ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

ছাত্রলীগের দুই পরে সংঘর্ষে এক শিশু নিহত হয়েছে। খবর বিডি নিউজ। দু’গ্র“পের স্বার্থে সংঘর্ষ হলেও নিরীহ শিশুর কি অপরাধ। অবশ্য বিশ্ব বিদ্যালয় ছাত্রলীগের এমন ঘটনায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ কমিটি বিলুপ্ত করেছে। কিন্তু এলাকাবাসীর প্রশ্ন ময়মনসিংহে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শামসুদ্দিন আল আজাদ ও সাধারণ সম্পাদক রফিকুজ্জামান ইমনের আধিপত্য বিস্তার ও দরপত্র নিয়ে বিবাদের জেরে তিন দিন ধরে উভয় পরে মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এরই ধারাবাহিকতায় আজ শনিবার দুই পরে মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে গুলিবিদ্ হয়ে রাব্বি (১০) নামে একটি শিশু মারা যায়, ছাত্রলীগ তাদের স্বার্থে মারামারি করে আর প্রাণ যায় সাধারণ মানুষের এর দায় নেবে কে? হায়রে ছাত্রলীগ।
আর পুলিশ ভাইদের ধন্যবাদ না দিয়ে পারা যায় না। তারা গোলাগুলির সময় নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেছে। আর কত প্রাণ গেলে বিশ্ব বিদ্যালয়ের টনক লড়বে। কবে টনক লড়বে ছাত্রলীগের।