ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

মিথ্যার প্রলেপে সত্য ঢাকা পড়েনা।সত্য সর্বদা সত্যই থাকে। প্রয়াত রাষ্ট্র্রপ্রধান জিয়াউর রহমানের রাজনীতি নিয়ে বিতর্ক থাকতে পারে। তবে তিনি যে একজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা, তথা একজন দেশপ্রেমিক ছিলেন সে ব্যাপারে সামান্যতম সন্দেহ থাকতে পারেনা।তিনি অসীম সাহসিকতার সঙ্গে রণাঙ্গনে অস্ত্র হাতে যুদ্ধ পরিচালনা করেছিলেন এটাই সত্য এবং তাঁর অবদান জনগণ স্বীকৃত। সাধারন মানুষের এই বিশ্বাসে ফাটল ধরানোর প্রচেষ্টার অর্থ সত্যকে অস্বীকার করা।একজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাকে অবমূল্যায়ন করাতে কারো সম্মান বৃদ্ধি পায়না। বরং এই প্রচেষ্টায় লিপ্ত ব্যক্তিগণ নিজেদের মর্যাদা নিজেরাই খাটো করে থাকেন।তবে বাস্তব এই যে, রণাঙ্গনে যুদ্ধ না করেও এ দেশে অনেকে মুক্তিযোদ্ধা হয়েছেন। সম্ভবত একজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাকে অবমূল্যায়ন করার অন্তর্নিহিত কারণ এখানেই। জাতির জন্য বড়ই দূর্ভাগ্য যে, দেশ স্বাধীন হওয়ার পর মুক্তিযোদ্ধাদের কোন সঠিক ও পূর্ণাঙ্গ তালিকা তৈরি হয়নি। সংরক্ষণ হয়নি স্বাধীনতা যুদ্ধে নিহত ৩০ লক্ষ মানুষের নাম-ঠিকানা। এ ব্যর্থতা মুক্তিযোদ্ধা ও ৩০ লক্ষ শহীদের আত্মার প্রতি অবজ্ঞা প্রদর্শনের পর্যায়ে পড়ে। আজ মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে যে পরিস্থিতির অবতারণা ঘটছে তা কি আদৌ মুক্তিযোদ্ধাদের মর্যাদা রক্ষার ক্ষেত্রে সহায়ক? এ দেশের রাজনৈতিক নেতা ও রাজনীতির প্রতি সাধারণ মানুষের বিরূপ মনোভাব থাকলেও মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি রয়েছে তাদের গভীর শ্রদ্ধা ও ভালবাসা। জনগণ এই অমূল্য সম্পদটুকু হারাতে চায়না। তারা স্বমহিমায় অক্ষয় থাক,এটাই সকলের কাম্য।