ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করেছে দেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ভিত্তিক মাদকবিরোধী প্রথম সংগঠন ‘স্টামফোর্ড মাদকবিরোধী ফোরাম’

সোমবার সকাল থেকে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ধানমন্ডি ক্যাম্পাসে হওয়া দিনব্যাপী নানা আয়োজনের মধ্যে ছিলো প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী কেক কাটা, আলোচনা অনুষ্ঠান, অ্যাওয়ার্ড প্রদান এবং সাংস্কৃতিক পরিবেশনা।

 

 

আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাদকের বিরুদ্ধে তরুণদের সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিচালক মফিদুল ইসলাম।

মাদককে দেশের অন্যতম প্রধান সমস্যা আখ্যায়িত করে মফিদুল ইসলাম বলেন, “বন্ধুদের প্ররোচনায়, কৌতুহলবশত কিংবা ব্যক্তিগত হতাশার কারণে অনেকে মাদক গ্রহণ করছে। অনেক মাদকাসক্ত তরুণ যখন মাদক সেবনের জন্য পরিবার থেকে টাকা পায় না, তখন তারা টাকার জন্য সমাজবিরোধী অনেক কাজে লিপ্ত হয়। তবে আশার কথা হচ্ছে দেশে তরুণদের একটা অংশ মাদকাসক্ত হয়ে পড়লেও, অপর অংশ মাদকমুক্ত সুন্দর সমাজ গড়তে কাজ করছে। তার প্রমাণ স্টামফোর্ড মাদকবিরোধী ফোরাম।”

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের এই পরিচালক (চিকিৎসক ও পুনর্বাসন) আরো বলেন, “মাদকের বিরুদ্ধে তোমরা সংগ্রাম চালিয়ে যাও, সব সময় সব ধরনের সহযোগিতার জন্য মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর তোমাদের সঙ্গে থাকবে।”

 


বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মুহাম্মদ আলী নকীর সভাপতিত্বে আলোচনাপর্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- ডেইলি সানের সম্পাদক এনামুল হক চৌধুরী, স্টামফোর্ডের বোর্ড অব ট্রাস্টির চেয়ারম্যান ফাতিনাজ ফিরোজ, এমিরেটাস অধ্যাপক ড. এম ফিরোজ আহমেদ, বোর্ড অব ট্রাস্টির সদস্য ও স্টামফোর্ড মাদকবিরোধী ফোরামের আহ্বায়ক ড. ফারাহনাজ ফিরোজ, স্টামফোর্ড মাদকবিরোধী ফোরামের প্রধান উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. কামরুজ্জামান মজুমদার, অভিনেতা সিয়াম আহমেদ এবং ফোরামের সভাপতি রাখিল খন্দকার নিশান।

 

 

বর্ষপূর্তির আয়োজনে এরপর হয় অ্যাওয়ার্ড প্রদান পর্ব। মাদকবিরোধী কাজে ভূমিকা রাখায় পাঁচটি ক্যাটাগরিতে ‘এসএডিএফ হোয়াইট হার্ড অ্যাওয়ার্ড’ প্রদান করা হয়। অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা হলেন, মাদকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সাহসী কার্যক্রমে ভূমিকার জন্য মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ঢাকা মেট্রো অঞ্চলের উপ-পরিচালক মকুল জ্যোতি চাকমা, সাদা মনের মানুষ হিসেবে ফরিদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শামসুল আলম এবং মাদকের বিরুদ্ধে সাহসী সাংবাদিকতার জন্য দৈনিক আমাদের সময়ের অপরাধ প্রতিবেদক হাবিব রহমান।

এছাড়া সমাজ পরিবর্তনে ভূমিকা রাখার জন্য সংগঠন ক্যাটাগরিতে ডাব্লিউবিবি ট্রাস্ট এবং ডিজিটালাইজেশনে ভূমিকার জন্য পুরস্কার পান লিডসাস লিমিটেড।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে ছিলো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে গান পরিবেশন করেন কণ্ঠশিল্পী বিউটি, পুলক এবং তুলি।