ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

 

বাজারের হঠাৎ কইরা হইলো কি? সবকিছুর দামই বেশী বেশী। কি খাইয়া বাঁচব স্বল্প আয়ের মানুষগুলা। হাওয়া খাইয়া? পেয়াজ এর দাম এমন বাড়া বাড়ছে এইটা দেইখা সুখ করা লাগব। কিনা লাগব না। সামন্য শাক সবজি তারও দাম আকাশ ছোয়া। ৪০/৫০ টাকা কেজির কমেতো হাতই লাগান যায় না। মাছ আর মাংসতো খাওয়া ভুইলা যাইতে হইবো মনে হয়। আছে ফার্মের মুরগী । এর দাম অবশ্য বারে নাই তেমন একটা কিন্তু এগুলা বেশী খাইলে শরিরে পুষ্টির চ্ইতে ক্ষতির সম্ভাবনাই বেশী। কিসব শিষাটিসা হাবীজাবি বিষ নাকি এগুলারে খাওয়ায়। মোট কথা স্বল্প আয়ের মানুষগো মরনের দশা। দেশে কি কৃত্তিম দুর্ভিক্ষ লাগানের পায়তারা চলতাছে নাতো। এমনই হইলে মহা ফাপরে পরবো দেশের অর্থনীতি। এই বিষয়ে এখন পর্য়ন্ত সরকারের কোন ভাষ্য বা বচন শুনলাম না। ঘটনা কি? জিনিস পত্রের দাম বাইরা সৌরজগৎ পারি দিতাছে সরকার নাক ডাইকা ঘুমায় কেন? বড়ই তাজ্জব কথা। রাজনৈতিক দলগুলা সব ভেড়া হইয়া গেছে যেনো। এমন টাইট খাইছে। সরকার বদলে আন্দোলনতো বন্ধ হইছে হইছে লাগে সাধারন মানুষের সমস্যা নিয়া কথা কওনো বন্দ। কি যে হইতাছে দেশে আল্লাহ মালুম। হে আল্লাহ সাধরণ মানুষরে প্রতি দয়া করো।

দেশের এই ভজগট অবস্থা আর ভাল লাগেনা। সবসময় শংকায় থাকতে হয়। কখন কার দ্বারা কি হয়। কেডা কোন যায়গায় কি ষরযন্ত্র করতাছে কে কইতে পারে। কি যে অপেক্ষা করতাছে সামনে হে আল্লাহ তুমি ছারাতো কেউ বলতে পারে না। তাই উদ্ধার করো বাংলাদেশের এই নাদান বান্দাগো। সব বজ্জাতের স্কু গুলা টাইট দিয়া দাও। মানুষের মনে স্বস্তি দাও। নাভি শ্বাস বন্ধ কইরা শ্বাস প্রশ্বাস ঠিক ভাবে নিতে দাও। যদি কা্রও বা কোন গুষ্টির পাপের কারনে এমন কইরা থাকো তারে বা তাগোরে লইয়া যাও। কিন্তু এই লাচার গরে উদ্ধার করো। তুমি সর্বশক্তিমান । তুমি সবই পারো।