ক্যাটেগরিঃ স্বাধিকার চেতনা

শাহবাগ তুমি পার , তুমি পারলেও বটে । শাহবাগ তুমি কতকিছুই না পাল্টে দিলে । দিনকে রাত করতে না পারলেও রাতকে ঠিকই দিন করে দিয়েছ , তারুণ্যের আলোয় আলোকিত হয়ে গেলে , তুমি কিভাবে পারো শাহবাগ ? তোমার কি এই ভোল পাল্টাতে একটুও বিবেকের কাছে প্রশ্ন জাগেনা ? না তুমি ভোল পাল্টাচ্ছ ইচ্ছা করেই ? তুমি কি বুঝতে পারো শাহবাগ তুমি এই লাখো তরুণের সাথে প্রতারণা করছো ? না কি প্রতারণা ,ভোল পাল্টানো এগুলো তোমার মতে লজ্জার কিছুইনা ? ভাবখানা এমন কত করলাম ,এ আর এমন কি ?

শাহবাগ , তোমার মন খারাপ হয়ে গেল আমার কথায় ? কি করব বল ,উচিত কথা একটু তেতোই লাগবে। তুমি শাহবাগ আজ দ্রোহের আগুনে ঝলসানো লাখো তরুণকে বুকে নিয়ে খুব ভাব দেখাচ্ছ তাইনা ? ওহ ,শুধু তরুণ নয় ? ৯ দিনের শিশু থেকে ৯০ বছরের বৃদ্ধকেও এক আকাশের নিচে বেঁধে ফেলেছো ? বটেই !

কিন্তু শাহবাগ , আমার বিশেষ ভাল ঠেকছেনা , তোমার এই ব্যপারটা আমার কাছে এখন ভন্ডামি মনে হচ্ছে । ওহ , লেগেছে বুঝি ? কি করবো বল শাহবাগ ? আমার যে পিছনের দৃশ্য গুলো মনে পড়ে যায় , এই যেমন তোমার বুকে খুব গর্ব নিয়ে ৭১ এর ২৫ মার্চ দিবাগত রাতে পাকিস্তানী হায়েনা সৈন্যদের জীপ, ট্যাংক , মেশিনগান , এমনকি সৈন্যদের বুট এর তলা ধরণ করে বাঙালিদের উপর পৈশাচিক হামলা করার সুযোগ করে দিয়েছিলে , পুরো নয়টি মাস পাকিদের এবং রাজাকারদের বালির বস্তা সাজানো ক্যাম্প নিয়ে বাঙালিদের একহাত দেখে নিতে চেয়েছিলে । আবার ১৯৭৫ সালে জাতির পিতার ঘৃণ্য হত্যাকাণ্ডের পর একটানা দুইটি বছর আবার ট্যাংক , মেশিনগান আর আর্মি ক্যাম্প তোমার বুকে ধারণ করে আমাদের ভয় দেখাওনি ? ওহ , তুমিতো আবার বলবে …শ্যাখ কে মারার পর একটা মানুষ রাস্তায় নামেনি কারণ সবাই খুব খুশি হয়েছিল । ভন্ড শাহবাগ ! মানুষ যদি এত খুশি ই হয়েছিল তো ট্যাংক নিয়ে কাকে ভয় দেখাচ্ছিলে , হ্যাঁ ?

শাহবাগ ,সেই তুমি আজ দশদিন ধরে এই পোলাপানদের নিয়ে নাটক করছো , তুমি ভন্ড ,শাহবাগ !

