যুক্তরাষ্ট্রে জুম্মার খুতবায় নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্টকে সহযোগীতার আহবান

যুক্তরাষ্ট্রের নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্টকে সহযোগিতার মধ্যে দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র তথা গোটা বিশ্বের কল্যানে আমেরিকান মুসলমান সম্প্রদায়কে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন ভার্জিনিয়ার আর্লিংটনস্থ বায়তুল মোকাররম মসজিদের ইমাম। শুক্রবার জুম্মার নামাজের খুতবায় তিনি এ আহবান জানান। সেখানে নামাজ পড়তে আসা মুসল্লীরাও একই আহবান জানান যুক্তরাষ্ট্রের মুসলমান সম্প্রদায়ের প্রতি। জুম্মার নামাজের পর ভয়েস অব আমেরিকার সঙ্গে সাক্ষাৎকারে বাইতুল মোকাররম… Read more »

ক্যাটাগরীঃ আন্তর্জাতিক

ঘুরে আসুন মেইন-১২

রেডী হয়ে হোটেল থেকে বেরিয়েই নাস্তার জন্য রাস্তার ওপারে ডাংকিন সাহেবের দোকানে ঢুকলাম। বেলা দশটা তারপরও নাস্তা কেনার লম্বা লাইন ডাংকিন ডোনাটে। ‘আমেরিকা রানস অন ডাংকিন’; ডোনাট এই বিজ্ঞাপনটি মনে হল মিথ্যা নয়। মজার ব্যাপার হলো দশ বছর যুক্তরাষ্ট্রে কাটালাম অথচ এখনো কোথাও লাইন দেখলেই মেজাজ খারাপ হয়। লাইন ধরার অভ্যাসতো নেই এজন্যই মেজাজ খারাপ… Read more »

slide

ক্যাটাগরীঃ ভ্রমণ

অপরিচ্ছন্ন বাতাস হচ্ছে দূষণের সবচেয়ে মারাত্মক উপায়

নতুন এক গবেষণায় বলা হয়েছে অপরিচ্ছন্ন বাতাস হচ্ছে দুষণের সবচেয়ে মারাত্মক উপায়। অপরিণত সময় মৃত্যুর চতুর্থ প্রধান কারন এটি। এ ফলে বছরে বিশ্বের অর্থনীতিতে হাজার হাজার কোটি ডলার ব্যায় হয়। বিশ্ব ব্যাংক এবং Institute for Health Metrics and Evaluation এর উদ্যোগে করা The Cost of Air Pollution: Strengthening the economic case for action শিরোনামের গবেষণার… Read more »

শ্যামরক: বিশ্বাস, আশা এবং ভালবাসার প্রতীক

প্রায় সব মানুষের অফিসের ডেস্কের টেবিল খানিকটা কাঠখোট্টা হয়। টেবিলে সাধারণত থাকে কম্পিউটার কীবোর্ড সাউন্ড বক্স ফাইল ও বিক্ষিপ্ত কাগজ; হয়তো একটি কলমদানি, ডেস্ক টিভি বা কয়েকটি বই। অনেকেই কিছু পারিবারিক ছবি রাখেন। কেউ আবার ছোট টবে মানিপ্ল্যান্ট জাতীয় কিছু উদ্ভিদ রাখেন। ভালো লাগে তাতে। আমার সবুজের প্রতি প্রেম ভালবাসা প্রবল। অফিসের টেবিলের ওপর একটি… Read more »

দেখা যাক, এবার বিপ্লব না সংস্কার কোনটা হয় যুক্তরাষ্ট্রে!

লাঞ্চের সময় প্রতি শনিবার আমরা নানা বিষয়ে গল্প করি। অধিবেশন শেষে সাড়ে বারোটার দিকে খেতে বসলাম। সিএনএনএ কষে চলছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণার খবর। কান ঝালাপালা হবার মতো। আমরাও শুরু করলাম লাঞ্চ আলোচনা। এবার একটা পরিবর্তনের আভাস মনে হচ্ছে। এই দেশেরতো প্রায় সাড়ে তিনশ বছর হয়ে গেল। নিরেট বুর্জোয়া অর্থনীতির একটু সংস্কার প্রয়োজন বলে মনে… Read more »

ক্যাটাগরীঃ আন্তর্জাতিক

সুখ তুমি কী?

