ক্যাটেগরিঃ মতামত-বিশ্লেষণ

বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিরপেক্ষ যাচাই-বাছাই এর মাধ্যমে দেশের অনেক বেকার যুবক-যুবতীদেরকে সরকারি চাকরিতে নিয়োগ প্রদান করে একটি প্রশংসনীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিল। এই নিয়োগ প্রদানের ক্ষেত্রে পূর্ব প্রচলিত কোন অনিয়ম, অব্যবস্থা কিংবা দূর্নীতির প্রভাব ছিলনা। প্রক্রিয়াটি ভবিষ্যতেও চালু থাকবে বলে সাধারণ মানুষ আশা করেছিল, কিন্তু বাস্তবে তা হয়নি। বরং পূর্বের সব রেকর্ড ভঙ্গ করে তথাকথিত অনিয়ম, অব্যবস্থা ও দূর্নীতি পুণরায় নতুন মাত্রায় মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। যার ফলে, কোন সাধারণ পরিবারের বেকার যুবক-যুবতীদের সরকারি চাকরি প্রাপ্তির সম্ভাবনা বর্তমানে প্রায় রুদ্ধ হয়ে গেছে। দেশের সাধারণ মানুষ যারা জমি-জমা ও সেনা-দানা বিক্রি করে তাদের ছেলে-মেয়েদেরক লেখা-পড়া শেখাচ্ছেন, তাদের সন্তানরা চাকরি, তথা নাগরিক অধিকার হতে বঞ্চিত হবে এমনতো হতে পারেনা। দেশের মানুষ এই অভিশাপ হতে মুক্তি চায়, অন্যথায় এ দেশের সাধারণ মানুষের নিকট কখনই সরকার গরীব বান্ধব বলে স্বীকৃতি পাবেনা। তত্ত্বাবধায়ক সরকার যদি স্বল্প সময়ে সব অনিয়ম, অব্যবস্থা ও দূর্নীতি দূর করে সাধারণ মানুষের স্বার্থ নিশ্চিত করতে পারে, তবে একটা নির্বাচিত সরকারের এ ব্যাপারে ব্যর্থতা কেন?