ক্যাটেগরিঃ স্বাধিকার চেতনা

 

বিচার কার্য মাত্র শুরু হল, শেষ কবে হবে তাহা কে জানে ? কিন্তু বিচার শেষের পূর্বেই যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের রায় প্রস্তুত করে রেখেছেন সরকারের ভিতর ঘাপটি মেরে থাকা কিছু সুবিধাবাদী বুদ্ধি ব্যাবসায়ী। যাহা রটে সময় মতন না ঘটলেও পরে কিছু না কিছু ঘটে। জাতীয় প্রেসক্লাবে মোফাজ্জেল হোসেন চৌধুরী মায়া যিনি আওয়ামী লীগের একজন উঁচুদরের নেতা ,তিনি সাংবাদিকদেরকে বললেন এই বছরের মধ্যেই আটক যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসি কার্যকর করা হবে। প্রশ্ন আশা স্বাভাবিক বিচারই শেষ হল না, অথচ ফাঁসির কথা আসে কোথা থেকে? আর যদি রায়টা পূর্বেই নির্ধারন করে থাকেন তবে প্রজাতন্ত্রের টাকা নষ্ট করে বিচারের নাটক করছেন কেন? সরাসরি রায়টা কার্যকর করে ফেললেই হয়, সব আলোচনা সমালোচনা চুকিয়ে গেল।