন্ধিত হই। কিন্তু ঐ খানের নোংরামি এত বেশি যে লিখতে সাধ জাগে না। প্রথম দিকের বিডি তে লেখা কিছু পুরাতন পোস্ট ঐ ব্লগে রিপোস্ট করি। কিন্তু ঐ ব্লগে যেটি দেখলাম চরম সীমা লংঘন করা হয়। অশ্লীলতায় ভরপুর। ঐ খানে ঐ মউদুদির কুত্তা গুলি অনেক বেশি। রীতিমত গ্রুপিং!

নিবন্ধন করতেই আমার বন্ধু ব্লগার সত্যভাষী, আমিন আহমেদ আমাকে বার্তা পাঠায়। গোপনীয় ঐ বার্তা যেটি আমি ছাড়া আর কেউ দেখতে পারবেনা সেটি পড়ে জানতে পারি অনেক কিছু। এই ফিদেল বিডি সম্পর্কে আমি জানি। বিভিন্ন ব্লগার আমার কাছে বার্তা পাঠায়। অথচ অনেকেই আমাকে চেনে না বা আমি তাদের চিনি না। কিন্তু আমার একটি লেখায় তারা বুঝে গেছে যে আমি কি বলতে চাই? তাই ব্লগে আমার কাছে অনেক বার্তা আসতে থাকে। আর আমি তার যথাসাধ্য উত্তর দিতে থাকি। ঐ ব্লগে কতিপয় হারামির জাত যারা কেবল নির্দিষ্ট ইস্যু আর শেখ হাসিনাকে ঠ্যাঙ্গানি দেবার জন্য আছে। কিন্তু ঐ খানেও খরগোশ মার্কা বীরের অভাব নেই। এই ফিদেল বিডির আজগুবি আর নষ্ট লেখায় যখন আমি কমেন্ট করতে থাকি তখন অনেকে আমার কাছে বার্তা পাঠায় উজ্জ্বল ভাই আপনি ওর ব্লগে ঢুকবেন না। কেন? যদি আপনাকে অপমান করে! আরে আমার তো মান ই নাই, অপমান করবে কি ভাবে? মুখে কুলুপ মেরে ঐ খরগোশ বীরেরা প্রতিবাদ করে অন্নের ব্লগে! ফিদেল বিডি র ব্লগে ঢোকে না! বাবা কি বীর এই গুলি।

আজ যখন দেখলাম এই ফিদেল বিডি ব্লগে নিবন্ধিত হয়েই শুরু করে দিয়েছে খ্যামটা নাচ তখন আর নিজেকে ধরে রাখতে পারলাম না। এই শয়তান পরিচ্ছন্ন এই বিডি ব্লগকে নাপাক বানাবে। যেমন টি বানিয়েছিল একাত্তরে নিজামি গং। ধর্ষণ করে অজু করে ওই ফরমানগুলো সেইদিন আবার নামাজ ও পড়েছিল। এই নাপাকি কুলাঙ্গার এর লেখায় কাউকে দেখলাম না। সবাই গান্ধী জী হয়ে গেছেন!

আমিন আহমেদ সত্যের সৈনিক,ইনি একজন মুক্তিযুদ্ধ চেতনায় বিশ্বাসী! আর এই আমিন ভাই এর আজকের আপোষ আমায় ব্যথিত করেছে। এই আমিন ভাই যে কিনা আমায় প্রথম আলোতে ঐ নাপাকি ফিদেল বিডি’র কেচ্ছা শুনিয়েছে, সেই আমিন ভাই এর প্রিয় ব্লগে ঐ ফিদেল ঢুকে গেছে। তিনি একবার ও কোন কমেন্ট করেননি। যদি কাপড়ে দাগ লাগে! এই ভয়ে সেফ সাইডে ব্লগ উইকিতে তিনি লিখেছেন-

প্রিয় পোষক, আজ একজন ব্লগারকে দেখলাম নাম “ফিদেল বিডি”। আমি আসলে প্রথম আলো ব্লগে এ ব্লগারকে দেখেছি। তিনি সেখানে যেসব পোষ্ট দিয়েছেন তা অত্যন্ত কুরুচি পূর্ণ ও নিদিষ্ট একটি অশুভ চক্রের স্বার্থে সে ঐ সকল পোষ্ট গুলো দিয়ে চলছে। জানিনা প্রথম আলো ব্লগ কি করবে তা একান্তই তাদের ব্যাপার। কিন্তু আমরা একান্তই এ ব্লগকে পরিছন্ন রাখার জন্য এ জাতীয় ব্লগারকে ব্যান করা বা রেজিষ্ট্রেশন না করার জন্য আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষন করছি।

