ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

 

আজ বেলা আনুমানিক ৪টার সময় সায়দাবাদ এলাকায় একটি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় নাম পরিচয় হীন একজন পথচারী গুরুতর ভাবে আহত হন। জানা গেছে রাস্তা পার হওয়ার সময় একটি গাড়ি তাঁর দু’পা পিষে চলে যায়। এতে তাঁর পা দুটিই গুরুতর ভাবে জখম হয়। দুর্ঘটনার পর প্রত্যক্ষদর্শীরা তাকে সিটি কর্পোরেশন অফিস অঞ্চল-৫ এর আঞ্চলিক কার্যালয়ের গেট সংলগ্ন ফুটপাতে শুইয়ে রাখে। ঘটনার পর পর সেখানে পুলিশ পৌঁছালেও দ্রুত হাসপাতালে নেয়ার ব্যাপারে তারা কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। দেড় ঘণ্টা তাকে রাস্তার ফুটপাতে ফেলে রাখা হয়। এ ব্যাপারে ঘটনাস্থলে কর্তব্যরত যাত্রাবাড়ী থানার পুলিশ কনস্টেবল মনসুর জানান, দুর্ঘটনার জন্য দায়ী গাড়ি বা গাড়িচালককে আটক করা যায়নি। তিনি জানান, থানা থেকে একটি গাড়ি আসলে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হবে। পরে সাড়ে পাঁচটায় তাঁকে একটি ভেনে করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

দুর্ঘটনায় আহত ব্যক্তির অর্ধমৃত লাশ

গুরুতর ভাবে আহতাবস্থায় একটি মানুষ রাস্তায় পরে আছেন। তাঁকে হাসপাতালে কখন নেয়া হবে জানতে চাইলে, ঘটনাস্থলে কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যরা ক্ষেপে যায় এবং আক্রমণের ভঙ্গিতে তেড়ে আসেন। দুর্ঘটনাটি কখন ঘটেছে জানতে চাইলে পুলিশ সদস্য শাহিনুর ক্ষেপে গিয়ে বলেন, ‘আমি কি জানি!’ এ সময় চার-পাঁচজন পুলিশ সদস্য ক্ষেপে তেড়ে আসেন এবং প্রশ্ন করেন, এই কে বা কারা আপনি? এত প্রশ্ন জিজ্ঞেস করেন কেন? উত্তরে আমি বললাম, আমি একজন সাধারণ মানুষ। একজন পুলিশ সদস্য জিজ্ঞেস করেন, ‘এতো কথা জেনে আপনার দরকার কি? সাধারণ মানুষ তো আরও আছে তারা তো এতো কথা জিজ্ঞেস করে না।’ আমি তাদের বুঝানোর চেষ্টা করলাম, আমি একজন ব্লগার, ব্লগে লিখব তাই তথ্য প্রয়োজন। তখন দায়িত্বপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্যরা জানান, ‘আমরা কিছু জানি না। সাধারণ মানুষ জানে, তাদের জিগান গিয়া।’

আরিফ হোসেন সাঈদ
৩রা জুলাই, ২০১২