ক্যাটেগরিঃ ব্লগালোচনা

 

আগামী ১৯ ডিসেম্বর উদযাপিত হবে বাংলা ব্লগ দিবস। ব্লগ দিবসের একটি উদ্দেশ্য আছে- ভাল ব্লগার সৃষ্টি করা। ভাল ব্লগার মানেই ভাল লেখা, ভাল চিন্তা এবং একটি ঝাঁকুনি। ব্লগাদের মধ্যে দুটি শ্রেণী বেশ স্পষ্ট দেখা যায়- জনপ্রিয় ব্লগার, বুদ্ধিজীবী ব্লগার। জনপ্রিয় ব্লগাররা খুব হালকা ভাব ও ভাষায় ব্লগ লিখতে পছন্দ করে, তারা বেশ মিশুক প্রকৃতির এবং ব্লগে আড্ডার পরিবেশে ব্লগ করতেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে। তবে হালকা মেজাজেই তারা অনেক সময় খুব সিরিয়াস ব্লগ পোস্ট করে ফেলেন। আর যারা বুদ্ধিজীবী ব্লগার তাদের লেখাগুলো বরাবরই হয় গুরুগম্ভীর এবং বিশ্লেষণী। মন্তব্যের মাধ্যমে আড্ডা নয় বরং নিজ মতকে আরো পোক্ত করাই এদের উদ্দেশ্য। তবে আমার ধারণা এই দুই শ্রেণীই জাত ব্লগার। কারণ এই দুই শ্রেণী দিয়েই ব্লগিং এর মূল উদ্দেশ্য সিদ্ধ হয়।

আসুন এবার দেখি একজন জাত ব্লগারের কী কী বৈশিষ্ট্য থাকা উচিত:

১. একজন জাত ব্লগার বহুলপ্রজ অর্থাৎ অনেক লিখেন। তিনি নিয়মিত পোস্ট করেন এবং নিয়মিত লেখার অভ্যাসই তার লেখাকে আরো বেশি আকর্ষণীয় করে তোলে। ফলে পাঠক তার ব্লগে নিয়মিত ভ্রমন করেন। এটি বেশ আয়াসসাধ্য কাজ যা একজন জাত ব্লগারের প্রধান বৈশিষ্ট্য।

২. একজন জাত ব্লগার সচেতন ব্যক্তি। সচেতনতা তার বড় বৈশিষ্ট্য। তিনি সংক্ষিপ্ত লিখেন এবং জানেন কোন লেখার সীমা কতটুকু হওয়া উচিত। কারণ ছোট ও একাধিক প্যারা বিশিষ্ট লেখাই পাঠক পড়তে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন।

৩. বিশ্লেষণী ক্ষমতা একজন জাত ব্লাগারের তৃতীয় বৈশিষ্ট্য। তিনি লক্ষ্য রাখেন কোন কোন ব্লগার তার লেখায় বেশি মন্তব্য করেন এবং তারা কী ধরনের লেখা পড়তে বেশি আগ্রহী। জাত ব্লগার সে অনুযায়ীই তার পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।

৪. জাত ব্লগার একজন প্রকৃত শিক্ষার্থী। তিনি প্রতিনিয়ত শিখতে চান ও শিখেন। শিখেন অন্য ব্লগারের কাছ থেকে এবং নানা সূত্র থেকে। যা তার লেখা পোস্টগুলোতে স্পষ্ট হয়ে উঠে।

৫. জাত ব্লগার একজন স্থিরমতি মানুষ। তিনি একটি বিষয়ে নিয়মিত লিখেন এবং জানেন বিষয়টি নিয়ে কতদিন লেখালেখি করা উচিত। তিনি এমন একটি রুটিনে লেখেন যা তার পাঠকের কাছে স্পষ্ট হয়ে উঠে এবং সেই রুটিন অনুযায়ীই পাঠক তার ব্লগ ভ্রমণ করেন।

৬. সুপরিকল্পনা। এটা একজন জাত ব্লগারের বড় গুণ। তিনি পরিকল্পনা নিয়ে ব্লগিং করেন এবং সেভাবেই এগিয়ে যেতে চান।

৭. জাত ব্লগার ধৈর্যশীল। তিনি জানেন সাফল্য একদিনে আসে না। সাফল্যের জন্য তিনি নিয়মিত শ্রম ও সময় ব্যয় করতে আগ্রহী।

৮. জাত ব্লগার একজন ভাল উদ্যোগতা। অর্থাৎ তিনি লেখার বিষয়বস্তু নিজেই নির্ধারণ করেন এবং তার উদ্ভাবিত বিষয় দিয়েই পাঠকে তার চিন্তার সাথে সম্পৃক্ত করতে পারেন। তিনি ননইস্যুকে ইস্যু করতে পারদর্শী।

তো পাঠক, এবার মিলিয়ে দেখুন আপনার সাথে। ভাল লাগলে জানাবেন।

কৃতজ্ঞতা: ব্লগার এনাবেল ক্যান্ডি