শাহবাগ তুমি রাতকে দিন করতে পারো , আপোষহীনকে আপোষ করতে বাধ্য করতে পারো , হ্যাঁ আমাদের আপোষ হীন নেত্রীকে ও তুমি ঘোলা জল খাইয়ে তরুণদের সাথে আপোষ করতে ভূমিকা রেখেছ । এই যেমন দুই দিন আগেও তাঁর স্ট্যান্ডিং কমিটি নিয়ে ,আদতে বসে বসে মধ্যরাতে বৈঠক করে বললেন পোলাপান গুলো নাটক ফেদেছে , সব কয়টা ফ্যাসিবাদি । দুইদিন পরই শাহবাগ তুমি আপোষহীন কে আপোষ করিয়ে দিলে , তুমি এক নম্বর ভন্ড শাহবাগ।

এই তরুণ সম্প্রদায় যে ফ্যাসিবাদি দাবি নিয়ে তোমার বুকে জড়ো হয়েছে , রাজাকারদের বিচার / ফাসি যাই বলি না কেন , সারাটি বছর যে আপোষহীন নেত্রী মাঠ ময়দান কাঁপিয়ে তারস্বরে চিত্কার করেছেন ..” কিসের বিচার ? এই বিচার মানিনা ” , তিনিই কিনা এই ফ্যাসিবাদি তরুণদের ফাসির দাবিকে সমর্থন দিতে বাধ্য হলেন । শাহবাগ তুমি ভন্ড, এ সবই তোমার ভন্ডামির ফল । হান্নান শাহ নামে বিশাল আকৃতির এক নেতা , তাঁর বক্তব্যকে এঁটেল সাংবাদিকগুলো ভুলভাবে উপস্থাপন করেছেন , তিনি প্রকৃত পক্ষে বলেছেন এই তরুণরা ফাসিবাদি , সাংবাদিকের কলম ঘুরে হয়ে গেল ফ্যাসিবাদি । শাহবাগ এ সবই হয়েছে তোমার ভন্ডামির কারণে ।

শাহবাগ , আমরা কিছু ভদাইচন্দ্র এই বিডিব্লগে লেখা এবং পড়া দুটোই করার চেষ্টা করি । এখানে আমরা এঁটেল নাকি আঁতেল না হলেও হওয়ার ভান করি , এজন্য অবশ্য তোমার কোনও দায় নেই কারণ বিডি ব্লগতো আর দশদিন ধরে পয়দা হয়নি । কিন্তু শাহবাগ তোমার দায় অন্য জায়গায় , তুমি অনেক বিডি ব্লগার এবং বিডিব্লগে মন্তব্যকারী অনেকের রূপ রঙ পাল্টে দিয়েছো , অনেকের পোস্ট বা মন্তব্য পড়তে গিয়ে ভীমরি খেয়ে যাই । আবার মনে হয় নকল ব্লগার বা মন্তব্যকারী নয়ত ! !! এর কি ভোল পাল্টে ফেললো ? না অন্য কিছু ?

সবার লেখা তো এখানে তুলে আনা সম্ভব নয় । বিডিব্লগে আমাদের অত্যন্ত প্রিয় ব্লগার মাহি জামান ভাই এর আইডি হাইজ্যাক হয়ে গেছে । একজন নকল মাহি জামান বিডি ব্লগে লেখালেখি শুরু করেছে ! সর্বনাশ !! আমি এর প্রমাণ নিচে তুলে ধরছি ।

সম্মানিত লেখক মাহি জামান , আমার এই পোষ্টের http://blog.bdnews24.com/Bangal/141582 (প্রতিক্রিয়া: জামাতি ব্লগারের প্রতিক্রিয়া এবং চারিত্রিক সনদ) ( ৩০ – ১২ – ২০১২ )
জবাবে নিচের কথা গুলো লিখেছিলেন ? এদিকে মাহি জামান নামে আরেক ব্লগার ১৩ ই ফেব্রুয়ারী একটি পোস্ট লিখেছেন http://blog.bdnews24.com/MAHIZAMAN/150108″( “জামায়াত নিষিদ্ধ করার এখনই সময় )

” শিরোনাম দিয়ে । আমি কিছুতেই মিলাতে পারছিনা কোনটা আসল মাহি জামান । আমার মনে হয় শাহবাগি কোন ফ্যাসিবাদী কারসাজি এটা ।
শাহবাগ ,তুমি কি অস্বীকার করবে তুমি ভন্ড নও ? এগুলো তোমার ভন্ডামি নয় ?
নিচে আমার পোস্টে তাঁর মন্তব্য এবং আমার জবাব হুবহু তুলে দিলাম ।

