অমানবিক জাপানিজ হত্যা এবং মানবিক জাপানিজ বন্ধুদের প্রতিক্রিয়া

গুলশান এর হলি আর্টিসান বেকারিতে যে এক হৃদয়-বিদারক ঘটনা ঘটে গেছে সেটা বুঝতে পারলাম ২রা জুলাই সকাল বেলা টেলিভিশনের সামনে বসে।ঠিক কতজনে নিহত হয়েছে সেই খবরটা তখন পর্যন্ত জানতে পারিনি তবে এর ভিতর বেশ কয়েকজন জাপানিজ আছে এটা বুঝতে পেরেছিলাম। এতগুলো জা্পানিজকে একসাথে শুধুমাত্র বিদেশী হবার কারণে হত্যার কথা শুনে কেন জানি বিশ্বাস হচ্ছিল না।… Read more »

রায়া নেই, রায়া আছে…

জুনায়রাহ মাহিন তানশী-আমাদের ছোট মেয়ে। মেয়েটার প্রথম জন্মদিন পালন করা হল সাধ্যের মধ্যে যতটুকু ভাল করা যায় তার কোন কমতি না রেখে। ছোট মেয়ের জন্মদিন পালনের পর থেকেই মনের ভেতর কেমন যেন একটু খচ্ খচ্ করতে লাগল। আজ আমার বড় মেয়ে মাইশা লাবীব রায়া বেঁচে থাকলে কতটুকু বড় হত? রায়ার জন্মদিন আমরা কিভাবে করতাম? রায়াকে… Read more »

ক্যাটাগরীঃ ক্যাম্পাস

আশার প্রদীপ যে এখনও টিমটিম করে জ্বলছে, এটি যেন নিভে না যায়

দিনশেষে কত ঘটনার স্মৃতি নিয়েই না বাসায় ফিরি। শান্তির ঘুম নিয়ে আসতে পারে এমন কোন ঘটনা কি ঘটে? যে ঘটনাগুলোর স্মৃতি রোমন্থন করে মনে হয়-আহ্, পৃথিবীটা কতই না সুন্দর! কেন জানি না, আমরা প্রতিনিয়ত চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, প্রতারণার মত অসংখ্য অসুন্দর ঘটনারই মুখোমুখি হই। আর এই অসুন্দর ঘটনাগুলো আমাদের ভেতরের সৌন্দর্যকেও আস্তে আস্তে গিলে খায়… Read more »

ব্যস্ত ডাক্তার আর অভাগা রোগি

আমাদের মেয়ে, জুনায়রাহ, এর হঠাৎ ঠাণ্ডা লেগে গেল, সাথে হাল্কা জ্বর। নাপা খাওয়ানোর পরও দুইদিনে যখন ভাল হচ্ছে না, তখন নিয়ে গেলাম মনোয়ারা হাসপাতালের এক প্রফেসর এর কাছে। আমরা এই হাসপাতালের যে প্রফেসরকে নিয়মিত দেখাই তিনি নেই। যা হোক, ডাক্তার প্রেসক্রাইব করলেন – ১। নাপা সিরাপ ২। একটা কফের সিরাপ, ৩। একটা এন্টি-এলার্জির সিরাপ ৪।… Read more »

বাবাকে এবারো বিদায় জানানো হলো না

মেইন গেইটের বাইরে স্কুটার এসে থামার শব্দ পাওয়া গেল। মামা এসে তাড়া দিলেন, “স্কুটার চলে এসেছে, সবাই বেড়িয়ে পড়”। গ্রামের বাড়িতে যাওয়ার এই সময়টাতে আম্মাকে সবচেয়ে খুশি দেখা যায়, চোখমুখ কেমন জ্বলজ্বল করে। করবেই বা না কেন, স্কুল এর গণ্ডি পেরোনোর আগেই বাড়ি ছাড়তে হয়েছিল। সেই ঘর-বাড়ি, বাড়ির সামনের উঠোন, উঠোন পেরিয়ে সড়ক, সড়কের পাশ… Read more »