ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

হঠাৎ মোবাইলে ম্যাসেজ টোন বেজে উঠল। প্রায়সই এমন হয়। মোবাইল কোম্পানিগুলো অফার দিয়ে প্রায়ই ম্যাসেজ দেয়। তাই তেমন পাত্তা দিচ্ছিলাম না। কিন্তু তারপরও কি মনে করে তখন মোবাইলাটা হাতে নিলাম। দেখলাম একটা বিজয় দিবসের ম্যাসেজ- তাতে লেখা-মহান বিজয় দিবসে আমর শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। দেশ ও জনগনের কল্যানে আপনাদের অব্যাহত সহযোগীতা কামনা করছি। জয় বাংলা। জয় বঙ্গবন্ধু।- শেখ হাসিনা।

ম্যাসেজ শেষে শেখা হাসিনা নামটা দেখে ধাক্কার মত খেলাম। আমাকে শেখ হাসিনা ম্যাসেজ দিয়েছে। এও হতে পারে। মোবাইল কোম্পানীগুলোকে আমজনতার উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রীর এ বার্তা সত্যই নতুন একটি পজেটিভ উদ্যোগ। যা সত্যাই প্রশংসনীয়। এভাবে যেনো প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন দিবস বা সফলতায় জাতিকে বার্তা দিয়ে উজ্জীবিত রাখেন এটাই প্রত্যাশা।

পরিশেষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট একটা রিকোয়েস্ট আপনি তো বাংলাদেশ ক্রিকেট দলে সাফল্যে তাদের শুভেছ্চা জানিয়েছেন। কাইন্ডলি যদি যে ছেলেগুলো সৌদী সরকারের আযোজীত কোরআনা প্রতিযোগীতায় প্রথম হয়ে দেশের জন্য গৌরব বয়ে এনেছে তাদেরও শুভেচ্ছা জানাবেন। পাশাপাশি মাননীয় রাষ্টপতি থেকে শুরু করে প্রশাসনের সকলকে এমনকি বিরোধী দলেকে প্রধানমন্ত্রীর বার্তা পাঠানোর এ ধারা অনুসরনের অনুরোধ জানাচ্ছি।
ধন্যবাদ আবারো মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
আল্লাহ আমাদের দেশকে রক্ষা করুন। আমাদেরকে সবসময় পজেটিভ ও মানবিক দৃষ্টিভংগি নিয়ে কাজ করার তৌফিক দান করুন। এই প্রত্যাশা।