ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

 

মাননীয় অর্থমন্ত্রী শেয়ারবাজার যদি দুষ্টুই হয়, তাহলে ব্যবস্থা নিচ্ছেন না কেন? সোমবার জাতীয় সংসদে সম্পূরক বাজেটের উপর আলোচনায় সময় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত শেয়ারবাজারকে দুষ্টু অভিহিত করেছেন। মাননীয় মন্ত্রী শেয়ারবাজার দুষ্টু হলে আপনি যদি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হন, তাহলে স্বপদে বহাল রয়েছেন কেন?

কিসের ভয়? আমরা জানি আপনি অত্যন্ত একজন সৎ মন্ত্রী। আপনি যদি দুষ্টুদের বের করে শাস্তি দিতে পারেন, তাহলে সবাই আপনাকে স্যালুট দিবেন। কিন্তু ব্যবস্থা না নিয়ে মাঝে মধ্যে লাগামহীন বক্তব্য দিয়ে পুঁজিবাজারকে আরও অস্থির করার নৈতিক দায়িত্ব আপনার নেই, মাননীয় মন্ত্রী। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনাকে বলছি। আপনি আপনার মন্ত্রীদের মুখ সামলান। সামনে নির্বাচন। ইতিমধ্যে আপনার দলের এমপিদের অবস্থান নির্ণয়ের হিসাব কষা শুরু করেছেন। কিন্তু মন্ত্রী মহোদয়রা যদি লাগাম ছাড়া বক্তব্য দিতে থাকেন, তাহলে নির্বাচনের হিসাব কষতে হবে না। জনগণ এর জবাব দেবে।

দেশের অনেক সাধারণ মানুষ পুঁজিবাজারে টাকা খুইয়েছেন। নিজের দোষেই হয় টাকা হারিয়েছেন, কিন্তু আপনার অর্থমন্ত্রী তাদের দিক বিবেচনা না করে দুষ্টুর বাজার বলেই শেষ করে দিলেন।
উল্লেখ্য, এরআগেও বিভিন্ন সময় অর্থমন্ত্রী এমন মন্তব্য করেছেন। এর প্রভাবও পুঁজিবাজারে পড়েছে। এজন্য বিনিয়োগকারীরা স্টক এক্সচেঞ্জের সামনে অর্থমন্ত্রীর পদত্যাগও দাবী করে আসছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সাড়ে তিন বছর শেষ আর মাত্র দেড় বছর হাতে এখনও যদি মন্ত্রী মহোদয়রা এভাবে কথা বলতে থাকেন। তাহলে জনগণ গ্রহণের পরিবর্তে বর্জনই করবে।