ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

 

তথ্যপ্রযুক্তির এই যুগে কে কতোটা দায়িত্ব পালন করেন ? কাদেরই বা দায় থাকে দায়ভার কাঁধে নেবার। যেখানে তোষামোদি আর স্বার্থ অনুসন্ধানের পেছনে ছুটতে ছুটতেই হাঁপিয়ে পড়ে অনেকেই, সেখানে দায়িত্ব কাঁধে নেবার জন্য কারো কারো এগিয়ে আনার প্রয়োজন পড়ে। এই ভূমিকাটা অনলাইন তথ্যভান্ডার হিসেবে বিডিনিউজ কতোটা করতে পেরেছে সেটা প্রশ্নাতীত। কী করেনি এই প্রতিষ্ঠানটি? সবার জন্যই তথ্য বিনোদনের স্বাদ নেবার এক অবাধ সুযোগ যেমন তৈরি করেছে তেমনি দায়িত্ব নিয়েছে মূলে গিয়ে কিছু শিকড় অনুসন্ধানের। সাধারণের পক্ষ থেকে দাবি, বিডিনিউজ যেনো চালিয়ে যায় এমন অজানা তথ্যের অনুসন্ধান যা মানুষকে সঠিক তথ্য জানার অধিকার দেবে।

সম্প্রতিই, তথ্য দুনিয়ায় তোলপাড় তৈরি করেছে জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জের ‘উইকিলিকস’। গোপন তথ্যের বাজার উন্মুক্ত করে দিয়ে ভয় ধরিয়ে দিয়েছে শক্তিশালী যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যের কর্তাব্যক্তিদের মনেও। সেই গোপন দলিলে কি নেই! সেখানে আছে আমাদের দেশেরও গোপন অনেক দলিল। যা কিছু মানুষের মুখোশ তো খুলে দিয়েছেই সঙ্গে দূনীর্তির শীর্ষে কোনো বারবার বাংলাদেশ এসেছে সে তথ্যেরও কিছুটা আঁচ করা গেছে। উইকিলিকসের সেই দলিলের সবকিছুই প্রকাশ করতে পেরেছে বিডিনিউজ।

এতোটা কি প্রয়োজন ছিলো?

তথ্য জানার অধিকার সবারই রয়েছে। মুখোশ পরে মুখোশধারী তথ্যের ঝোলা লুকিয়ে রাখবে আর সাধারণ মানুষ আমড়া চুষবে এটা দেখবে কে? উইকিলিকসের সব তথ্য জানিয়ে সে মহান কাজটিই করেছে বিডিনিউজ।

কিছু কথা কখনও বলা যায়না, কারণ এ কথা শোনা ও বলা পাপ। তো কি সেই কথা?

আমাদের দেশের নোবেল পাওয়া বিখ্যাত ব্যক্তিটির নাম বিতর্কে জুড়েছে কেনো? সে তথ্য জানার অধিকার সবার রয়েছে। কী এমন করেছেন তিনি লোকচক্ষুর আড়ালে? অনেকে জানলেও মুখ খোলার সাহস ক’জনের ছিলো? অনেকেই তো নৈতিক সমর্থন দিয়ে গেছেন। কিন্তু সে তথ্য প্রকাশ করে বিডিনিউজ সবাইকে জানিয়েছে- বিডিনিউজ ক্রমশই বিডিলিকস হতে চলেছে। তো সাধু সাবধান!!

বিডিনিউজ ফিচার :

অনন্য, অসাধারণ। পড়তে চাইলে, জানতে চাইলে, আসল ফিচারের স্বাদ চাইলে সেখানেই মিলবে। নতুনত্বের সন্ধান, নিয়মিত আপডেটসহ ফিচারের বিভাগগুলো ঠিক যেনো বিডিলিকসের রোমাঞ্চকর দুনিয়া।