ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

১৯৭১ সালে পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশের জন্ম হয়েছিল শোষণ,জুলুম ও স্বাধিকার পাওয়ার আশায় । দেশ স্বাধীন হয়েছে ৪০ বছর অতিবাহিত হয়েছে । আজ ও কি আমরা স্বাধীন , শোষণ ও জুলুম থেকে কি আমরা নিস্তার পেয়েছি ? তাহলে স্বাধীনতার কি সুফল আমরা পেয়েছি এবং স্বধীনতা আমাদের জন্য কি বয়ে নিয়ে এসেছে । একটা দেশের শাসন ব্যবস্থার মূল ভিত্তি হচ্ছে আইনের শাসন ।স্বাধীনতার পর আমাদের দেশের আইনের শাসন বলতে কিছু ছিল কিনা জানি না । তবে নতুন প্রজন্মের মানুষ হিসাবে আমার প্রশ্ন ১৯৯০ এর গণতান্ত্রিক আন্দোলন পরবর্তি গণতান্ত্রিক (নামধারী) সরকার গুলা কি আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করছেন ?

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ বিভিন্ন কর্মের জন্য বিখ্যাত আর আমরা বিখ্যাত যাবতীয় অনিয়মের জন্য । উন্নত দেশগুলাতে কোথায় ও কোন অনিয়ম ধরা পড়লে সরকার দ্রুত পদক্ষেপ নিয়ে সেসবের সমাধানের পাশাপাশি ভবিষ্যৎ অনিয়মের যাবতীয় পথ রুদ্ধ করে দেয় । আর আমাদের গণতান্ত্রিক সরকার এসবের পক্ষে সাফাই গেয়ে নিজেদের হীনমন্যতাকে বহিঃপ্রকাশ করেন । আগে আমরা ছিলাম পরাধীন তারপর স্বাধীন নাম ধারণ করলাম , এখন গণতান্ত্রিক নাম ধারণ করে বিশ্বের বুকে একটা তামাশার দেশে হয়ে আছি । আগে ছিল পাকি শাসন , তারপর সামরিক শাসন আর এখন গণতান্ত্রিক দলীয় শাসন । আগেও আমারা শোষিত হয়েছি এখন ও হইতেছি । আমাদের দেশে বিভাজন বাড়তেছে , দেশ এখন বড় দুই দলে বিভক্ত হলেও দেশের প্রতিটি এলাকায় আছে আঞ্চলিক বিভক্তি, জেলায় জেলায় বিভক্তি ,উপজেলায় বিভক্তি, ইউনিয়নে বিভক্তি , পাড়ায় পাড়ায় বিভক্তি , গ্রামে বিভক্তি সবশেষে আছে ঘরের ভিতর বিভক্তি ।

তাহলে আমাদের জাতীয় ঐক্য কোথায় । কেউ বিশ্বাস করুক আর না করুক আমাদের ভাষা প্রেম যেমন বক্তিতায় , গানে আর শ্লোগানে একটা তামাশায় পরিণত হয়েছে । ঠিক সেভাবে আমাদের জাতীয় ঐক্য আজকে শূন্যের কোঠায় ।

একসময় জমিদারেরা লাঠিয়াল বাহিনী গঠন করত তাদের জমিদারী পাকাপোক্ত করতে আর এখন আমাদের দেশীয় গণতান্ত্রিক সরকারের আছে বিশাল দলীয় বাহিনী । প্রশাসনে ,পুলিশে ,শিক্ষকতায় আর ছাত্রত্বে কোথায় নাই তারা । দেশে চলছে ২ ধরণের আইনের শাসন ব্যবস্থা । দলীয় হলে এক আইন আর না হলে ভিন্ন আইন । বিচার ব্যবস্থার কথা কি বলব , যে দেশে ঘুষ দিয়ে বিচারের জন্য দরখাস্ত করতে হয় সেখানে কি সুবিচার আশা করা যায় ? দেশের বিবেক হচ্ছে আইন এবং বিচার ব্যবস্থা হচ্ছে বিবেকের প্রয়োগ ক্ষেত্র আর পুলিশ হইতেছে সেই বিবেকের রক্ষক । আর আমাদের বিবেকে তো পচন ধরিয়াছে । যার দুগন্ধে আজ আমরা সবাই নাকে রুমাল দিয়ে ঘুরে বেড়াই , আমাদের চোখের সামনে মানুষ পিটিয়ে মেরে ফেললে, আমরা দেখেও না দেখার ভান করে থাকি ।

তাহলে আমরা কি পাব না আমাদের কাক্ষিত গণতন্ত্র ? নাকি এভাবেই চলবে!! আমি নিরাশার মাঝে বসে আছি কবে আসিবে নজরুল , মুজিব নয়তো জিয়ার মত কোন এক বিপ্লবি মহান দেশ প্রেমিক । যে বিশ্বব্যংকের মত বিদেশী কোন প্রভুর কাছে বিক্রি হবে না , প্রতিবেশি দেশের ভয়ে ভীত হবে না , মৃত্যু যাকে ভয় দেখাবে অথচ ভয় তাকে দেখে ভীত হয়ে সঙ্গা হারাবে।