ক্যাটেগরিঃ খেলাধূলা

২৬ শে মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস। এই দিবস আসার আগেই আরেক যুদ্ধে অবতীর্ন হবে আমার দেশে। প্রতিপক্ষ সেই ১৯৭১ সালে যারা ছিল তারাই। পার্থক্য শুধু একটাই সে যুদ্ধ হাতিয়ার ছিল গোলা-বারুদ । আর এ যুদ্ধ হবে ব্যাটে আর বলে। ১৯৭১ সালে নির্বিচারে রাতের আধারে এদেশের জনগনকে নির্মম ভাবে হত্যা করেছে পাকিস্থান হানাদাররা। দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর এ দেশ স্বাধীন হয়। আজ সেই স্বাধীন দেশ মাথা তুলে দাড়িয়েছে। মুখোমুখি হচ্ছে সেই পুরোনো প্রতিদ্বন্দ্বীদের। এবারের যুদ্ধে কোন নির্মমতা নেই । নেই কোন সহিংসতা। এ যুদ্ধ হবে নিজেকে তুলে ধরার যুদ্ধ। বাংলাদেশ যে একটি গর্ব করার মত দেশ তা প্রমানের যুদ্ধ। আর ১৯৭১ সালে যে আমাদের উপর অন্যায় করা হয়েছে তা বিশ্বৱবাসীকে জানানোর মোক্ষম সময়।

২২ শে মার্চ বাংলাদেশের ইতিহাসে লেখা হোক আরেক যুদ্ধ জয়ের গাথা। মুশফিক তুমি এগিয়ে চল -বাংলাদেশ তোমার সাথে।