ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

 

গুগলের এটিএপি গ্রুপের একটি প্রোজেক্ট হল প্রোজেক্ট সোলি। Google’s ATAP এর পূর্ণরূপ হল Google’s Advanced Technology And Projects। মানুষের হাতকে বিভিন্ন ডিভাইসের জন্য ইন্টারফেস হিসেবে ব্যবহার করার স্বপ্নকে বাস্তবে পরিণত করার উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে কাজ শুরু করে প্রোজেক্ট সোলি। ইতোমধ্যে তারা সোলি সেন্সর ডেভেলপ করার কাজ শেষ করেছে।

সোলি সেন্সরের মাধ্যমে যেকোন ডিভাইস মানুষের হাতের স্বাভাবিক ইশারামূলক অঙ্গভঙ্গি থেকে নির্দেশনা নিয়ে কাজ করতে পারবে। পুরো প্রক্রিয়াটি তার এবং হাতের স্পর্শ ছাড়াই ঘটে থাকে।

ব্যাপারটি অনেকটা এরকম যে আপনি আপনার বৃদ্ধাঙ্গুলি অদৃশ্য কোন একটা সুইচে প্রেস করলেন আর আপনার রুমের লাইটটি জ্বলে উঠলো। সোলি সেন্সরের মাধ্যমে এরকম আরো অনেক কল্পকাহিনী খুব সহজেই বাস্তবে পরিণত করা যাবে।

Project Soli

এবার আসি সোলি সেন্সর কিভাবে এরকম একটি অসাধ্য সাধন করছে সে ব্যাপারে। সোলি সেন্সর অনেকটা রাডার এর মতো কাজ করে। এটি খুব দ্রুততার সাথে এবং নির্ভুলভাবে এক মিলিমিটারের ভগ্নাংশ পর্যন্ত হাত এবং আঙ্গুলের গতি রিড করে কাজ করতে পারে। সেন্সর থেকে হাত দূরে সরিয়ে নিলে অথবা সেন্সরের এক পাশ থেকে অন্য পাশে সরিয়ে নিলে সিগন্যাল এবং এমপ্লিচিউট পরিবর্তিত হয়। এছাড়াও হাত মুষ্ঠিবদ্ধ করলে অথবা ফিঙ্গার ক্রস করলে সিগন্যাল পরিবর্তিত হয়।

এ প্রযুক্তির সবচেয়ে বড় আশার কথা হল গুগল সোলি প্রযুক্তি পরীক্ষাগারে আবদ্ধ না রেখে মানুষের দ্বারে দ্বারে পৌঁছে দেয়ার পরিকল্পনা করেছে। প্রোজেক্ট সোলির ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে সলি সেন্সরসহ এমন একটি ডিভাইস কিট বাজারজাত করা যেন এটি ব্যবহার করে ডেভেলপাররা খুব সহজেই নতুন নতুন ইন্টেরঅ্যাকশান এবং অ্যাপলিকেশন তৈরি করতে পারে।