ক্যাটেগরিঃ স্যাটায়ার

 

ও সীমান্তের ওপারের দাদারা, ডিম লাগবে? ডিম? ভালো ডিম আছে, এক্কেবারে টাটকা! আমাদের বাংলাদেসের মহাগুরু, কোটিতে গুটিক মেলে এমন নোবেল পাওয়া, আমাদের বাঙ্গালদের গব্বো, ডাঃ ইউনুস মহাসয় এবার বলেচেন, যেদিন আমরা ইন্ডিয়াতে ডিম বেঁচতে পারবো, সেদিনই আমরা বাঙ্গালরা সব আপনাদের মতো ধনী হয়ে যাবোগো। লিননা দাদা কটি ডিম, আমাদের ধনী হতে সায্য করুননা, মাইরী! ধনী হতে যে আমাদের কত সক, তাতো আপনরা জানেন না। আপনারা যেমন ধনী হয়ে উটেছেন, এই আপনাদের আলো ঝলমল সহরে ১৯ ভাগ ইন্ডিয়ান (বাকি ৮১ ভাগের কতা আর তুলবেননা), কনজিউমার কেরডিটের ঋণ লিয়ে কত্তো কত্তো জিনিসপত্তর কিনচে। আমরা সুদু টিভিতে দেকি আর হাহুতাস করিগো। লিননা দাদা, ভালো ডিম!

আর এপারের যুবক যুবতীরা। তোমাদের জন্যও তেনার বানী আছে! থাকবেনা? তিনিতো আমাদেরই লোক। দাও হাতে তাঁর তুলিয়া অশোক। তিনি বলেছেন, ম্যালা মুনাফা কামাই হলো। এবার আর সে মুনাফা কাকের মতো এদেশে ওদেশে লুকিয়ে রাখার প্রয়োজন নেই। যা নাফা মানে মুনাফা করবো তার সব জনগনের খেদমতে ঢেলে দেবো। এর নাম দিয়েছেন তিনি সামাজিক ব্যবসা। সামাজিক কথাটা থাকলে শুনতে কী ভালো লাগে!! প্রয়োজন হলে শতশত মামলা খাওয়া কোম্পানীকে সহযোগী করে বাংলার শিশুদের দই গেলানো হবে। পেট ভরে ভাত খাওয়া খুব খারাপ। অস্বাস্থ্যকর। ব্যাড হ্যাবিট। রসায়নাগারে তৈরী বীজ দিয়ে দেশ ভরে দেয়া হবে। হাজার বছর ধরে আমাদের বাপদাদা কৃষকেরা যে বীজ ও কৃষিপদ্ধতি সংরক্ষন করছেন, সব উড়িয়ে দিয়ে নয়া নয়া জাতের বীজ, পোকার ওষুধ, সার দিয়ে বাজার ভরে দেয়া হবে। তবে আল্লাহর কসম, তার মুনাফা সব জনগনের খেদমতে ঢেলে দেয়া হবে। মহান কনফুসিয়াসের আধুনিক সংস্করণ ডাঃ ইউনুস অবশ্য তাঁর নুতন চিন্তা মানে কিভাবে খেদমতটি করা হবে তার বিস্তারিত ব্যাখ্যা দেননি। দিলেও, হে তরুন-তরুনীগন, তোমরা যে বুঝতে তাতো নয়। তাই তিনি মনের কথা মনেই রেখেছেন। তোমরা আসছো তো তাঁর সঙ্গে?