ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয় সবচেয়ে মেধাবী শিক্ষার্থীরাই। মেয়েদের তো আরো কতো প্রতিকূলতা অতিক্রম করে আসতে হয় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যম্পাসে। সেই মেধাবী মেয়েদের এরকম ঝরে যওয়া তাই কিছুতেই মেনে নেয়া যায় না। ইভ টিজিং মেনে নেয়া যায়না। তাদের এই আত্মহনন কাঁদায় এই ক্যাম্পাসকে। যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় যাতে মেয়েরা নিজেদের প্রস্তুত রাখতে পারে- এ উদ্দেশ্য নিয়েই শাহাজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবি)-তে সংগঠিত হচ্ছে সাদা প্রতিরোধ। স্কুল অব লাইফ সায়েন্সেসের ডিন ও ছাত্রী হলের প্রভোস্ট এবং মুহাম্মদ জাফর ইকবালের বধু প্রফেসর ড. ইয়াসমীন হকের সাথে নেতৃত্ব দিচ্ছেন অন্য শিক্ষিকাবৃন্দ। ছাত্রীরা ঘটা করে প্রশিক্ষণ নিচ্ছে মার্শাল আর্টের।

ম্যাডাম ইয়াসমীন হক, মার্শাল আর্ট দিয়ে কি মানবীদের এই আত্মহনন থামানো যাবে?! ইভ টিজিং থামানো যাবে?! মার্শাল আর্টগিরি দেখাত গেলে তো তাঁরা আরো নিজেদেরই বিপদ বাড়াবে। হীতে বিপরীত হবে। মেয়েরা কি বাংলা ছবির নায়িকা যে মার্শাল আর্ট দিয়ে দর্শকদের বাজি মাত করে রাখবেন?! মানবীদের আর দানবী বানাবেন না। অনেক হইছে আর না। এবার মানব- মানবীদের পর্দা করার ও নৈতিক শিক্ষা সমূহের উপর জোর দিন।