ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

ওগো মাবুদ আল্লাহ আজ আমরা বড় অসহায়। তুমি আমাদের প্রতি দয়া করো। জুলুমে জুলুমে আজ ভড়ে গেছে দেশ। একটার পর একটা অন্যায় হয়ে যাচ্ছে আমাদের সাথে। সরকার জুলুমবাজের পক্ষে মজলুমের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে। কোথাও সুষ্ঠ বিচার নাই। হত্যা,যুলুম, গুম, ধর্ষন নানাপ্রকার নির্যাতন এখন নিত্যকার চিত্র। হে মালিক তুমি ছাড়া সঠিক বিচার কেউ করতে পারবেনা তাই তোমার কাছে ফরিয়াদ জুলমবাজদের হাত থেকে রক্ষা কর আমাদের দেশ ও দেশের মানুষকে। সত্য কথা বলা আজ দোষ। সত্য বলাকে আজ পাপ মনে করা হয়। ভাল সৃজনশীর চিন্তা আর কাজ ষরযন্ত্র বলে বিবেচিত। তোষামদিকে আর দুর্নিতিকে আজ যোগ্যতা বিবেচনা করা হয়।

জুলুম, নিপীড়ন আর নির্যাতনের বুল ড্রোজার চলছে । পুলিশ জনগনের বন্ধু নয় আজ। তাই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রি বলেন তাদের কাছ থেকে দুরে থাকতে। যেনো তারা মানুষ নয় এক একটা হিংস্র হায়না। হিংস্রতা আর বর্বরতা আইমে জাহেলিয়াত হার মানায়। জন নিরাপত্তা আজ হুমকির সমুক্ষিন। বেসিনে পাওয়া যাচ্ছে টুকরো লাশ। নদী নালায় পাওয়া যাচ্ছে অঞ্জাত লাশ। আইন শৃংখলার চরম অবনতি হয়েছে। তবুও আমাদের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রি বলেন আগের থেকে আইনশৃংখলা পরিস্থিতি অনেক ভাল। শুধুই মিথ্যার ফুলঝুড়ি, সত্যকে স্বীকার করতে এতো ভয় কেন? গদি, পোষ্ট, পদবির মোহে আজ মানবিকতা অন্ধ হয়ে গেছে। মানবাধিকার সংস্থাগুলো বার বার বলছে দেশে মানবাধিকার পরিস্থিতির অবনতি ঘটেছে কিন্তু মন্ত্রী বলেন অন্য কথা।

এভাবে চলতে থাকলে এদেশে অচিরে মানবিক বিপর্যয় দেখা দিবে। যার ফলশ্রতিতে হয়তো আরো একটি ওয়ান এলিভেন সৃষ্টি হতে পারে। হতে পারে তার চেয়ে বড় ধরনের কোন কিছু। ক্রমান্বয়ে ঝুঁকির সমু্ক্ষিন হচ্ছে বাংলাদেশ।

এর মধ্যে সরকারী দল আর বিরোধী দলের কাদা ছোড়া ছুড়ি , জেল জুলুম, হরাতাল জ্বালাও পোড়াও আন্দোলন , রেশারেশির ফলে বৈদেশিক বিনিযোগ ঝুঁকির মুখে। বিনিযোগ কারীরা এদেশে বিনিয়োগ করতে আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে। ফলে আমাদের অর্থনীতি মারাত্মক হুমকির মধ্যে আছে। এর মধ্যে আবার বর্তমান বাজেট হয়ে গেছে একপেশী। জনগন চায় কম দামে নিত্যপণ্য ক্রয় করতে । কিন্ত বাজেটে এ বিষয়টি তেমন গুরুত্ব পায় নি। কেন ? জানিনা।

সবমিলিয়ে দেশের অবস্থা আমার কাছে সুবিধার মনে হচ্ছে না। এটা কিসের আলামত কে জানে। এ অবস্থায় আল্লাহই ভরসা।