ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

মাননীয় সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী আবুল হোসেনের কাছে প্রশ্ন যদি আপনি ‘যদি পদ্মায় দুর্নীতি অবান্তর’ হয় তাহলে কেন পদত্যাগ করেছিলেন? মাননীয় মন্ত্রী আপনি কি জানেন, একজন মন্ত্রীর দুর্নীতির কারণে পুরো জাতিই কলঙ্কিত হয়। আপনি যদি দুর্নীতি না-ই করে থাকেন, তাহলে কেন পদত্যাগ করেছিলেন? সোমবার সকালে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বেরিয়ে আবুল হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, “পদ্মা সেতুর তদন্ত কাজ নিষ্ঠার সঙ্গে চলছে। এর ভেতরে কোনো ধরনের দুর্নীতি ধরা পড়ার আশঙ্কা নেই। যারা দুর্নীতির কথা বলছেন তারা ভুল করছেন।” খবর বিডি নিউজ।

এরআগে, দুর্নীতির অভিযোগেই গত বছর সেপ্টেম্বরে পদ্মা সেতুতে অর্থায়নের চুক্তি স্থগিত করে বিশ্ব ব্যাংক, ২৯০ কোটি ডলারের এ প্রকল্পে যাদের ১২০ কোটি ডলার দেওয়ার কথা ছিল। যদি আপনি দুর্নীতি না করেন, তাহলে বিশ্ব ব্যাংকের মতো একটি আন্তর্জাতিক শক্তিশালী সংস্থা কেন একজন মন্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলবে?

এক প্রশ্নের জবাবে আবুল হোসেন বলেন, সরকারের কোনো ‘নির্দেশ বা চাপে’ নয়, ‘স্বচ্ছ’ তদন্তের স্বার্থে ‘স্বেচ্ছায়’ মন্ত্রী পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। দুর্নীতির অভিযোগ প্রমাণ করতে না পারলে আপনি কি আবারও মন্ত্রীত্ব গ্রহণ করবেন?