” মাহি জামান বলেছেন: 7
সকাল ১০:৪৫, রবিবার ৩০ ডিসেম্বর ২০১২
বিডি নিউজের ব্লগারদের মধ্যে দু’টি বিশেষ সম্প্রদায়ের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। এর একটি হচ্ছে জামায়াতি সম্প্রদায়, অন্যটি বাকশালী সম্প্রদায়। এই ব্লগার এবং তাকে সমর্থনকারিদের নিঃসন্দেহে বাকশালী বলে চিহ্নিত করা যায়।
বাকশালীদের চরিত্র হল সকল রাজনৈতিক দল নিষিদ্ধ করে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার মসনদ চিরদিন শুধুমাত্র নিজেদের কব্জায় রাখা এবং স্বনিয়ন্ত্রিত চারটি বাদে সকল পত্রিকা নিষিদ্ধ করে ভিন্নমতকে স্তব্ধ করে দেয়া। বিডি নিউজের এই সব বাকশালী (আনপেইড কিন্তু ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট ভোগী) ব্লগার ভিন্নমত এবং ভিন্নমতের ব্লগারদের প্রতি যেভাবে অশ্লীল, ব্যক্তি আক্রমনাত্বক, অপ্রাসঙ্গিক, অযৌক্তিক ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত মন্তব্য করেন তা কোন ক্রমেই গণতান্ত্রিক মুল্যবোধের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।
লেখক বলেছেন:7.1
রাত ২:৩৯, মঙ্গলবার ১ জানুয়ারি ২০১৩
মাহি জামান ভাই , বাকশালী বলে চিহ্নিত হওয়ার মধ্যে কোনও লুকোছাপা নেই । ১৯৭০ এর নির্বাচন এর আগে এবং পরে ৯৮/ ৯৯ % বাঙ্গালি আওয়ামি লীগের পক্ষে ছিল , বাকি ১% মতান্তরে তারচেয়েও কম সংখ্যক হতভাগা বাংলাদেশের চেতনার সঙ্গে বেইমানী করেছিল । আপনার ভাষায় যারা ভিন্নমতের অনুসারী , ইয়াহিয়ার ভাষায়অচল পয়সা , স্বাধীনতা পরবর্তী মার্কিন দূতাবাসের ভাষায় জামাতি স্লাগ । স্বাধীনতার পর রাষ্ট্র পরিচালনার স্বার্থে বাংলাদেশ কৃষক শ্রমিক আওয়ামি লীগ (বাকশাল ) নামে সারা দেশ এক প্লাটফর্মে এসেছিল ওই ১% হতভাগা ছাড়া। কিন্তু ভাই জামাতি শব্দটির সাথে লজ্জাকর অনুভূতি আপনার মধ্যেও জাগরূক বোঝাই যাচ্ছে , কারণ আপনি ভিন্নমতের বলছেন, জামাতি বলছেননা । এটাও আশার কথা বটে । শুভকামনা । ”

এখানে মাহি জামান ভাইয়ের উপলব্ধি দুইটি সম্প্রদায় সম্পর্কে ব্যক্ত করেছেন , তাতে আমি বাকশালী সম্প্রদায়ের লোক বুঝা যায় , আরেকটি সম্প্রদায় জামাতি ।

এখন আমি যাকে নকল মাহি জামান বলছি তিনি জামাতকে নিষিদ্ধ করার পক্ষে যুক্তি তুলে ধরেছেন । অর্থাত্‍ এই পোস্টে মাহি জামান বাকশালী । তাহলে কি দাঁড়ায় ? বিডি ব্লগে দুইজন মাহি জামান আছে, একজন বাকশালি আরেকজন রাজাকার । তাই নয় কি ?
অথবা ,
এখানে কি প্রমাণ করা যায় যে মাহি জামানের আইডি হাইজ্যাক হয়ে গেছে ?

শাহবাগ তুমি ভন্ড , তোমার জন্যই এত কিছু ঘটছে !!!! না আমরা সকলে ভণ্ড ? কোনটি ঠিক ???