ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

গত সোমবার ১০ই সেপ্টেম্বর এর ঘটনা। বিকেল ৫টায় অফিস থেকে কলিগ সহ বেরিয়েছি। বাসস্ট্যান্ডে দাড়িয়ে লোকাল বাসের জন্য অপেক্ষ করছিলাম দুজনে। আজ বাস ষ্ট্যান্ডে প্রচন্ড ভীড়। ১০/১৫ মিনিট পর বাস আসল। সবাই হুরমুর করে বাসে উঠার জন্য লেগে গেল। আমিও জানপরান করে বাসে উঠলাম। কিন্তু আমার কলিগ উঠতে পারল না। বাস আস্তে করে চলে একটু সামনে যেয়ে আবার থামতেই আমি বাসের দরজা দিয়ে মুখ বের করে কলিগটিকে ডাকার জন্য উদ্ধত হলাম। ঠিক তখনই অনুভব করলাম আমার প্যান্টের পকেটে কে যেনো হাত দিয়ে মোবাইলটা নিয়ে নিয়েছে। মুহূর্তেই সচেতন হয়ে পকেটে হাত রাখতেই এক ভদ্রলোক বললেন, আপনার কি কিছু নিয়েছে? ঐ যে নেমে গেলো। আমিও দেরি না করে বাস থেকে নামতে গেলাম। কিন্তু ততক্ষনে বাস জোড়ে চালিয়ে দিয়েছে। আমি রাস্তায় পাছ্রয়ে বাসের গতির সাথে দৌড়তে লাগলাম। বেশ কিছুক্ষণ দৌড়ানোর পর নিজেকে কন্ট্রোল করতে পারলাম না। উপর হয়ে পড়ে গেলাম রাস্তায়। হাত-পা ছিড়ে একাকার। রক্তাক্ত আমি। কিন্তু আমার নজর তখন মোবাইল চোরের দিকে। কোনমতে উঠেই তার উদ্দেশ্যে ছুটলাম। তাকে তো ধরতে পারলামই না দূর্বল হয়ে রাস্তায় একপাশে দেয়াল ধরে দাঁড়িয়ে রইলাম। এই হলো ঘটনা।

আজ অফিসে ফিরে এসেছি। শরীরের ব্যথার চিহ্নগুলো এখনো শুকায়নি। আপনাদের দোয়া বরকতে আল্লাহ আমাকে আবার আপনাদের মাঝে ফিরিয়ে এনেছেন। হতে পারত বড় ধরনের কোন দুর্ঘটনা। যাক আল্লাহর শুকরিয়া অল্পে বেঁচে গেছি। আমার জন্য দোয়া করবেন। আর দোয়া করবেন আল্লাহ যেন সকল চোরদের হেদায়েত দান করে।