ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

আজ ঢাকায় মিছিল করার সময় জামাত-এর অনুচর ছাত্র শিবিরের ১৭ জন কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। সেই মিছিলের উদ্দেশ্য জানলে হাসি পায়। স্বাধীনতা দিবস। হায়রে স্বাধীনতা!

ছাত্র শিবির যাদের একনিষ্ঠ অনুচর, দেশের স্বাধীনতার শত্র“ সেই জামাতে ইসলামী আজ যখন অস্তিত্ব বাঁচাবার ফরজ কর্মে লিপ্ত তখন এমন মিছিল দেখে জাতির দুর্ভাগ্যের চিত্র আরো মূর্ত হয়ে উঠে।

কিন্তু ইসলামী ছাত্র শিবিরের কি কোন নৈতিক অধিকার আছে স্বাধীনতা দিবসে কোন মিছিল করার। মোটেই নেই। কারণ তারা এখনো স্বাধীনতা বিরোধী, নরঘাতক, মানবতার শত্র“ জামাতে ইসলামীর আদর্শকে লালন করে। অনেকে বলে থাকেন, যদিও এটা একটা খোড়া যুক্তি, ছাত্র শিবিরের জন্ম স্বাধীনতার অনেক পরে এবং এর সব নেতা-কর্মীর বয়সই ৪০ এর নিচে। কিন্তু তাতেই কি সব লেখা চুকে যাবে? তাতেই কি এদেরকে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি বলা যাবে? না। কারণ এই সংগঠনের কোন নেতা-কর্মীই জামাতের সাথে সম্পর্ক ত্যাগ করেনি। জামাতের স্বাধীনতা বিরোধী কর্মকে প্রত্যাখ্যান করেনি। ৭১ এ তাদের নেতাদের কৃতকর্মের বিরুদ্ধে স্পষ্ট কোন অবস্থান নেয়নি। বরং জামাতের রাজনীতিকে পুষ্ট করার অশুভ মিশন নিয়েই তারা মাঠে কাজ করছে।

তাই যত দিন পর্যন্ত ছাত্র শিবির উল্লেখিত শর্তগুলো পূরণ না করছে এবং যতদিন পর্যন্ত কাজের মাধ্যমে তারা নিজেদের দেশপ্রেমিক হিসেবে প্রমাণ করতে না পারছে, ঠিক ততোদিন পর্যন্ত তাদের কোন অধিকার নেই আজকের অনুরূপ কোন কর্মসূচী গ্রহণ করার। আর করলে তা হবে চরম ভন্ডামী ও প্রতারণা। এই প্রতারণা দেশের সাথে, জাতির সাথে। আর এই অবস্থায় রাষ্ট্রের উচিত হবে তাদের প্রতিহত করা।