ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কার এবং ঢাবির আটক শিক্ষার্থীদের মুক্তির দাবিতে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এসময় শিক্ষার্থীদের সাথে পুলিশের কয়েক দফা সংঘর্ষ ঘটে। সংঘর্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরসহ অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন।

চাকরীতে কোটা সংস্কারের দাবিতে চলমান আন্দোলনের অংশ হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সোমবার সকাল পৌনে ১০টা থেকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। অবরোধের কারণে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক বন্ধ হয়ে যায়।


সকাল পৌনে ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন ঢাকা- আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীরা। দুপুর পৌণে ১টার দিকে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে৷ প্রত্যক্ষদশীরা জানান, পুলিশের ছোঁড়া টিয়ারশেলে প্রক্টর সিকদার মো. জুলকারনাইন, একজন সহকারী প্রক্টর সহ অর্ধ শতাধিক আহত হয়েছেন।

এর আগে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকাল ৯টার দিকে কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে ঢাকা- আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করেন।

দুপুর ১২টার দিকে শিক্ষার্থীদেরকে ছাত্রভঙ্গ করতে পুলিশ ঘটনাস্থলে রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে। শিক্ষার্থীরাও পুলিশের দিকে ইট পাটকেল মেরে প্রতিহত করার চেষ্টা করে। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর, সহকারী প্রক্টর সহ প্রায় অর্ধশত শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। এদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদেরকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

পুলিশের বাঁধা উপেক্ষা করে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন চালিয়ে যান। তবে বেলা ৩টার দিকে শিক্ষার্থীরা নিজেরাই সড়ক থেকে সরে যায়৷ শিক্ষার্থীরা জানান, সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবি না মানা পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

ছবি: রবিউল ইসলাম