ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

হঠাৎ সিগারেটের দাম বেড়েছে!!!
গোল্ডলিফ, বেনসন এন্ড হেজেজ সহ সিগারেট গুলো, প্রতি স্টিকে বেড়ে গেছে ১ টাকা।
মূল্যবৃদ্ধির দেশে সকল মূল্য বৃদ্ধিই তো গা সওয়া! আমাদের সয়ে গেছে- শিশুর দুধ, চাল, ডাল, তেল সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় বৃদ্ধিতে! যে মূল্যবৃদ্ধির সমালোচনা শুধুই অলস মস্তিষ্কের নিষ্ফল বিনোদন! আর সিগারেটের মতো মারাত্মক ক্ষতিকর ও বিপদজনক বিলাসিতার মূল্যবৃদ্ধি তো সমালোচনা যোগ্য নয়ই বরং প্রসংশনীয়! এ সমালোচনা করাটাও রিস্কি…..এতে আমাদের অতি মাত্রায় সুশিল বিবেকাংশ হয়তো জাত গেলো, দেশ গেলো, ফুসফুস গেলো বলে তেড়ে আসতে পারে……ধূমপান যে ফুসফুস ক্যান্সারের কারন!

আমি ভাবছিলাম, সিগারেটের দাম বেড়েছে কিন্তু কারা বাড়িয়েছে?? সরকার কি অতিরিক্ত দামের মূল্য সংযোজন কর(ভ্যাট) পাচ্ছে??
সরকার তো দাম বাড়ায়নি? সরকার তো ভ্যাট পাচ্ছে না? তবে কারা, অবৈধ ভাবে দাম বাড়িয়ে কোটি কোটি টাকা অতিরিক্ত মুনাফা লুটে নিচ্ছে?
এরাতো সেই কপট, যারা ক্যান্সারের বিষ হাতে তুলে দেয় সঙ্গে সতর্কবার্তা-“ধূমপান ফুসফুস ক্যান্সারের কারন” বলে নিজেদের দায় মোচন করে নেয়। এরাই দাম বাড়িয়ে মুনাফা লুটে নেয় আর আমাদের বুঝিয়ে দেয় দুধের দাম নয় বিষের দাম বেড়েছে…তালিয়া।

আমি মুনাফা লুটেরাদের যে কোন মূল্যবৃদ্ধির নিন্দা জানাচ্ছি। আর হ্যাঁ, আমি নিজেও চাই- সিগারেটের মতো মারাত্মক ক্ষতিকর ও বিপদজনক বিলাসিতার মূল্যবৃদ্ধি হোক, তবে সেটা অতিরিক্ত মুনাফা লুটের সুযোগ দিয়ে নয় বরং অতিরিক্ত কর আরোপ করে। তবে কর আরোপের বিষয়টিও প্রশ্নবিদ্ধ!!! সরকার হয়তো বাজেটে ১৫% মূল্য বৃদ্ধি করে, কিন্তু সিগারেট কোম্পানি গুলো বাজেটের অজুহাতে সিগারেটের মূল্য প্রতি স্টিকে ১ টাকা বাড়িয়ে দেয়। অর্থাৎ দেশের ১৫% করের বিনিময়ে বিদেশী বহুজাতিক কোম্পানি গুলো প্রায় ৪০%-৫০% অতিরিক্ত মুনাফা করার সুযোগ পায়!

আমি আশা করছি, সিগারেটের বিরুদ্ধে সবার নৈতিক অবস্থানকে পুঁজি করে কেউ যেন অতিরিক্ত মুনাফা লুটতে না পারে, সে সম্পর্কে সবাই সচেতন হবে। এবং সরকার, সিগারেট কোম্পানিগুলো যেন করের আড়ালে অতিরিক্ত মুনাফা লুটতে না পারে সে বিষয়ে নজর দেবে।