ক্যাটেগরিঃ স্বাধিকার চেতনা

যুদ্ধাপরাধীদের প্রাণ ভিক্ষা চাওয়া, না চাওয়া নিয়ে দেশে বিদেশে কম জ্বল ঘোলা হয় নি। কিন্তু যারা দাবী করছেন যে তারা প্রাণভিক্ষা চেয়েছেন তারা বা তাদের সমর্থক গোষ্টির মধ্যে কি একটিও মরদের বাচ্চা নাই যে প্রাণভিক্ষা চাওয়া সেই কপিটি প্রকাশ করবে?
*
আগে বলে রাখি এখানে যুদ্ধাপরাধীদের সমর্থন করছি না কারন আক্বীদাগত কারনে যুদ্ধাপরাধীদের দন্ডাদেশে আমি বিন্দুমাত্র আফসোস করছি না কিন্তু একজন মানুষ হিসাবে সরকার কর্তৃপক্ষ মিথ্যাচারের আশ্রয় নিয়ে যেভাবে প্রাণভিক্ষার নাটক রচনা করা হচ্ছে তা মেনে নেওয়া যায় না।
*
যদি প্রাণভিক্ষার ওরা চেয়েও থাকে তাহলে সেই কাগজে তাদের সই স্বাক্ষরতো অবশ্যই থাকার কথা, কই কেও তো দেখাতে পারতেছে না, তাহলে কিভাবে দেশের মানুষকে বিশ্বাস করাবেন যে তারা ক্ষমা চেয়েছে? বার বার সরকার ও তার সমর্থন গোষ্টি চামচা বুদ্ধিজীবীরা একই সুরে গান গাচ্ছেন যে, ক্ষমা চেয়েছে ক্ষমা চেয়েছে, সংবিধানের ৪৯ ধারাতে তারা ক্ষমা চেয়েছে, আমি বলবো নিজেরা যেমন বোকা আছেন তেমনি কি দেশের মানুষকে বোকা পাইছেন? আপনারা কইলেন আর অমনি দেশের মানুষ বিশ্বাস করে নিলো তাই না? কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে তারা ক্ষমা চেয়েছে, কিন্তু কোন কারা কর্তৃপক্ষ? সেটা আবার কোন ধরনে প্রাণভিক্ষা যেখানে আপনারা প্রাণভিক্ষা চাওয়া সাকা ও মোজাহিদের সেই কপি জনগনকে দেখাতে পারতেছেন না? এতেই কি প্রমান হয় না যে আপনারা শতাব্দীর সেরা সত্যবাদী?
*
যেখানে তাদের আইনজীবীকে জেলে ঢুকতে দেওয়া হয়নি, তার পরিবার ব্রিফিং করে বলছে যে নিছক গুজব তাদের বাবা জানে আমরাও জানি যে ক্ষমা চাইলে ক্ষমা জীবনে পাওয়া যাবে না তাহলে ক্ষমা চাওয়ার প্রশ্নই আসে না- সরকার ও তার সমর্থনগোষ্টি বুদ্ধিজীবী ও হলূদ মিডিয়াকে বলবো বিশ্বাস করেন এই কথা আজ পুরো জাতীই যানে যে ক্ষমা চাইলে ক্ষমা জীবনে মিলবে না সেখানে তারা ক্ষমা চাইবে কোন সূত্রে? তাহলে আমরা কি মনে করবো? মানে দেশে পুতুল নাচ হচ্ছে আপনারা যেমন নাচাবেন তেমন নাচতে জনগন বাধ্য নাকি?

*

ফাঁসির দিন থেকে এ নিয়ে অনেক লেখা যুক্তি পক্ষে বিপক্ষে লেখা হয়েছে, কিন্তু যুদ্ধাপরাধী পরিবারের ব্রিফিং তাদের যুক্তির সামনে অপরপক্ষ শুধু একটিই যুক্তি নিয়ে আসছেন যে কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এরুপ ল্যাংড়া লুল্লা যুক্তি যে নিছক গুজব তা কিন্তু দেশের মানুষ বোঝে, বুঝে গেছে। এখনো সেই গান বয়ে চলেছে যে ক্ষমা চেয়েছে ক্ষমা চেয়েছে কিন্তু ঠেংগা প্রমান করতে পারতেছেন আপনারা। শুধু শুধু নিজেদেরকে জনগনের সামনে ছোট করছেন মিথ্যাচার করে। সব শেষে এক যায়গায় এসে থমকে যাচ্ছে যে যদি তারা ক্ষমা চেয়েও থাকে তাহলে যারা বলছেন যে ক্ষমা চেয়েছে, সাকা ও মুজাহিদের স্বাক্ষর করা সেই প্রাণভিক্ষা চাওয়া কপিটি জনগনের সামনে তুলে ধরবে?