ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

স্থানীয় পরিষদের কোন নির্বাচন নিয়ে জাতীয় পর্যায়ে খুব একটা হৈ চৈ হবার কথা না। কিন্তু আমাদের জাতীয় রাজনীতি এখন এতোটাই দ্বিধাবিভক্ত যে একটি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন নিয়েও জাতীয় পর্যায়ে বাক-বিতন্ডা পৌঁছে গেছে তুমুল পর্যায়ে। আসন্ন নারায়নগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ও এর আগে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনই এর বড় নজির। চট্টোগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রাধান্য পেয়েছিল বড় দুই দলের প্রতিনিধি হিসেবে কোন প্রার্থী জয়ী হবে কিন্তু নারায়নগঞ্জ সিটি নির্বাচনে আলোচনায় প্রাধান্য পেয়েছে একই দলের (আওয়ামী লীগ) দুই প্রার্থীর কোন জন জয়ী হতে যাচ্ছেÑ শামীম ওসামান নাকি আইভি রহমান। এই নির্বাচনে আরেক জন প্রার্থী বিএনপি নেতা ও বিআরটিসির সাবেক চেয়ারম্যান তৈমুর আলম এক অর্থে বাদ পড়েছেন এই চরম উত্তেজনাকর আলোচনা থেকে। কারণ খুব সহজ ও স্পষ্ট- একই দলের দুই প্রার্থীর সম্পূর্ণ বিপরীত ইমেজের দাপট বিএনপির অপেক্ষাকৃত কম গুরুত্বপূর্ণ নেতা তৈমুরকে আড়াল করেছে। তাছাড়া বিআরটিসির চেয়াম্যান থাকাকালীন সীমাহীন দুর্নীতির অভিযোগও তার ইমেজকে খাটো করেছে অনেকটা। তাছাড়া বিএনপির আচরণেও আমার মনে হয়েছে দলটি নিজেও তার প্রার্থীকে নিয়ে খুব একটা আশাবাদী নয়। উল্টো বিএনপি নিজেই উপভোগ করছে আওয়ামী লীগের দুই প্রার্থীর বরফ-পানি খেলা।

নির্বাচনকে সামনে রেখে শাসক দল আওয়ামী লীগেও চলছে চোর পুলিশ খেলা। দলের সমর্থন কে পেল সন্ত্রাসী হিসেবে স্বীকৃত শামীম ওসমান না জনপ্রিয়তায় তুঙ্গে থাকা আইভি রহমান এ নিয়েই চলছে এক ধরণের লুকোচুরি। অবশ্য এটি রাজনীতির বাইরের দৃশ্য। ভেতরের খবর যারা রাখেন তাদের কথা অনেকাংশেই স্পষ্ট। আওয়ামী লীগের সমর্থন পেয়েছেন শামীম ওসমান। দলীয় শৃঙ্খলা ও ভোটের জটিল হিসেবের কারণে এই সমর্থনের কথা আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো খোলাসা করা হয়নি। পর্দা ওঠবে নির্বাচনের আগ মুহূর্তে।

কিন্তু বাস্তবতা কী বলে? সন্ত্রাসী ও দস্যু হিসেবে পরিচিত শামীম ওসমান দলকে বাগে আনতে পারলেও তিনি কি পারবেন জনমতকে জয় করতে? নাকি জয়ের স্বার্থে ত্রাস ও কারচুপির মাধ্যমে ছিনিয়ে নেবেন জনতার রায়? দেখার জন্য অপেক্ষা করতে হবে। যে দলের জন্য তিনি সন্ত্রাসী হয়েছেন, বছরের পর বছর পালিয়ে থেকেছেন, যে দলকে বাহন করে কামিয়েছেন কোটি কোটি টাকা সে দল তাকে বঞ্চিত করেনি। সমর্থন দিয়ে প্রকাশ করেছে কৃতজ্ঞতা। কিন্তু আইভি? তিনি তো সন্ত্রাসী নন। তবও দলকে দিয়েছিলেন পৌর নির্বাচনের জয়ের মালা, জনতার সমর্থন ও আস্থা। অথচ নির্মম বাস্তবতা- দল তার পাশে নেই।

তাই আমার কামনা, দল হোক শামীম ওসমানের আর জনতা হোক আইভির।