ক্যাটেগরিঃ নাগরিক সমস্যা

রাজধানী ঢাকাতে দিনকে দিন বাড়ি ভাড়া বাস ভাড়া সব ভাড়া বাড়ছে তো বাড়ছেই । কমার কোনও চান্স ও নাই । আর এই মুহূর্তে ঢাকায় যতগুলো ফ্লাট বিল্ডিং আছে আর ও অতগুলো ফ্লাট বিল্ডিং এর কাজ চলছে। এগুলোর কাজ শেষ হলে আর ও অর্ধেক জাগা খালি থাকবে । ওগুলোতেও হবে নতুন নতুন 10/15 তলা বিল্ডিং।এই অবস্থায় ঈ যদি ঢাকা বসবাসের অনুপযুক্ত নগরী হয় তাহলে তখন কী হবে আপনারাই বলুন। আর তখন মিরপুর টু গুলিস্তান, উত্তরা টু মতিঝিল আজ রওনা হলে কালকে পৌঁছাইতে হবে যেখানে এখন রওনা হলে ২/৩ ঘন্টার আগে যাওয়া জায় না ।আর তাই আমার কাছে কেন এই দুনিয়ার কোনও নগরবিদের কাছেই ঢাকা শহরের জ্যাম এর সমসার কোনই সমাধান নাই । নাই তো নাই আর দিন কে দিন বাড়বে তো বাড়বেই । ইন্ডিয়া তে কম্পিউটার ফার্ম গুলো বাঙ্গালোর আর ভাল ভাল ইউনিভার্সিটি সারা দেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে । হেভি ইনডাস্ট্রি গুলো অন্য রাজ্যে। বড় বড় হসপিটালগুলো সারা ভারতে ছড়িয়ে আছে। আর বাংলাদেশে একি অবস্থা । কোন দিকে যাব। সব এ তো ঢাকায় গার্মেন্টস ঢাকায় ট্যানারি শিল্প ঢাকায়। ইউনিভার্সিটি ঢাকায় যত জব যত ইনডাস্ট্রি সব কিসুই ঢাকায় । তাহলে অন্য জেলায় মানুষ থাকবে কেন এটাই তো আমার বুঝে আসেনা। তারপর মরার উপর খরার ঘা যে সেই ঢাকায় আবার আমাদের রাজধানী । তো আমদের নগর পরিকল্পনাবিদরা বলে যে ঢাকা থেকে চামড়া শিল্প সাভারে গার্মেন্টস শিল্প মুন্সিগঞ্জে সরিয়ে নিন আরে বড় বড় শিল্প কারখানা গুলো চট্টগ্রাম এ নিয়ে যান তাহলেই জ্যাম কমবে । আমি একমত না কারণ ঢাকা থেকে কেও যাবেনা । সব কিসু এ ঢাকাতেই থাকবে । তবে এর কী কোনই সমাধান নাই? সমাধান হল ঢাকা টু টাঙ্গাইল মানে রাজধানীটা যদি ঢাকা থেকে সরিয়ে টাঙ্গাইলে নেয়া যায় তাহলে । কারণ টাঙ্গাইল বাংলাদেশের সবথেকে বড় জেলা, যমুনা নদীর তীরে টাঙ্গাইলের অবস্থিত । টাঙ্গাইল থেকে নৌপথে যেমন রাজশাহী বা উত্তর বঙ্গে যাওয়া যাবে ঠিক তেমনি বরিশাল এমনকি ঢাকা ও আশা যাবে কাজেই। মালয়শিয়া আমেরিকা আর ও অনেক দেশ e তাদের রাজধানী পরিবর্তন করেছে তাহলে আমাদের ও কী এখনো সেই সময় হয় নাই ।