আমার এই লেখা, গদ্য পদ্য প্রবন্ধ নিব্ন্ধ গল্প, যাই বলা হোক তা কল্পনা প্রসূত নয়।  কারুর না কারুর কাছে শোনা বা শেখা অথবা অভিজ্ঞতায় লব্ধ। প্রাত্যহিক জীবনে প্রতিনিয়ত কতো মানুষের সাথে মিশছি। প্রতি মুহুর্তেই নতুন নতুন অভিজ্ঞতা হচ্ছে। এই অভিজ্ঞতা সমৃদ্ধ করছে আমাদের। পাশাপাশি বাড়ছে জ্ঞানের ভান্ডার। আর একের কাছে শেখা নতুন জ্ঞান অপরের সাথে… Read more »

ক্যাটাগরীঃ নাগরিক মত-অমত

ঘুরে আসুন মেইন-১১

শুধু পোর্টল্যান্ড না গুগলের কল্যাণে এক নজরে জেনে নিলাম পুরো মেইন রাজ্যের তথ্য। রাজ্যটি কতটুকু, জনসংখ্যা কতো কার কি পেশা ইত্যাদি। মেইন রাজ্যের রাজধানীর নাম অগস্টা, আর জনসংখ্যা ২০১৪ সালের হিসাব অনুযায়ী প্রায় ২০ লক্ষ। যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব উপকুলের সবুজ বনানী পাহাড় আর পানি ঘেরা শান্ত নীরব রাজ্য মেইনের অপূর্ব প্রকৃতিক দৃশ্যের কথা সর্বজন বিদিত। রাজ্যটি… Read more »

ঘুরে আসুন মেইন-১০

পরেরদিন ঘুম ভাংলো ভোরের চকচকে রোদ জানালার কাঁচে পড়তেই। ক্ল্যারিওনের এই সাত তলা ভবনটিই বোধ করি ওই এলাকার সর্বোচ্চ ভবন। তাই ঝকমকে রোদ কিংবা কালো মেঘ কিছুই আটকায় না। ৫ তলায় আমাদের রুমের ভারী উইন্ডো কার্টেন ভেদ করে আলো ঢোকে ঘরে। আর সূর্যের আলো এবং ঘুম, আমার কাছে পরস্পর বিরোধী লাগে। সৃষ্টিকর্তা ঘুম দিয়েছেন রাতের… Read more »

ঘুরে আসুন মেইন-৯

১৭৭৮ সালে জর্জ ওয়াশিংটনের আমলে হেডলাইটের নির্মান কাজ শুরু হয় আর শেষ হয় ১৭৯১ সালে। ১৭৮৭ সাল। মেইন তখনো ম্যাসাচুসোসের অংশ। জর্জ ওয়াশিংটন পোর্টল্যান্ড শহর থেকে জনাথন ব্রায়ান্ট ও জন নিকোলস নামের দুই কর্মকর্তা নিয়োগ করলেন লাইটহাউজ নির্মানের দায়িত্ব দিয়ে। ১৫০০ ডলার বরাদ্দ করা হয় নির্মান খরচ বাবদ। ১৭৯১ সালের জানুয়ারীতে নির্মান শেষ হয় ৫৮… Read more »

ক্যাটাগরীঃ ভ্রমণ

ঘুরে অসুন মেইন-৮

১৭৭৮ সালে জর্জ ওয়াশিংটনের আমলে হেডলাইটের নির্মান কাজ শুরু হয় আর শেষ হয় ১৭৯১ সালে। ১৭৮৭ সাল। মেইন তখনো ম্যাসাচুসেটসের অংশ। জর্জ ওয়াশিংটন পোর্টল্যান্ড শহর থেকে জনাথন ব্রায়ান্ট ও জন নিকোলস নামের দুই কর্মকর্তা নিয়োগ করলেন লাইটহাউজ নির্মানের দায়িত্ব দিয়ে। ১৫০০ ডলার বরাদ্দ করা হলো নির্মান খরচ বাবদ। ১৭৯১ সালের জানুয়ারীতে নির্মান শেষ হয় ৫৮… Read more »