ক্যাটেগরিঃ খেলাধূলা

আগামীকাল মিরপুরে এশিয়া কাপের গুরুত্বপূর্ণ খেলায় আত্মবিশ্বাসী পাকিস্তান দৃঢ়প্রতিজ্ঞ শ্রীলংকার মুখোমুখি হবে। নিজেদের ১ম খেলায় পাকিস্তান ২১ রানে বাংলাদেশকে পরাজিত করলেও শ্রীলংকা ভারতের কাছে ৫০ রানে হেরে যায়। বাংলাদেশ সময় দুপুর ২:০০ টায় দিবারাত্রির এ খেলাটি শুরু হবে।

স্বাগতিক বাংলাদেশের বিপক্ষে জিতে পাকিস্তান আত্মবিশ্বাসের দিক দিয়ে এগিয়ে। এ ম্যাচে লঙ্কানদের হারালেই তাদের ফাইনাল প্রায় নিশ্চিত। তখন তারা ১৮ তারিখে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিপক্ষে নির্ভার হয়ে খেলতে পারবে। তবে স্লো ওভার রেটের কারণে জরিমানা গুণা অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হক বাড়তি সতর্কতা নিয়ে মাঠে নামবেন। এছাড়া মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতাও বাড়তি দুশ্চিন্তার কারণ। এ ম্যাচে দল অপরিবর্তিত থাকার সম্ভাবনাই বেশী। দলে পরিবর্তন আসলে চিমার ও আসাদ সফিকের জায়গায় যথাক্রমে ওয়াহাব রিয়াজ ও আজহার আলিকে দেখা যেতে পারে।

সম্ভাব্য পাকিস্তান দল: ১। মোহাম্মদ হাফিজ ২। নাসির জামসেদ ৩। ইউনিস খান ৪। উমর আকমল ৫। মিসবাহ-উল-হক (অধিনায়ক) ৬। আসাদ সফিক/আজহার আলি ৭। শাহিদ আফ্রিদি ৮। সরফরাজ আহমেদ (উইকেটরক্ষক) ৯। উমর গুল ১০। সাঈদ আজমল ১১। এজাজ চিমা/ওয়াহাব রিয়াজ

স্পটলাইটে: দলের সাবেক অধিনায়ক শাহিদ আফ্রিদি একজন ম্যাচ উইনার। বুমবুম খ্যাত আফ্রিদির ঝড়ো ব্যাটিং, চমৎকার বোলিং ও নজরকাড়া ফিল্ডিং সকলের দৃষ্টি কাড়ে। ক্যারিয়ারে ৩৩৯ ম্যাচে তিনি ২৩.৬৪ গড়ে ইর্ষণীয় ১১৩.৮৯ স্ট্রাইক রেটে (প্রতি ১০০ বলে) ৬৯৯৯ রান ও ৩৩.১৩ গড়ে ৩৪৩ উইকেট লাভ করেন। সাত হাজার রানের মাইলফলক থেকে ১ রান দূরে থাকা আফ্রিদির লঙ্কানদের বিপক্ষে সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স চমক জাগানিয়া। গত ২ বছরে শ্রীলংকার বিপক্ষে ৭ ম্যাচে ১ টি সেঞ্চুরীসহ ৪১.৩৩ গড়ে ২৪৮ রান ও মাত্র ১৫.৩৩ গড়ে ১৮ উইকেট লাভ করেন। নিশ্চয়ই তিনি চাইবেন এ ম্যাচেও সেই ধারাবাহাকতা বজায় রেখে মাইলফলক ছোঁয়ার দিনটা স্মরণীয় করে রাখতে!

নজর রাখুন: ১ম ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ জয়ের অন্যতম রূপকার উমর গুল। উভয় ইনিংসের শেষদিকে ব্যাটে-বলে তার ধুন্ধুমার নৈপূণ্যতায় পাকিস্তান জয়ী হয়। বোলিংয়ে তার কার্যকরী ইনসুইং ও ইয়র্কার অনেক ব্যাটসম্যানের দুশ্চিন্তার কারণ। শ্রীলংকার বিপক্ষে তার রেকর্ডও ভালো।

তারকা খেলোয়াড়: ১৫, ৫, ১২; ইউনিস খানের শেষ তিন ম্যাচের রান। ঠিক তার নামের সাথে মানায় না! দলের অন্যতম সিনিয়র ক্রিকেটার চাইবেন আজকের এ বিগ ম্যাচে নিজেকে মেলে ধরতে।

