ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

বাংলার কৃষক

বাংলাদেশ, যার জন্ম মুক্তিযুদ্ধের মত ইতিহাসের মধ্য দিয়ে । তার আছে নিরীহ, বঞ্ছিত, নিপীড়িত জনতা । যারা গণতন্ত্রের স্বপ্নে নিজের তাজা রক্ত দিয়ে এনেছিল স্বাধীনতা । আজ সেই স্বাধীনতা অর্জনের ৪২ বছর পর বাংলার জনতা কি পেয়েছে । তারা কি এর জন্য তাদের জীবন দিয়েছিল ? আমরা কি আমাদের ইতিহাসের সম্মান রাখতে পেরেছি ? আমাদের মুক্তিযোদ্ধাদের মান রাখতে পেরেছি ? আসলে এর জন্য কে বা কারা দায়ী ? কাদের দায়িত্ব ছিল দেশে গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা ? গণতন্ত্রের নামে আজ আমরা কি দেখছি, কি পাচ্ছি ? পেয়েছি স্বাধীন প্রশাসন, বিচার বেবস্থা, রাজনীতি, অর্থনীতি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য আরও কত কি। কিন্তু জনগন তার ছিটা ফোঁটাও পাচ্ছে না । এটা বলার কেও নেই । আছে কত কত সংস্থা, কত মন্ত্রণালয় কিন্তু তার সুফল কতটুকু জনগন পাচ্ছে ? আজ যেখানে বিশ্ব তাদের জ্ঞান, তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে উন্নত থেকে উন্নততর হচ্ছে, সেখানে আমরা আছি সরকার আর বিরোধী দলের টানাপোড়ন নিয়ে । তারা কেও কার কথা শুনে না । শুধু জনগন তাদের কথা শুনে আর ভোগে । জনগনের কাজ একটা । তাদের বেনার নিয়ে তাদের কথা প্রচার করা । কবে আসবে সুস্থ রাজনীতি, যেখানে সরকার আর বিরোধী দলের থাকবে সহ অবস্থান, থাকবে দেশ আর জনগনের উন্নয়নের কার্যক্রম । একটি সুন্দর শিক্ষা বেবস্থা । কৃষি, বাণিজ্য, প্রশাসন, শিল্প, গবেষণা, অর্থনীতি সব কিছুতে থাকবে উন্নয়নের সঠিক, বিজ্ঞানভিত্তিক, আর সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ । থাকবে না দুর্নীতি । এটা কি আমরা কখনো দেখতে পারবো না ? এটা কি একেবারেই অসম্ভব ? এভাবে বাংলার জনগন আর কতদিন গণতন্ত্রের পদতলে পিষ্ট হয়ে রোগে, শোকে জর্জরিত হয়ে, অভাব অনটনে নিরবে দিন কাটাবে অনাগত সুন্দর ভবিষ্যতের প্রতীক্ষায় ?