ক্যাটেগরিঃ বিবিধ

 

ইতিহাস আদিকালের। কিন্তু রঙটা নতুন। পুরোণো গেলাসে রক্তিম মদ। প্রেমের রোমান্স আর ব্যর্থতার করুণ রস। ছেলেটার মনের ভাষা। অনেক যত্ন আর হৃদয়ের কিছু প্রকাশ।
উদ্ধার করা হলো এবারের ঈদে।

এরই মধ্যে যাদের এসএমএস সঙ্কট তাদের জন্য হতে পারে কিছু এসএমএস-এর খোরাক।

১. চেয়ে থাকা

অবিরাম ঝরলো ঝরঝর বৃষ্টি
রৌদ্র পোড়ালো চেয়ে থাকা দৃষ্টি।
অবিরত পথ চেয়ে বসে থাকা,
ঘুরছে অবিরাম জীবনের চাকা।
ঐসে এলো বুঝি হাত ধরে চলতে,
পথ চেয়ে বসে থাকা দুটি কথা বলতে।

২. চোখে পরলে কাজল
আমার জন্য একটু খানি রোদ, একটুখানিই জল
তোমার জন্য পুরোটা দুপুর, পুরো বর্ষা বাদল।
কেনো আমি কম, তুমি এতো বেশি?
কি নিয়ে বলো তোমার আমার রেষারেষি?
আমি অগ্নিদগ্ধ, তুমি দিলে জল
তুমি আমার জন্যেই চোখে পরলে কাজল ।

৩.নিশাচর পাখির গান শুনি

৩.১………………………………….
নিশাচর পাখির গান শুনি
তারার আলোয় পথ চলি
জোৎস্না মাখা দৃষ্টিতে নেশায় চুর
একাকি বন্ধু জেগে রই রাতভোর
তোমার জানালায় মিষ্টি রোদ
ভালবাসি একাই,বন্ধু তুমিই মনচোর।

৩.২………………
তুমি মেঘে হাত ছুঁয়ে দাও, বৃষ্টি নামবে
তুমি দৃষ্টি দিলে ফুটবে কদম, কেয়া
তুমি বন্ধু ভালোবাসলে?
মনের নদী দেবে পাড়ি আমার ছোটো খেয়া।
৩.৩………………..
ডানা নেই তাতে কি? উড়তে তো মানা নেই, মনে মনে
আমি তোমাকেই চায় প্রতি ক্ষণে,তোমার কি তা জানা নেই?
এবার জেনেছো যদি ডানাহীনা, প্রেমময়ী পাখি,
জানাও তোমার পরিচয়, বলো নাম
আমি সেই নাম ধরে ডাকি।(কবি নির্মেলেন্দু গুন)
৩.৪…………………………
যেদিন তুমি আকাশের নীল মেখে,তারা হলে আলো দেবে
আমাকে ডেকে নিও,বাঁধ ভাঙ্গা জোৎস্নায়
আমাকে খুঁজে নিও,মনের জানালায় ।

৩.৫………………………………
ঘুমের দেশে যখন তুমি,আমি জেগে ভাবি
স্বপ্নের দেশে আছো সুখে তুমি, আমি নির্ঘুম যন্ত্রনায়,
আমার বিভিষীকা রাত, তোমার মুঠো ভরা ভোর।
৩.৬……………………………….
আলো যদি দুর থেকেই আসে, সে আলোয় ভালো,
এ আলোর উত্তাপ নেই,চোখ জ্বালায় না,পোড়ায় না কিছুই
দূর থেকে আলোর রেখা পথ দেখায়
আমি বন্ধু সে আলোর রেখোই..।
৩.৭…………………………………
অর্থহীন, এলেমেলো সময়গুলো,
স্বপ্নের টানে রংিন ঘুড়ির মতো নীল আকাশে
চোখের তারায় বিন্দু বিন্দু আভা
ভালোবাসা, মায়া নিয়ে শুধু তোমাকেই ভাবা।
৩.৮……………………………………….
স্বপ্নে তার সাথে হয় দেখা,
বসে বসে ভাবি তাই একা একা
সে যে স্বপ্নে আসে তবু, স্বপ্নের চেয়ে মধুর
স্বপ্নের রং মাখা….জেগে দেখি, যে আমি সে আমিই একা ।
৩.৯……………………………
নিজের মাঝে খুঁজে ফিরি তোমার ছায়া
দুরে আছো তবু কেনো এতো মায়া?
পথ চলা পথিকের ঠিকানা
বোঝো কি তুমি হৃদয়ের যাতনা।
৩.১০………………………………
আলোর ছোঁয়া রঙিন ভুবন
তোমার পরশ ভরায় মন
একাকি নিসঙ্গ তোকে ভাকব সারাক্ষণ
তুমি ভালোবেসে হবে আপনজন?
বন্ধু শুধু তোকেই প্রয়োজন….।

