ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

 

ঠাকুরগাঁও পৌর শহরের শানি-নগর মহল্লায় হীরা (২৫) নামক এক যুবক তার এক বন্ধু জাকিরের (২৪) খুন হয়েছে। রোববার রাত সাড়ে নয়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত হীরা শান্তিনগর মহল্লার নুরুল ইসলামের ছেলে। আর ঘাতক বন্ধু জাকির একই এলাকার মৃত নজরুল ইসলামের ছেলে। শান্তিনগর এলাকার কাশেম আলী, আলী আকবর, পৌর কমিশনার হামিদুল্লাহ আল মামুন জানান, রাত ৮ টার দিকে স্থানীয় সুমন নামে এক ছেলে জাকিরদের বাড়ির সামনে মোবাইল ফোনে উচ্চস্বরে কথা বলছিল। এতে করে জাকিরের মা সুমনকে বাড়ির সামনে উচ্চস্বরে কথা বলতে নিষেধ করে। তখন সুমন কিছুটা দুরে সরে গেলেও ৪/৫ মিনিট পরে আবার জাকিরের বাসার সামনে রাস্তার ওপর দাড়িয়ে উচ্চস্বরে মোবাইল ফোনে কথা বলতে থাকে। পুনরায় জাকিরের মা সুমনকে উচ্চস্বরে কথা না বলার জন্য বলে। এতে করে সুমন ফোন রেখে জাকিরের মাকে অকথ্যভাষায় গালিগালাজ করে ও মারতে উদ্যত হয়। ঘটনাটি জানার পরে জাকির সুমনকে বাড়ির সামনে রাস্তায় গালিগালাজ করে ও তার মায়ের কাছে মাফ চাইতে বলে। কিন্তু সুমন তা না করে ফোনে ওই একই এলাকার হীরা নামে তার আর এক বন্ধুকে ডেকে আনে। তারপর হীরা ও সুমন দুজনেই জাকিরের সাথে ধস্তাধস্তি শুরু করে। ঘটনা কেউ বোঝে উঠবার আগেই জাকির পাশের দর্জির দোকান থেকে কাপড় কাটা কাচি নিয়ে এসে তা হীরার পেটে ও বুকে চালিয়ে দেয়। ঘটনা স্থলেই হীরা মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। তাকে ধরাধরি করে হাসপাতালে আনার উদ্যোগ নেবার সময়ই ঘটনাস্থলে হীরা মারা যায়।
এ ঘটনায় জাকির সহ বাড়ির লোকজন পালিয়ে যায়। মহল্লার লোকজন ক্ষীপ্ত হয়ে জাকিরের বাড়িতে আগুন দেয় ও ভাঙচুর চালায়। পরে পুলিশ এনে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) আঃ মান্নান জানান, জাকির হিরাকে খুন করে পালিয়েছে। খুনের ঘটনার পরে জাকিরের বাড়ির লোকজনও পালিয়ে গেছে। ক্ষীপ্ত লোকজন বাড়িতে আগুন দেয় ও ভাঙচুর চালায়। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আছে। খুনিকে আটক করার চেষ্টা চলছে। তিনি আরো জানান, জাকির, হীরা, সুমন তিনজনই বন্ধু তবে বেকার।