ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা, ফিচার পোস্ট আর্কাইভ, ব্লগ সংকলন: সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ড

 

বাংলা ব্লগার কমিউনিটি সাগর-রুনি হত্যার প্রতিবাদে একের পর এক প্রতিবাদ কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে। গতকাল এরই অংশ হিসেবে তারা একটি রোড পেইন্টিংয়ের আয়োজন করে। এতে সাধারণ মানুষের অংশ গ্রহণ ও সাড়া বলে দেয় একটি সফল রোড পেইন্টিংয়ের আয়োজন করেছে ব্লগাররা। বিকেল ৪ টায় শুরু হওয়া এই রোড পেইন্টে সাধারণ মানুষজন তাদের ক্ষোভ প্রকাশ করে। সরকারের এ বিচারে আন্তরিকতার ঘাটতি রয়েছে বলে মনে করেন ব্লগার ও সাংবাদিক ‘সোহেল মাহমুদ’। তিনি জানান, ‘সরকারের আন্তরিকতায় যদি ঘাটতি না থাকত তবে আজ আমাদের রাজপথে নামতে হত না’। সাধারণ মানুষজন তাদের উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, সরকারের আন্তরিকতার যথেষ্ট অভাব রয়েছে। সরকারের উদ্যোগ যদি ঠিকমত থাকত এর বিচার অনেক আগেই হয়ে যেত। তারা মনে করেন এখানে অনেক কিছুই লুকায়িত আছে যা উদ্‌ঘাটন হওয়া উচিত। ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় সরকারকে তারা ব্যর্থ মনে করছেন। দেশের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন করলে উপস্থিত জনতারা জানান, দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি আশঙ্কাজনক। তারা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ৪৮ ঘণ্টার সমালোচনা করেন। উপস্থিত সকলেই চান সাগর-রুনি হত্যার বিচার হউক।

লেখা আছে অশ্রু জলে

হত্যার বিচারের জন্য আপনজনের অপেক্ষা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

রক্তে রঞ্জিত এই রোড পেইন্টের লাল রং সকলকে মনে করিয়ে দেয় গত ১১ই ফেব্রুয়ারি এগুলো রক্ত হয়ে ঝরেছিল। তখন সাধারণ মানুষ যেমন তাদের ঘৃণা প্রকাশ করেছিল আজও তারা তাই করেছে। তখন মানুষ যেমন আশঙ্কা করেছিল আজ তা বাস্তবায়িত হয়েছে। রক্তের আলপনার মাঝে পড়েছিল সাংবাদিক দম্পতির লাশ। সরকারকে একপক্ষ ধরে আমরা যদি সাগর-রুনি’কে অন্যপক্ষ ধরি তবে আজ আমাদের চলার পথ বন্ধ। মৃত সাগরের পা রশি দিয়ে বাধা আমাদের তাই মনে করিয়ে দেয়। সন্ধ্যার আলো নিভে যাওয়া পর্যন্ত এ কর্মসূচি চলে।

 

রিলেটেড পোষ্ট:

সাগর-রুনি হত্যা: তেতে ওঠা রাজপথে ব্লগাররা

জাদুঘরের রাস্তায় সাগর-রুনির রক্তাত্ত মরদেহ!!! তাহলে কি মাটি চাপা দেয়া গেল না তাদের!!!

সাগর-রুনি হত্যার প্রতিবাদে রাস্তায় ‘ব্লগার ও ওরা ছয় জন’

আরও দেখুন:

ফেসবুকের পাতা

ফেসবুক এ লাইক এর সংখ্যা ১১,৭২৩টি

বিশেষ কৃতজ্ঞতা: কৃতজ্ঞতা জানাই চারুকলার জুয়েল এ রব, আরমান, ধীমান, খাইরুল, নিটোল ও হামিদদের প্রতি। তাদের সাহায্য ছাড়া কোনভাবেই এই কর্মসূচিটি সফল করা সম্ভব ছিল না। তারা দ্বীপ হয়ে জ্বলেছিল বলে আমরা আলোর দিশা পেয়েছিলাম। বাংলা ব্লগার কমিউনিটির সকলের প্রতি অনুরোধ সবাই যেন এই বেঙ্গল টাইগারগুলোর জন্য ১ টি বার হলেও বুক ভরা ভালবাসা নিয়ে এই স্লোগানটি গায়

***
আরিফ হোসেন সাঈদ, ২৮ এপ্রিল ২০১২

***
ফিচার ছবি: আইরিন সুলতানা