৪. তোমার ভালো থাকা চাই

নির্জন রাতে একা,
বুকের ধক ধক শব্দ শুনতে পাই
চোখ দুটো জ্বলতে জ্বলতে ঝাপসা হয়ে আসে
আঁধারে দুহাত বাড়িয়ে তোমার স্পর্শ চাই,
আমি এভাবেই প্রহর করি পার
তোমার ভালো থাকা চাই।

চাওয়ার সীমানা অসীম
সীমানা মেনেই চাওয়া
তারপরও চাওয়া-পাওয়ার মেলেনা হিসেব
প্রতীক্ষা অবিরত।

নিঃ শব্দ প্রহর কাটে, হরতাল জীবনের,
মেনে নেওয়া, না নেওয়ার সংশয়।
জেনারেল পাবলিক জীবন,
আঁধারে দুহাত বাড়িয়ে তোমার স্পর্শ চাই,
আমি এভাবেই প্রহর করি পার
তোমার ভালো থাকা চাই।

৫. একটি মেয়ের জন্য পাঠানো ঈদ এসএমএস

৫.১………….
বন্ধু ভাবো, শত্রু ভাবো
নইতো আমি পর,
সমস্যাটা বোঝোই তো!
নইলে হতাম বর।
একটু শুধু মায়ার টান,
একটু বাসি ভালো,
এই প্রেমটা অন্যরকম
যেমন জ্বলে আলো।
এই আলোটা পোড়ায় না
বাড়ায় শুধু মায়া
ঘর বেঁধে নয়
ঘর ছেড়ে তাই
তোমার হলাম ছায়া।
২……….
তোমার জন্য ঘর বাঁধিনা
রাখিনাতো ধরে
এমনতরো ভালোবাসা
সারা জীবন ভরে।
৩…….
সখি যে ভালোবাসাকে বলো তুমি ভোরের আলো
সেই ভালোবাসাই আমাকে পোড়ালো।
যে প্রেমকে বলো তুমি আলোর চেয়ে ভালো
সেই আলো-প্রেম আমাকে আঁধারেই ডোবালো।
৪………..
বন্ধু তুমি কি আলোর পথ চেনো?
আধারে একা একা পথ চলি,
নিজের সাথে কথা বলি,
বন্ধু ভালোবাসি মেনো,
যখন রাত ভেঙ্গে ভোর হয়,
আমি তবু পথে তোমার আলোয়।
৫…………….
তোমার জন্য মুঠো মুঠো সুখ
তোমার জন্যই ঈদের খুশি
তোমার জন্য একশ আটটা নীলপদ্ম।
ভালো থেকো প্রাণ,
ভালো থেকো ভালবাসা
তোমার জন্যই কুরবানীর গরু
কিনতে এই হাটেতে আসা।

৬. বলোতো দায়ী কে?
________________________________________

ধরলে দু হাত তুমি
বললে,কত্তো ভালবাসি
দেখালে ছোটো ছোটো মধুর স্বপ্ন
পথ চললে এক সঙ্গে হাঁটি।

এক যুগ গেছে পেরিয়ে
স্বপ্নটা ভেঙ্গে গেছে
পাশে নেই তুমি।
আমার দরজায় ক্ষুধার্ত শিশুদের হাহাকার।

কে দায়ী?
আমি?
তুমি?
ভালবাসা?
এভাবেই প্রশ্নের মুখে
প্রথম চার চরণের স্বার্থকতা।

চোখ দুটো জলে ভেজা, শরীরটা ঘামে,
প্রানান্ত পরিশ্রমে বোনা ফসল।
ভালবাসা হাহাকার, চিৎকার করে ফেরে
স্বপ্নগুলো ব্যর্থ, টিকে থাকাটাই আসল!