ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

দশদিন চোরের হলেও গেরোস্তর কিন্তু একদিন হলেও হয় । কথাটা যদিও অনেক পুরাতন উদাহরন ,তথাপিও এটি প্রযোজ্য বেশী আধুনিক চোরদের বেলায় । আগের যুগে চুরি হত রাত্রে , ঘরের সিত কেটে ,গাড়িতে চুরি হতো পকেট কেটে । কোন ক্রমে যদি এই চোরদেরকে ধরতে পারতো ,আচ্ছা রকম মারতো দিতই ,তারপর থানাতে খবর দিয়ে পুলিশের হাতে ধরিয়ে দিত । পুলিশ আবার উপর্যোপরি ধোলাই করে কোর্টে চালান দিত । এটা ছিল মোটামুটি প্রাথমিক সাজার একটা অংশ । এরপর সামাজিক ভাবে তাদেরকে বয়কট করে ঘৃর্নার দৃষ্টিতে দেখতো, উদ্দেশ্য ছিল একটা ,সে যেন এই চুরি-চোট্টামি থেকে ফিরে আসে এবং সমাজের সাধারন লোকদের মতন করে চলাফিরা করে । আগের যুগের চোরদের চুরি করার কারন যদি জানতে চেষ্টা করেন তবে আপনি একেবারে সহজভাবে জানতে পারবেন , এরা সকলে চুরি করতো শুধুমাত্র পেটের দায়ে ,ছেলে-মেয়ের বা মা বাবার মুখে একমুঠো ভাত উঠিয়ে দিতে । তবুও তাদেরকে এত শাস্তি দেওয়া হতো বিভিন্নভাবে ।

আর আজ বিংশ শতাব্দিতে এসে যখন ডিজিটাল যুগ এসেছে তখন চুরি হচ্ছে আধুনিক উপায়ে । পকেট বা সিঁধ কেটে নয় । যারা আমাদের দেশের প্রথম শ্রেনীর কর্মকর্তা ,অনেক উচু লেখাপড়া শিখে ,কেউবা বিদেশ থেকে ডিগ্রি এনে চাকুরী করেন সরকারের বড় অফিসার হয়ে ।

মাঝে মাঝে পত্রিকাতে দেখি অমুক মন্ত্রনালয় এত কোটি টাকার দুর্নীতি হয়েছে ,তার সাথে অমুক সচিব অথবা উপসচিব জড়িত । যেমন গতকাল ১৮ই জুলাই দেখলাম একটা পত্রিকাতে লিখেছে নির্বাচন কমিশনারের কার্যালয়ে দুর্নিতির অভিযোগ পাওয়া গিয়াছে ,কিন্তু সেটাকে পুকুর চুরির সাথে তুলনা করা হয়েছে অর্থাত অনেক বড় প্রকল্পের টাকা আত্মস্বার্থ করেছেন অনেক নামীদামি লোকেরা । আমি ওনাদের নাম কিন্তু লিখলাম না , কারন ওনারা অনেক ভদ্র লোক, উচ্চ শিক্ষিত লোক, পত্রিকাওয়ালারা প্রকাশ করেছেন সেইটাই ওনাদের লজ্জার জন্য যথেষ্ট বলে মনে করি।

আসলে আমি যেটা বলতে চাচ্ছি সেটা হলো এই যে দুর্নিতির অভিযোগ উটলো ,তদন্তে হয়তো বেরিয়ে আসবে আসল সত্য , কিন্তু ওনাদের কি শাস্তি হবে ? জরিমানা করবে? কয়েকমাস জেল খাটবে ? জরিমানা করলে করুক, জেলখাটালে খাটাক , কিন্তু সমাজে কি তাদের প্রভাবের কোন কমতি হবে ? তাদেরকে কি সামাজিক ভাবে কেউ বয়কট করতে পারবে ? কোনটাই সম্ভব হবে না ওনাদের খুটির অনেক জোর আছে, হাজারো অঘটনা বা দুঘটনা ঘটাক না কেন ,তাদের সাথে জড়িয়ে আছে দেশের বিত্তশালী ও শিক্ষিত সমাজের নামিদামি লোকেরা । কেউ ওনাদের দিকে চোখ তুলেও তাকাতে পারবেনা ,পুর্বের ন্যায় স্বাভাবিক জীবন যাপন করেই চলবে তারা ।

আসুন আমরা সকলে প্রতিজ্ঞা করি যে এমন অসত-ও পুকুরচুরির কারনে অভিযুক্তদেরকে বয়কট করি, সামাজিক ভাবে ।