ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

এটা পুরোপুরি আমার ব্যক্তিগত মতামত।

পুলিশ আমাদের সমাজের প্রতিটি রন্ধ্র থেকে নেওয়া জওয়ানদের নিয়ে সংগঠিত একটি বাহিনী ।পুলিশের দুর্ণীতি নিয়ে সকলেই সোচ্চার ।আওয়ামি লীগ আমলে পুলিশের গুলিতে মিছিলকারি নিহত হলে পুলিশ খুব খারাপ , বিএনপি আমলে পুলিশের গুলিতে মিছিলকারি নিহত হলে পুলিশের কোন দোষ নেই , মানসিকতার বৈষম্য ।এমন কোন বিভাগ খুজে পাওয়া কষ্টকর হবে যেখানে দূর্ণীতি নেই । আমরা কি ওদের কথা সচরাচর বলে থাকি ? সচিবালয়ের উচু-নীচু সব পদে সারা বছরে যত বিলিয়্ন টাকা ঘুস হিসাবে লেন দেন হয় ,তত বিলিয়ন টাকা পুলিশে লেনদেন হতে কয়েক বছর লেগে যাবে । পুলিশ দৈনন্দিন জীবনে নাগরিক , জনগণের যত ধরণের উপকারে আসে , সচিবালয় \বন বিভাগ \কাষ্টমস \ইনকামট্যাক্স \ভ্যাট কতটুকু কাজে আসে ভেবে দেখার বিষয় ।তফাত হল পুলিশ গুলি করে বাকিরা গুলি করতে পারেনা ।মিছিলে গুলির বিষয়ে আসি , আমাকে এই ধরণের র রাজনৈতিক পরিবেশে একবেলা মিছিলে নিতে পারবেনা ২ লাখ টাকা দিয়েও , কিন্তু মিছিলে পুলিশের গুলিতে নিহত হওয়াদের অধিকাংশই (সবাই নয় ) দৈনিক মজুরিতে মিছিলে\গাড়িভাংচুরে আসে ।মৃত্যুর পরদিন পত্রিকা দেখলেই বোঝা যায় ওরা কতটা অসহায় পরিবার থেকে আসা ।ওদের দিয়ে সহজেই পুলিশকে উত্তেজিত করে গুলি করার মত পরিস্থিতি তৈরী করা যায় । রাজনীতিতে বড় নেতানেত্রী দের লাশ এবং রক্ত বড় প্রয়োজন । হরহামেসাই বড় নেতা -নেত্রিরা দলীয় সভায় বলে থাকেন ” রক্তের বন্যা বইয়ে দিবো ” , আমার মনে প্রশ্ন জাগে উনারাতো একবার বাড়ী থেকে রক্ত এনে রাস্তায় গড়িয়ে দেন না । রক্তের জন্য প্রয়োজন ভাড়া করে অনা মিছিল কারির গুলি খাওয়া নিথর দেহ। পুলিশের পোষাকটার নিচে যে দেহটা সেটাও একটা মানবদেহ , অবশ্যই খুনী নয় , কারো স্বামী, কারো ভাই, কারো বাবা ।গুলি করার উদ্দেশ্য নিয়ে পুলিশ কখনোই ব্যারাক থেকে বের হয়না। কিছু উদভ্রান্ত লোকের অবিমৃষ্যকারিতা পরিস্থিতি তৈরি করে দেয় ।গুলির পর নিহত সেই ব্যক্তিটির পরিচয় যখন জানা যায় তখন তার জীবন দেওয়াটা প্রশ্নের উদ্রেক করে এজন্য যে তার রাজনৈতিক জ্ঞান কি এতটা প্রখর ছিলো, যে জন্য জীবন উৎসর্গ করা যায় ? ভাইসব , মোটেই নয় !!

দুর্নীতির কথায় আবার আসতে হচ্ছে , পুলিশ দুর্নীতি করে বারিধারা ,গুলশান ,বনানী , ডিওএইচএস এর মত যায়গায় কয়টা বাড়ি করেছে? পুলিশের চেয়ে সামান্য কিছু বেশি বেতন পাওয়া উপরে উল্লেখিত অন্য পেশার প্র্জাতন্ত্রের চাকুরেদের কত শত বাড়ি আর বিত্ত বৈভব আছে গভীর চিন্তার বিষয় ।

আর চেইন অফ কমান্ড? কোথায় খুঁজে পাবেন? অন্তত সান্তনা , চেইন অফ কমান্ড ভঙ্গ করে ওরা রাতের আধারে বাড়িতে ঢুকে মহিলা,শিশু,অন্তসত্বা নারী ,বৃদ্ধ দের মেরে উল্লাস উৎসব করেনা ।

পুলিশ আপনার রক্ত- সম্পর্কীয় কেউ না হলেও আপনার প্রতিবেশি, বন্ধু । তারাও প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী ।ভুল ভ্রান্তি সহ তাদের কর্ম করতে হয় ।দলবাজি ? সেটাও কোথায় নেই ?