ক্যাটেগরিঃ প্রকৃতি-পরিবেশ

 

দক্ষিণ চট্টগ্রামে আমার বাড়ি পাহাড়ে ঘেরা সবুজ অরণ্যে, ভালো করে শ্বাস নিতে পারি। চোখের সামনে ঘটা কথাগুলো বলব-

বাংলাদেশের সম্পদ পাহাড় কে রক্ষা করার জন্য সরকার সামাজিক বনায়ন প্রজেক্ট হাতে নিয়েছিল এবং তা প্রয়োগও হয়েছে। যাদের কে বনায়ন দেওয়া হয়েছে এখন তারাই বন দস্যু। রাতের আঁধারে বন কর্মকর্তাদের ফাঁকি দিয়ে গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছ। বলতে পারেন তারা কেন চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে?

নির্দিষ্ট মেয়াদ শেষ হলে সরকার নিলাম ডাকে, নিলামের টাকা অর্ধেক সরকার পায় বাকি টাকা ভূক্তভোগীরা পায়। যদি রাতে গাছ কেটে নিয়ে যাওয়া যায় ঐ টাকা পুরোই ব্যাক্তির।

এবারে নিলাম প্রক্রিয়ায় আসি। নিয়ম অনুযায়ী নিলামের জন্য সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। নিলামে জয়ী যারা হয় তারা স্বাভাবিক ভাবে গাছ কেটে নিয়ে যায়। গাছ কাটার সময় কয়েকজন বিট কর্মকর্তা উপস্থিত থাকেন।

নিলাম দেওয়ার পরেও কেন রাতের আঁধারে গাছ কেটে নিয়ে যায় নিলাম মালিকেরা? কেন বিট কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকেন?

নিলাম চুক্তি করার সময় শর্ত থাকে চারা গাছ যেন কাটা না হয়। বিট কর্তার উপস্থিতিতে সব গাছ কেটে নিয়ে যাওয়া হয় এই খানে 500/1000 টাকা যদি বিট কর্তার পকেটে দেওয়া হয় তবে সব নীরব!

এইভাবে বৈধ করে ধ্বংস হচ্ছে আমাদের সম্পদ। নীরব সবাই, অবাক চোখে দেখা ছাড়া আমাদের কিছু করার নাই!