ক্যাটেগরিঃ চারপাশে, ফিচার পোস্ট আর্কাইভ

 

আজকাল ঢাকার রাস্তায় ব্যক্তিগত গাড়ি বেশুমার , সেই সাথে গাড়ির মালিক যেমন বেশুমার তার সাথে পাল্লা দিয়ে তাদের মন মানসিকতার ধরণও বেশুমার ।যেমন এক ভদ্রলোক নতুন একটা মিরর পলিশ করা আনকোরা গাড়ি কিনে রাস্তায় কয়েকদিন ধরে চলছেন ,হঠাৎ তাঁর মনে হলো আমি এমন একটা যুৎসই গাড়িতে চড়ে যাচ্ছি ,কিন্তু ওরা কি জানে আমি কে ? না এটা ওরা কিভাবে জানবে ,আমি যদি ওদের না জানাই ।তথ্যতো আমাকে দিতেই হবে ,তবেতো ওরা জানবে ,কারণ তথ্য জানাতো পাবলিকের অধিকার ।অতএব সাদা কাগজে বড় হরফে লেখা হলো “আইনজীবি” , লেমিনেট করে দুইটা স্টিকার গাড়ির সামনে পিছ্নে দৃশ্যমান করা হলো ।এখন গাড়ি যখন রাজপথ দাবড়ে চলে একটু অন্যরকম লাগে । আরেকজন অনেকদিন থেকেই গাড়ি ব্যবহার করছেন , আইন ব্যবসায়ে আছেন অনেকদিন , তিনি দেখলেন সাড়ে আট লাখ টাকার প্রবোক্স গাড়িতে সামনে পিছনে স্টিকার লাগিয়ে হাওয়া মারছে ।আমি চড়ি একুশ লাখ টাকার জি করলায় ।বাসায় ফিরেই প্রথম কাজ স্টিকার লেখা লেমিনেট করা । ব্যস ,লেখা হয়ে গেল “সিনিয়র আইনজীবি ।

আজকাল সাংবাদিক ভাইয়েরা গাড়ি চাপার শিকারে পরিণত হচ্ছেন । গাড়ির সামনে পিছনে লেখা সাংবাদিক ,মোটরবাইকে তো অহরহ দেখা যায় । পাড়ার হোমড়া-চোমড়াও বাইকে লিখে রাখে “প্রেস” ।
এখানে একটা বড় সমস্যা, আজকাল অনেক বাস-মিনিবাস- লেগুনার চালক বর্ণ জ্ঞান সম্পন্ন ।প্রেস শব্দের অর্থ চাপ দিন ভেবে যদি নির্দেশ পালন করে তাহলেই বিপদ । সরকার প্রজ্ঞাপণ জারী করেছে, “পুলিশ” স্টিকার লাগিয়ে কোন বেসরকারি গাড়ি রাস্তায় চলতে পারবেনা ।কিন্তু দেখবেন গাড়ি নিয়ে বাজার করতে গেছেন , রাস্তার উপর গাড়ি পার্ক করেছেন , কার বাবার সাধ্য আপনাকে কিছু বলে ? স্টিকার তো আছেই “পুলিশ” ।

বাচ্চা নিয়ে স্কুলে গেছে গাড়ি ,সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মাদাম মার্কেটিং করবেন ,গাড়িতে লাগানো আছে স্টিকার “পুলিশ “। এভাবে আপনার চোখে পরবে , “জরুরী রপ্তানী কাজে নিয়োজিত ” লেখা গাড়ি দোকানে দোকানে আলুর চিপস নামাচ্ছে । কিছুদিন আগে এক প্রতারক ধরা পড়েছে গাড়িতে পুলিশ লিখে দিব্বি ঘুরে বেড়িয়েছে। কারো গাড়িতে লেখা দেখবেন “ডাক্তার “, কারোবা ডাক্তার লেখার দুইপাশে লাল রং দিয়ে ক্রস বা ক্রিসেন্ট চিহ্ন দেয়া । “প্রকৌশলী” স্টিকার লাগানো গাড়িও আমি ঢাকার রাস্তায় দেখেছি ।

এরকম করে একসময় ব্যবসায়ি, শিল্পপতি , আর্কিটেক্ট , শিল্পোদ্দক্তা , সম্পাদক , এডিটর , শেয়ার ব্যবসায়ি , টিচার, বাড়িওয়ালা , পরিবহন ব্যবসায়ি , রাজনৈতিক নেতা ইত্যাদী লেখা স্টিকার সহ গাড়ি ঢাকার রাস্তায় দেখা যাবে । বলতে ভুলে গেছি , এক গাড়িতে স্টিকার দেখেছি , “বিচারক , দায়রা আদালত”। প্রশ্ন হচ্ছে এভাবে স্টিকারে নিজের পেশা জাহির করে ওরা নিজেরা রাস্তায় বাড়তি সুবিধা নিতে চাচ্ছে নাকি রাস্তায় চলাচল রত অন্য নাগরিকদের ইনস্ট্যান্ট সেবা দিতে চাচ্ছে? নাকি নিজেদের মানসিকতার দৈন্যতা প্রকাশ করছে? আসলে কোনটা?

***
ফিচার ছবি: ইন্টারনেট থেকে সংগৃহিত