ক্যাটেগরিঃ দিনলিপি

 

দেখতে দেখতে সাতটি বছর কিভাবে যেনো চলে গেল। আমার ঘরে সে এলো। দুই মেরুর দুটি মনের মিলন হল। আনন্দ-বেদনা সুখ-দু:খের মধ্য দিয়ে সাতটি বছর কোথা দিয়ে চলে গেল টেরই পেলাম না। একসময় প্রথম সন্তান নওরিন এর জম্ম হল। কিভাবে যেনো বাবাও হয়ে গেলাম। তারপর নুবার জম্ম হল। দুইয়ে দুইয়ে চার হয়ে গেলাম। আমাদের যৌথ পরিবারে বাবাই ছিলেন আমাদের সর্বেসর্বা। এ সময়ে তিনিও চলেগেলেন। কত ঘটনাই না ঘটেছে এ সাতটি বছরে। আমি একটি এন.জিওতে কাজ করতাম। একসময় সরকারী নির্দেশে তা বন্ধ হয়ে গেল। চাকুরী চলে গেল আমার। বাবা নেই। ভাইদের গলগ্রহ হয়ে থাকতে হবে। এটা ভেবে মনটা খুব খারাপ। তখনই আমার যোগ্য লাইফ পার্টনার এর ভুমিকায় অবতির্ন হল আমার জীবন সংগীনি । সে তার প্রাইজবন্ড বিক্রি করে কিছু টাকা আমাকে দিল। বাবার বন্ধ হওয়া দোকান চালু করার জন্য। আমার বাবা রিটায়ার্ড করার পর সখ করে একটি দোকান দেন বাড়ীর সাথেই । যেহেতু দোকানদারীর অভিজ্ঞতা তার ছিল না। তাই অল্পদিনেই লোকসান করে দোকান বন্ধ করে দিতে হয় তাকে। আমার বিপদের দিনে আমার সহধর্মিনির এই ত্যাগ সত্যই ভুলার মতো না। এরপর মায়ের কাছ থেকেও কিছু টাকা নিয়ে দোকান চালু করলাম। আমাকে সাহস যুগিয়ে আর সহযোগীতা করে আজো সে দোকানটি সক্রিয় রেখেছে। এজন্য তাকে ধন্যবাদ জানাই। বিয়ের পর থেকে তাকে আমি কিছুই দিতে পারি নাই। কত জম্মদিন গেল। কত বিবাহ বার্ষিকী গেল। কিন্তু সে আমাকে দিয়েছে অনেক। মাঝে মাঝে অবশ্য অভাব অনুযোগ ছিল। তা থাকটাই স্বাভাবিক। আজ সতটি বছর পরও তাকে আমি কিছু দিতে পারছিনা। কারন এখনো আমি তেমন কোন চাকুরি যোগার করতে পারি নাই পার্ট টাইম ডাটা এন্ট্রির চাকরি করছি একটি প্রতিষ্ঠানে। দোকান আর এই চাকুরি দিয়ে কোনরকম আমাদের চলে যায়। মহান আল্লাহ তালার কাছে তাই লাখ সুকরিয়া জানাই। দোয়া করি আল্লাহ যেনো আমাদের এ জুটিকে দুজাহানে যেনো একই বৃন্তে গেঁথে রাখে। সৌভাগ্যময় সাতে সবার কাছে আমরা দুজন দোয়া চাই।

*******************
you & me
passing lucky seven
We both makes together
Wonderful earth
peaceful Haven .

we are really always happy
we are happy couple
Happy life partner

I love You
More than I can say
I love You forever.

Oh allah bless us
Makes life shine
Bless our family
All time Fine.