ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

বর্তমান ক্ষমতাসীন আওয়ামীলিগ সরকারের উচিত হবে দেশবাসীকে স্বাধীনতা যুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস জানতে দেওয়া । এই সময়ও যদি দেশের জনগন প্রকৃত ইতিহাস না জানে তবে পরবর্তী সরকার তাদের দৃষ্টিতে পাকিস্তান পন্থী সুতারাং সেই সময় তো আর জানা যাবে না ।

দেশের সাধারন জনতার পক্ষ থেকে আওয়ামিলীগের বিরুদ্ধে পুরাতন একটা অভিযোগ আছে , যে এই দলটি প্রকৃত গনতন্ত্রী দল নন । তাদের মধ্যে এখনো একদলিয় বাকশালিয় রাজত্বের দর্শন কাজ করছে , যেটা নিয়ে দেশবাসীর মধ্যে সংশয় আছে । ১৯৭২ সালের সংবিধানকে পুর্নবহাল করাতে সেই সন্দেহ এখন আর সন্দেহ নাই , বাস্তবতার একেবারে দ্বারপ্রান্তে প্রায় । আরো একটা কথা বহুদিন থেকে জট বেধে সকলের মনে ঘুর পাক খাচ্ছে , তাহ হলো আমাদের দেশ স্বাধীন হওয়ার আগে কি কোন এজেন্ডা করা ছিল ?

বর্তমান আওয়ামিলিগ সরকার দেশবাসীদেরকে বুঝাতে চাচ্ছেন যে আজকের বাংলাদেশের ভিক্তি হলো বিশুদ্ধ বাংগালি জাতীয়তাবাদ , যার ভিক্তিতে বা যেই এজেন্ডার ভিক্তিতে এই দেশ স্বাধীন করা হয়েছে । কিন্তু দেশের সুশিল সমাজের এবং বুদ্ধিজীবীদের পর্যালোচনায় আমরা দেখতে পাই ভিন্ন চিত্র । আর তা হলো , বাংলাভাষায় যারা কথা বলে তাদের ৪০ ভাগ লোক বাস করে ভারতে আর ৬০ ভাগ লোক বাস করে বাংলাদেশে । ভারতের বাংলাভাষীরা কখনো ভাষার ভিক্তিতে পৃথক রাষ্ট্র গড়তে চাচ্ছেন না ,(মুষ্টিমেয় কিছু লোক ছাড়া) তারা যুক্ত থাকতে চাচ্ছেন ভারতে সাথে । অন্যদিকে বাংলাদেশের বাংলা ভাষা ভাসীরা চাচ্ছেনা ভারতীয় হতে , মুস্টিমেয় কিছু লোক ব্যাতিত । বাংলাদেশীদের বক্তব্য হলো , ৩০ লক্ষ লোকের জীবনের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব কোন কিছুর বিনিময়ে অন্যের হাতে দেওয়ার পক্ষে নয় , প্রয়োজনে আর একটি যুদ্ধ করার দরকার হলেও তাহা করতে প্রস্তুত ।

আমাদেরকে কিন্তু একটু ইতিহাস-ঐতিহ্য উপলব্দি করা একান্ত প্রয়োজন , কারন প্রত্যক জাতির কাছে তাদের নিজস্ব জাতীয়তা বলতে একটা জিনিস থাকে , সেটা যেমন পরিত্যাগ করতে পারবেনা পশ্চিমবংগে বসবাসরত বাংগালিরা ধর্মের ভিক্তিতে , তেমনি পরিত্যাগ করতে পারবেনা বাংলাদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশিরা ধর্মের ভিক্তিতে । তাই দুই বাংলা একীভূত করন এটা যেমন অসম্ভব তেমনি ৩০ লক্ষ শহীদদের সাথে বেঈমানী করার মতন কাজ ।

এদিকে আওয়ামীলিগের অভিযোগ আছে যে , বিএনপি পাকিস্তান ঘেষা দল , বিএনপি তাহা প্রত্যাখ্যান করছে । অন্যদিকে বিএনপির অভিযোগে বলছে , আওয়ামীলিগ হলো একটা ভারতপন্থী দল । এদের হাতে বেশীদিন শাসনক্ষমতা থাকলে এ দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব বিপন্ন হতে বাধ্য।

আমাদের সকল চিন্তা চেতনা যদি শুধু বিএনপি ও আওয়ামীলিগের এই কলহের মধ্যে জড়িয়ে পড়ে , তবে সেটা আমাদের জন্য বড়ই দুর্ভাগ্য । আমাদের অবশ্যই থাকতে হবে একটা সুস্পষ্ট জাতীয় নীতি , তাতে আমরা উন্নতির দিকে যেতে পারবো । অতীত নিয়ে কথা কাটাকাটি করে একটা জাতি শক্তিশালি হতে পারে না , ভাবতে হবে ভবিষ্যতের উন্নতি নিয়ে । আসুন আমরা সকলে অতীতকে দুরে রেখে ভবিষ্যতে আমাদের এই মাতৃভূমি কি ভাবে উন্নতি করতে পারে সেই দিকে সুদৃষ্টি দেয়া।