ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

 

চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভোরবেলা থেকে এক রোগী নিখোজ হলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানেন না। ঘটনাটি ঘটেছে আজ সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে। বার্ধক্যজনিত জটিল রোগের চিকিৎসা নিতে আসা রোগীর হলেন রানীশংকৈল উপজেলার ভন্ডগ্রাম এলাকার জাহানারা বেগম (৫৫)।

নিখোঁজ জাহানারার ছেলে জয়নাল আবেদিন জানান, তার মা গত কয়েকদিন আগে শারীরিক দুর্বলতা সহ বার্ধক্যজনিত রোগ নিয়ে ঠাকুরগাও মিশনারি অব চার্চ এর সেবাশ্রমে ভর্তি হয়। মিশনারি অব চার্চ কর্তৃপক্ষ জাহানারার রোগের জটিলতা দেখে তাকে আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি হবার পরামর্শ প্রদান করলে একই দিনে জাহানারা সেখানে ভর্তি হন ও চিকিৎসা নেন।

এ সময় রোগীর পাশে জাহানারার ছোট মেয়ে সেবাযত্নের জন্য থাকতো। আজ সোমবার সকালবেলা ঘুম থেকে উঠে সে দেখে তার মা নেই। সে বাথরুম, আশপাশ, হাসপাতাল ক্যাম্পাস খুঁজে দেখে। তার মাকে কোথাও খুঁজে না পেয়ে কর্তব্যরত নার্সদের জানান। নার্সরা বিষয়টি আমলেই নেননি বলে ওই নারী জানান। অতঃপর মায়ের নিখোঁজ সংবাদটি তার ভাই ও আত্মীয়দের জানালে সবাই হাসপাতালে ভীড় করে। এ বিষয়ে তারা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও, তাদের অভিযোগ কেউ আমলে নেয়নি।

নিখোঁজের ছেলে জয়নাল আবেদিন জানান, তারা সারাদিন ডাক্তারদের পিছনেই ছুটেছেন, কিন্তু কেউ তাদের মাকে খুঁজে দেবার বিষয়ে সহায়তা করেনি। এখন কি করা উচিত- এ বিষয়ে তারা কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারছেন না।

এ বিষয়ে জানতে সিভিল সার্জনের ফোনে (সন্ধা ৭ টা ৪৫) ফোন দিলে তিনি ফোন ধরেননি। জরুরি বিভাগে ফোন দেওয়ার পরে আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার সুব্রত কুমার ফোন ধরলেও, তিনি পরে কথা বলবেন বলে ফোন রেখে দেন। পরে তার ব্যক্তিগত নম্বরে ফোন দিলেও তিনি ফোন ধরেননি।

এ রিপোর্ট লেখার সময় ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার ফারহাত আহমেদ জানান, তিনি বিষয়টির খোঁজ নিতে হাসপাতালে এক্ষুণি পুলিশ পাঠাচ্ছেন।