মোসাদ্দিক উজ্জল আমাদের খুব পরিচিত ও প্রথম সারীর ব্লগার । আজ দেখলাম একজন নতুন ব্লগার হিসাবে “ফিদেল বিডি” পুরাতন এই ব্লগার মোসাদ্দিক উজ্জলকে নুন্যতম সম্মান দেখিয়ে কথা বলে নাই। যদিও উজ্জল ভাই যে খুব ভাল বলেছে তা বলবনা। তবে হয়ত উনি বেশী সেন্টিমেন্টাল হয়ে গেছেন।
আমাদের এ ব্লগের আগের ব্লগার হাসান, পুস্পিতা, রফিক এভাবে ৭ জনকে শুধু আজেবাজে পোষ্ট ও কমেন্টস করে ব্লগের পরিবেশ নষ্ট করার কারনে প্রথম আলো ব্লগ ব্যান করেছে। দাবী উঠেছে তাদের আইপি পর্যন্ত ব্যান করার জন্য। এই ফিদেল বিডি সেখানে নতুন। হয়ত যে কোন সময় সেও ব্যান হতে পারেন।
তাই আমার বিশেষ অনুরোধ, ব্লগের পরিবেশ যেন আমার ব্লগ, সামহোয়ারইন ব্লগ, সোনার বাংলাদেশ ব্লগ, বর্নমালা ব্লগের মত জঘন্য না হয়। আর এ জন্য এ জাতীয় নোংরা ব্লগারদের প্রবেস ও তাদের নোংরা ও উস্কানী মুলক পোষ্ট গুলো বন্ধ করে দিয়েই এর ৯০% কন্ট্রোল সম্ভব।
আমার বিশেষ অনুরোধ এই ফিদেল বিডিকে বন্ধ করে দিন। তা না এর হাত ধরে আরোও এক দল আসবে। তখন কিন্তু এর পরিবেশ আর কন্ট্রোল করতে পারবেন না।
আশা করি আমার বিস্তারিত বিবরন ও মন্তব্যটি মনযোগ সহকারে পড়বেন এবং যথাযথ ব্যবস্থা নিবেন।
-ধন্যবাদ।

আবার সেই আমিন ভাই একটু পরে ফিদেলের এক লেখার হুংকারে আবারো লিখছে-

“আমার বিশেষ অনুরোধ এই ফিদেল বিডিকে বন্ধ করে দিন” – লাইনটি আমি বাতিল করে নিলাম।
আর সম্মানিত ব্লগার ফিদেল বিডি আমি দুঃখিত। তবে আপনার কাছে অনুরোধ ব্লগটিতে আমরা একটা সুন্দর শৃঙ্খলার মাধ্যমে থাকতে চাই। তাই যতদুর সম্ভব উদ্ভাবনী বিষয়গুলো নিয়ে ফিরে আসুন। আমরাও কিছু শিখি। আর এসব রাজনৈতিক প্যাচাল ঐ তথাকথিত নেতারা দিন রাত ২৪ ঘন্টা বলে চলেছেন। সকল টিভি, পত্রিকা সহ সকর মিডিয়া সর্বদা তাদের নিয়েই ব্যস্ত । তাই এখানে “সিটিজেন জার্নালিজম” চর্চার মত কিছু দেয়ার চেষ্টা করুন। তাহলে আমরাও শিখব।
আর উজ্জল ভাইকে ভুল বুঝবেন না। আশা করি সামনে ঠিক হয়ে যাবে।
ধন্যবাদ।

কেন এই আপোষ আমিন ভাই?
আর সম্মানিত ব্লগার ফিদেল বিডি আমি দুঃখিত। ( কেন ?)
পাল সেয়ানা হয়না আশি বছরে। ঐ পাল কে কি জ্ঞ্যান দিলেন আমিন ভাই?

আপনার এই আপোষে আমি মর্মাহত! ব্যথিত! ঐ সব জানয়ারের সাথে আপোষ করে নিজেকে কি বানাতে চান আমিন ভাই? ওর কাছ থেকে কি সিটিজেন জার্নালিজম শিখবেন? আরে যদি এটি শিখতে( সিটিজেন জার্নালিজম ) হয় তবে আইরিন সুলতানা আর নাহুয়াল মিথ শিখাবে। ঐ ফিদেল এর কাছে শিখতে চাওয়া মানে কি তার সাথে বন্ধুত্বের আপোষ নয় আমিন ভাই? আপনি একটি লেখাও লিখলেন না ঐ পোস্টে! সত্যভাষী লিখল! তবে তার মাঝে কোন বিদ্রোহ দেখি নাই।

আমি বিডি ব্লগের এই কি বোর্ড ধরব না ৭ দিন কথা দিলাম।

কার উপর আমার কোন রাগ আর অভিমান নাই। আগেই বলেছি মিডিয়াতে লিখতে হবেই এমন মানসিকতা ও আমার জন্য জরুরী নয়। আমি চেয়েছিলাম এই ব্লগ রাজাকার মুক্ত হোক! আপনারা কেউ আমাকে ভুল বুঝবেন না আশা করি। ব্লগের সবাই ভাল থাকুন। আর আগামী ৭ দিন আমার কি বোর্ড বিরতি। আমি আর লিখব না। আপনাদের এই কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদ স্বরূপ আমি ৭ দিন ব্লগে ঢুকবো না! কথা দিলাম।