ভারতের বিপক্ষে শেষের দিকে বোলারদের ব্যর্থতা ও ব্যাটিংয়ে ফিনিশারের অভাবে শ্রীলংকা ৫০ রানে পরাজিত হয়। টূর্ণামেন্টে টিকে থাকলে হলে তাদের জন্য এক দৃষ্টিকোণ থেকে এ ম্যাচ জয়ের কোন বিকল্প নেই। এ ম্যাচ যদি হেরে যায় ও ১৬ তারিখে ভারত বাংলাদেশের বিপক্ষে জয়লাভ করতে পারে তাহলে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ নিছক আনুষ্ঠানিকতার ম্যাচে পরিণত হবে। দলের একাদশ নির্বাচনে সমস্যায় শ্রীলংকা। ইনজুরির কারণে টূর্ণামেন্ট থেকে ছিটকে পড়েছেন ম্যাথুস। ইনজুরিতে লড়ছেন অলরাউণ্ডার পেরেরাও। মালিঙ্গাও পুরোপুরি ফিট নন। এ অবস্থার ঊন্নতি না হলে লঙ্কানদের একাদশ অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

সম্ভাব্য শ্রীলংকা দল: ১। মাহেলা জয়াবর্ধনে (অধিনায়ক) ২। তিলাকারত্মে দিলশান ৩। কুমার সাঙ্গাকারা (উইকেটরক্ষক) ৪। দিনেশ চান্দিমাল ৫। লাহিরু থিরিমানে ৬। উপুল থারাঙ্গা ৭। কাপুগেদারা ৮। পারভেজ মাহারুফ ৯। নুয়ান কুলাসেকারা ১০। সিকুজি প্রসন্ন ১১। লাকমল

স্পটলাইটে: লঙ্কান সেনাপতি জয়াবর্ধনে ওপেনার হিসেবে আছেন দারুণ ফর্মে। দৃষ্টিনন্দন সব শর্ট খেলে গত ম্যাচে দলকে ভালো অবস্থানে নিয়েছিলেন তবে ৭৮ রানে আউট হয়ে যাওয়ায় শেষ রক্ষা করতে পারেন নি। বুদ্ধিদীপ্ত ও আক্রমণাত্মক অধিনায়কত্বের কারণে ক্রিকেট বিশ্বে বহুল প্রশংসিত এ তারকা ক্রিকেটারের পাকিস্তানের বিপক্ষে রেকর্ড ভালো নয়। দূর্দান্ত খেলে চাইবেন অতীতের রেকর্ডগুলো মিথ্যা প্রমাণ করতে।

নজর রাখুন: পারভেজ মাহারুফ বলে-ব্যাটে একজন দক্ষ খেলোয়াড়। তবে প্রতিভার যথাযথ সদ্ব্যবহার করতে পারেন নি। মিরপুরের উইকেটে বোলিংয়ে তিনি ভয়ংকর হয়ে উঠতে পারেন। দলের প্রয়োজনে শেষের দিকে ঝড়ো ইনিংস খেলতেও অভ্যস্ত।

তারকা খেলোয়াড়: দিলশান ভিবি সিরিজে ব্যাটে রান পেয়েছেন। কিন্তু গত ম্যাচে ভালো খেলতে পারেন নি। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তার ভালো খেলার রেকর্ড ছাড়াও তার বিচক্ষণী বোলিং, মারমুখী ব্যাটিং, দূর্বার ফিল্ডিং একজন চৌকস অলরাউণ্ডারে পরিণত করেছে। এ ম্যাচে কী তিনি স্বরূপে জ্বলে উঠবেন?

এ ম্যাচের টসজয়ী দল চাইবে আগে ব্যাটিং করতে। ২য় ইনিংসে ব্যাট করার সময় প্রথমদিকে বাড়তি সুবিধা পাওয়া গেলেও পরবর্তীতে উইকেট স্লো হতে পারে। গত ২ ম্যাচের পরিসংখ্যান দেখে টসজয়ী অধিনায়ক আগে বোলিং করবেন বলে মনে হয় না। তবে যথারীতি ব্যাটিং উইকেটে প্রচুর রান আসতে পারে। ২৬৫-২৭৫ হল চ্যালেন্জিং স্কোর।

হেড টু হেডে এ দু দল ১২৬ টি ম্যাচ খেলেছে। পরিসংখ্যানে পাকিস্তান অনেক এগিয়ে। বোদ্ধাদের বিচারে পাকিস্তান ফেভারিট কিন্তু শ্রীলংকা খেলবে অলআউট ক্রিকেট। এ যে টূর্ণামেন্টে তাদের টিকে থাকার লড়াই! শ্রীলংকার শক্তি ব্যাটিং পাকিস্তানের বোলিং। তাই ব্যাটে-বলে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতার আশা করা যায়।

১৪।০৩।২০১২ ইং