ক্যাটেগরিঃ দিনলিপি

 

অনেকদিন আগের কথা। পুরানা ঢাকার সুত্রাপুরে একবার বিশেষ কাজে গিয়েছিলাম। জনকোলাহল বিহীন একটা জায়গায় দাড়িয়ে আমার এক জনৈক বন্ধুর জন্য অপেক্ষা করছি।আমার কাছ থেকে কিছু দুরে এক লিকলিকে মহিলা তার ছাপরা ঘরের কাছে রান্না করছে। তার পাশেই তার ছোট শিশু হামাগুড়ি দিয়ে খেলা করছে।শিশুটি যেখানে খেলছিলো ঠিক তার কাছেই একটি মালবোঝাই ট্রাক থামানো ছিলো। শিশুটি খেলতে খেলতে একসময় ট্রাকটির পিছনের চাকার সামনে চলে এলো। এরকম সময়ে ড্রাইভার ট্রাকটি স্টার্ট দিলো। আমি বুঝতে পারছিলামনা কিভাবে আমি শিশুটিকে বাচাবো। কারণ আমি যেদুরত্বে দাড়িয়ে ছিলাম সেখান থেকে শিশুটিকে সাহায্য করা বেশ দুরহ ছিলো। এরপর যা ঘটলো তা দেখে আমি বিশ্বয়ে শুধু হতবাকই হইনি, অন্যরকম একটা শীতল ভয়ের স্রোত সারা শরীরে বয়ে যাচ্ছিলো। আমি দেখলাম সেই লিকলিকে দেহের মহিলাটি খুব দ্রুত দৌড়ে এসে দুই হাত দিয়ে ট্রাকটি টেনে প্রায় তিন ফুট উচু করে ফেললো। কিছুক্ষণ পর তার শিশুটি নিরাপদ দুরত্বে বের হয়ে আসলে সে ট্রাকটি ছেড়ে দিলো। সেদিনের সেই ঘটনাটি আজও আমার কাছে বিস্ময় হয়ে আছে।