ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

 

প্রায় ২ মাস ধরে যুগান্তর সহ কয়েকটি পত্রিকা ডেসটিনি নিয়ে যে লেখালেখি করলো ….তার প্রেক্ষিতে আমার কিছু প্রশ্ন……….প্রথম দেখলাম….. ডেসটিনির ৫ পরিচালকের পদত্যাগ ।পরে বিভিন্ন ভাবে যা জানলাম তা ভয়াবহ । আসল খবর হল…. ৫ পরিচালকের পদোন্নতির কারনে তাঁরা পূর্বের পদ ছেঁড়ে দিয়েছেন । আমার প্রশ্ন হল… যিনি নিউজটি করেছেন…তিনি অবশ্যই জানতেন সত্য কি…..
তাহলে তিনি এমনটা করলেন কেন….? তিনি কি সুপরিকল্পিতভাবে প্যানিক সৃষ্টি করতে চেয়েছিলেন । কিন্তু কেন…….গভীরে কি অন্য কোন খেলা । তাহলে কি…… সত্যই মিডিয়া চলেগেল সওদাগরের হাতে।

আমরা যারা এতদিন সরল বিশ্বাসে…………………সত্যের সন্ধানে নির্ভীকদের হাতে বিশ্বাসকে ছেঁড়ে দিয়েছিলাম….তারা কি প্রতারিত হইনি ?

শেষাবধি যা জানা গেল……ডেসটিনির সাথে একটা স্থাপনার মালিকানা নিয়ে দ্বন্দ্বের ফলশ্রুতিতে এস.এ পরিবহনের মালিকের ছেলে ৬ দিন হাজত খেটেছে । এই ছেলে আবার যুগান্তর পত্রিকার মালিক নুরুল ইসলাম বাবুল ও সম্পাদক সালমা ইসলামের জামাই ।সালমা ইসলাম আবার জাতীয় পার্টি মনোনীত….সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি । এস.এ পরিবহনের মালিক আবার নোয়াখালী জেলা জাতীয় পার্টির গুরুত্বপূর্ণ পদে আসীন।

খবর আরো আছে…….বর্তমান বাণিজ্য মন্ত্রী আবার জাতীয় পার্টির । সাংবাদিকতার নামে হলুদ সাংবাদিকতা এবং সওদাগরী খেলাকে চলুন আমরা চরম ঘৃণা জানাই…………………………….