ক্যাটেগরিঃ ধর্ম বিষয়ক

 

বৈশাখ আসলেই সমস্ত বাঙ্গালীর মনে বিরাজ করে কাল বৈশাখী আনন্দ। ১লা বৈশাখে মানে বাংলা নববর্ষের এই দিনে আয়োজন করা হয় বাঙ্গালীর ঐতিহ্য পুর্ণ অনেক ধরনের খেলাদোলা ও আচার অনুষ্ঠানের। এরই মধ্যে আমরা গত মঙ্গলবারে সারা বাংলায় নববর্ষ উদ্যযাপন করলাম। অনেক উত্সব আমেজে পালিত হলো এবারের নববর্ষ।

 

কিন্তু ফেইছবুক ওয়াটস আপ সহ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম গুলোতে দেখলাম অনেকেই জুরালো ভাবে প্রচার করলেন ১লা বৈশাখের নামে বেহায়াপনা থেকে বিরত থাকুন। টাকা খরছ করে পান্থা ইলিশ না খেয়ে ঐ টাকা গুলো গরিবের মধ্যে বিলিয়ে দিন। আরো অনেক মন্তব্য করা হলো ১লা বৈশাখ পালন না করার পক্ষে।

আমিতো দেখলাম সারা বাংলাদেশ তথা বিদেশেও বিশাল আয়োজনের মধ্যদিয়ে পালিত হলো বাংলা নববর্ষ। তবে কোথাও বেহায়াপনা হতেতো দেখলাম না। আবার কেউ গরিবের মধ্যে টাকা বিলিয়ে দিতেও দেখলাম না। তো যারা ১লা বৈশাখের বিরুদিতা করে তাদের কি ক্ষতি করেছে ১লা বৈশাখ? সেটা জানার বিষয়। ওয়াটস আপের একটি গ্রুপে একজন পোষ্ট করল ১লা বৈশাখের বেহায়াপনা থেকে বিরত থাকুন, আরো অনেক কিছু লিখে একটি ছবি। আমিও ঐ গ্রুপের সদস্য ছিলাম। তো আমি প্রশ্ন করলাম ভাই বেহায়াপনা মানে কি? যদি বুজিয়ে বলতেন তাহলে বিরত থাকতাম। দয়া করে বলবেন বেহায়াপনা কি? উনি আর কোন উত্তর দিলেন না। তার মানে বুঝতে পারলাম বেহায়াপনা মানে তিনি নিজেও জানেন না।

 

কাল বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে কয়েকটি অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহন করলাম। কোথাও বেহায়াপনা হতে দেখলাম না। বেহায়াপনা কি জানতে চাইলাম কেউ বলতে পারল না। বুঝতে পারলাম ওরা আসলে এইসব এমনিতেই বলে। যাতে কেউ বাঙ্গালীর চেতনা, বাঙ্গালীর সংস্কৃতি বাংলা নববর্ষ পালন না করে।

যারা ধর্মিয় চেতনায় এইসব বলে তাদের উদ্দেশ্যে আমি বলেত চাই, আপনারা না বুঝে ইসলাম ও ১লা বৈশাখের তুলনা করবেন না। ইসলাম আমাদের ধর্ম। যা আমাদের মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স) এর মাধ্যমে আল্লাহর নিকট থেকে পেয়েছি। এই ইসলাম আমাদের কারো মনগড়া সৃষ্টি নয়। আর ১লা বৈশাখ আমাদের জাতীয় চেতনা থেকে সৃষ্টি হয়েছে। ইসলামের সাথে এর কোন সম্পকৃ নেই। আমাদের মহান ধর্ম ইসলামের সাথে আপনারা ১লা বৈশাখের তুলনা করেন! এটা মেনে নেয়া যায় না। যেনে রাখুন এতে আপনাদের পাপও হতে পারে। কারন সামান্য একটি আঞ্চলিক জাতীয় চেতনার সাথে আমাদের মহা ধর্ম ইসলামের তুলনা হয় না। ইসলাম আল্লাহ প্রদত্ত ধর্ম, আর ১লা বৈশাখ বাঙ্গালীদের সৃষ্ট বাঙ্গালী জাতীয় চেতনা। এটি কোন বেহায়াপনা নয়, এটি কোন হিন্দুয়ানি সংস্কৃতি নয়, এটি বাঙ্গালী জাতীয় চেতনা।

 

বাংলা সন মূলত কৃষি বছর হিসেবে সৃষ্টি হয়েছে। আর আমরা শতকরা প্রায় ৮০ জন কৃষক। তাই এই দিন আমরা আনন্দ করা, মজা করা, দুষের কিছু নয়। আপনারাও আমাদের সাথে আসুন, ভালো লাগবে।