ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

আমাদের প্রানপ্রিয় নেতা এক এবং অদ্বিতীয় তারেক রহমানকে  যতদিননা বঙ্গভবনে প্রেসিডেন্ট পদে বসাতে না পারবো । বাংলা ভাই , শায়েখ আ: রহমানদের কার্বন কপি যতদিননা তৈরী করতে পারবো , আমাদের সাবেক পদচ্যুত ডাকতর    রাষ্ট্রপতি ব দ চৌধুরীর   কথামত দেশে গৃহযুদ্ধ লাগাতে না পারবো , আমাদের খোকা ভাই( খোকা না ?) এর কথামতো চোরাগুপ্তা হামলা করে বাংলাদেশের অর্ধেক মানুষকে মেরে ফেলতে না পারবো ততদিন আমাদের মহান নেত্রী খালেদা জিয়ার ডাকে জনগন হরতাল পালন করবে।

সরকারের এজেন্টদের হাতে অবৈধ ভাবে আটক হওয়া দশ ট্রাক অস্ত্র মুফতি মান্নান সহ যতদিননা ফেরত পাবো , সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী   বাবরের চুলে জেল মেখে স্পাইক হেয়ার স্টাইল করার অধিকার যতদিননা ফেরত পাবো, হরতাল চলবে  ।

যতদিন না  বিদিশার মত রওশনকেও জবরদস্তি এরশাদের সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদে বাধ্য করার মত শক্তি সামর্থ্য অর্জন করতে না পারবো। ততদিন অবরোধ চলবে ।  আমাদের   রুটি রোজির পথ   বনানীর হাওয়া ভবনের   বন্ধ করে দেওয়া কার্যক্রম যতদিন    পূর্ণ উদ্যমে শুরু করতে না পারবো , সংসদ ভবনে যতদিননা হাওয়া ভবন এর শাখা খুলতে পারবো , ততদিন অবরোধ চলবে , হরতাল চলবে ।

সেনাবাহিনীর সর্বোচ্চ স্তরের অফিসাররা আগের মত যতদিন না আমাদের প্রানপ্রিয় নেতা তারেক রহমান এবং তার মামুজান সাইদ ইস্কান্দারের ( মৃত্যুমুখে পতিত ) অঙ্গুলি হেলনে  থরো থরো  না কাঁপবে , সেনানিবাসের ভিতরে  সেনাবাহিনীর প্রধানের বাসস্থান অন্যত্র সরিয়ে জিয়া পরিবারকে যতদিননা ৪৩ টি  শীতাতপ যন্ত্র সজ্জিত প্রাসাদ তৈরি করে  ফ্রিজে থাকা যাবতীয় হার্ড /কোল্ড ড্রিংকের বোতল পরিপূর্ণ করে  না দেওয়া হবে  ততদিন হরতাল চলবে ।

আমাদের আরো অনেক দাবি আছে , সেগুলো পর্যায়ক্রমে পূরণ করতে হবে । কিন্তু এই মুহুর্তে প্রধান দাবী আমাদের সুশীল নেতা  জনাব মাহমুদুর রহমান মান্নাকে সসম্মানে ছেড়ে দিয়ে সেনাবাহিনীর জেনারেলদের সাথে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বসতে দিতে হবে । সুশীল নেতা মান্না সাহেব প্রয়োজন মনে করলে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে তাঁর সহযোগী হিসাবে আমারদেশ পত্রিকার সম্পাদক উত্তরা-বৈঠক খ্যাত মাহমুদুর  রহমান , মানবাধিকার আদেল , হুমায়ুন জামাতা আসিফ নজরুল, ফরহাদ মজহার, মতিভাই (প্রআ)   ইত্যাদি সুশীলদের রাখতে পারবেন । আমাদের বিজ্ঞ সংগ্রামি নেতা তারেক রহমানকে প্রেসিডেন্ট এবং তাঁর আম্মিজানকে আপাতত প্রধানমন্ত্রী বানিয়ে দিতে হবে, এটাই আমাদের প্রধান এবং একমাত্র দাবি ।

এ সমস্ত দাবি পূরণ হবার আগ পর্যন্ত আমাদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে পেট্রল বোমা ছুড়ে মানুষ্ মারাকে সাংবিধানিক স্বীকৃতি দিতে হবে . যারা পেট্রোল বোমা ছুড়ে আন্দোলন কে বেগবান করছে , পুলিশ র‍্যাব তাদের ক্রস ফায়ারে দিতে পারবেনা । আমাদের মহিয়সী নেত্রী খালেদা জিয়ার ঘোষিত হরতাল এখন আর ৭২ ঘন্টায় সীমাবদ্ধ রাখা হবেনা। হরতাল হবে  আমরণ!

(বিএনপির আন্ডারগ্রাউন্ড উইং এর প্রধান, জননেতা সালাউদ্দিনের ব্যস্ততার কারনে আমি এই বিবৃতি গনমাধ্যমে পাঠিয়ে দিলাম।)